30 C
Kolkata
Friday, June 18, 2021

Corona Crisis: এই কঠিন সময়ে কিছু সাধারণ নিয়ম মেনে চললেই সম্পর্ক অটুট থাকবে

আরও পড়ুন

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমশ উদ্বেগ বাড়াচ্ছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় লকডাউন অথবা অন্য কোনো কড়া নিয়ন্ত্রণবিধি জারি হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে আমাদের স্বাভাবিক জীবনযাপন এবং অনেকের কাছে সম্পর্কগুলো টিকিয়ে রাখা বেশ শক্ত হয়ে ওঠে। তবে কিছু সাধারণ নিয়ম মেনে চললেই কাজগুলো অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে।

একেক জনের পরিস্থিতি একেক রকম। বিশ্বব্যাপী করোনা অতিমারিতে বিভিন্ন উপায়ে এই পরিস্থিতিকে মোকাবিলা করতে হচ্ছে। তবে এই কঠিন সময়ে আমাদের সকলেরই উচিত, নিজের পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে আমাদের সম্পর্কগুলোকে এগিয়ে নিয়ে চলা। সম্পর্কের সঠিক লালনপালন সে ক্ষেত্রে সবার জন্য যে একই হবে, তেমনটাও নয়।

Loading videos...
- Advertisement -

যে সম্পর্কের দূরত্ব অনেক বেশি, সে ক্ষেত্রে হয়তো এই আকস্মিক দুর্ভোগের প্রভাব ততটা পড়ে না। কিন্তু যাঁরা একই জায়গায় বসবাস করেন, তাঁদের ক্ষেত্রে এই অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতিতে সম্পর্কের লালনপালন প্রতিনিয়তই অভূতপূর্ব ঘটনার সম্মুখীন হতে পারে।

মানসিক স্বাস্থ্য

চারদিকে যা ঘটে চলেছে, তাতে দিনভর শান্ত থাকা বেশ মুশকিল। সে ক্ষেত্রে একে-অপরের বর্তমান মানসিক অবস্থার খোজঁখবর রাখতে হবে আপনাকে। নিজেরও হতাশা থাকবে। তবে যতটা সম্ভব সেগুলোকে সরিয়ে রাখতে হবে।

আপনাকে উদ্বিগ্ন করে তোলে এমন খবরগুলোতে না হয় চোখ না রাখলেন! সোশ্যাল মিডিয়ায় আচমকা ধাক্কা দেওয়া পোস্টের রমরমা। যতটা পারা যায় দূরে থাকাই ভালো। তাই বলে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ারও মানে হয় না। যেগুলো আপনি পছন্দ করেন, সেগুলোতেই মন দিন। কিন্তু নিজের প্রিয়জনদের এড়ানোর চিন্তাভাবনা একেবারেই মাথায় আনবেন না।

ভাগ করে নেওয়া

এটা ঠিক, শুধুমাত্র আপনিই সেই ব্যক্তি নন, যিনি এই কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন। সে ক্ষেত্রে আপনার সঙ্গীর মনের অবস্থা বোঝা এবং তাঁকে জায়গা করে দেওয়ার পথ ধরতে হবে। একে অপরকে যদি জায়গা দেওয়া যায়, তা হলেই সমঝোতার পথ প্রশস্ত হতে পারে।

ধরুন, কারও সঙ্গে কোনো একটা বিষয় নিয়ে দ্বিমত দেখা দিল। ব্যাপারটাকে বেশি দূর এগোতে দেওয়া উচিত নয়। নিজে শান্ত হতে না পারলে অন্য ঘরে বা দূরে চলে যান। আর যদি এই পরিস্থিতি দীর্ঘ দূরত্বের কোনো সম্পর্কের ক্ষেত্রে ঘটে, তা হলে কিছুক্ষণের জন্যে মোবাইলটা সুইচ অফ করে রাখুন। বরফ গললে ফের চালু করা যাবে। তবে সব কিছুই নির্ভর করছে আপনার পরিস্থিতির উপর। কারণ ওই একটাই, একেক জনের পরিস্থিতি একেক রকম।

মজার কিছু

সম্পর্কের মধ্যে আবেগ তো থাকবেই। কিন্তু পরিস্থিতির চাপে আমরা অনেক সময়ই আবেগ শিকেয় তুলে মজা করার বিষয়টা ভুলে যাই। সেটার জন্যেও কাঠগড়ায় তোলা যায় পরিস্থিতিকে। তবে এর জন্যে মোটেই সঙ্গীকে দায়ী করা যায় না। এমন কিছু ইতিবাচক কাজ করুন, যেটা সবাইকে নির্মল আনন্দ দেবে।

এই সময় আমাদের যে শিক্ষাগুলো দিচ্ছে, তার মধ্যে অন্যতম বিষয়গুলো আলাদা করতে ভুলে যাওয়া। কোনো কোনো সময় ধৈর্যের ঘাটতিও দেখা দিচ্ছে। নিজের মর্যাদাবোধ এবং অন্যের প্রতি সম্মান দেখানোর প্রবণতা থেকে কখনো কখনো সরিয়ে দিচ্ছে এই কঠিন সময়। এগুলো কিন্তু ভুললে চলবে না।

আরও পড়তে পারেন: শিশুসন্তানের সঙ্গে বাবা-মা এই ভুল আচরণ প্রায়ই করে থাকেন

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

- Advertisement -

আপডেট

কী ভাবে হবে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিকের মূল্যায়ন? জানাল পর্ষদ ও সংসদ

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনা সংকটে বাতিল হয়েছে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক। পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন কী ভাবে হবে, তা শুক্রবার ঘোষণা করল...

পড়তে পারেন