Connect with us

সম্পর্ক

মেজাজ হারিয়ে ফেলছেন? জেনে নিন নিয়ন্ত্রণের এই ৭টি পদ্ধতি

ওয়েবডেস্ক: সম্পর্ক! এই ছোটো শব্দটির মানে যেমন বিশাল, আবার তেমনই এই শব্দটির মানেও এক এক জায়গায় এক এক রকম।

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে, সেই সম্পর্কের মধ্যে সবই যে আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ তা কিন্তু একেবারেই নয়। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনেক সম্পর্কের বাঁধন যেমন আলগা হয়ে যায়, আবার কিছু সম্পর্ক জীবনের গতিপথটাই বদলে দেয়।

অনেক সময়ে ভালোবাসার ক্ষেত্রে দেখা যায়, দু’জন মানুষের মধ্যে তুমুল ঝামেলা-অশান্তি লেগেই আছে। কারণে-অকারণে মাঝে মধ্যেই নিজের মেজাজ হারিয়ে ফেলছেন? কিন্তু এটা তো খুব ভালো কথা নয়।

এই ভাবে যদি দিনের পর দিন খুব ছোটো ছোটো ব্যাপারে আপনি রেগে যান বা নিজের মেজাজকে ধরে না রাখতে পারেন তা হলে কিন্তু আপনার ভালোবাসার মানুষটি খুব বেশি দিন আপনার সঙ্গে সম্পর্ক রাখবে বলে মনে হয় না। তাই সময় থাকতে থাকতে নিজেকে সংযত করুন।

মাথায় রাখবেন, একটা সম্পর্ক টিকে থাকে ভালোবাসা, বিশ্বাস, শ্রদ্ধা, দু’জনের মধ্যে বন্ধুত্ব সব কিছুর ওপরে ভিত্তি করে।

তাই কথায় কথায় মেজাজ হারানো কোনো কাজের কথা নয়। বরং এখানে আপনার দোষ অথবা আপনার ভুলই হয়ত হয়ে দাঁড়াল আপনার সম্পর্ক ভাঙার একটি বড়ো কারণ।

তা হলে জেনে নেওয়া যাক মাথা ঠান্ডা রাখার সহজ ৭টি উপায়-

১। ভালো ভালো বই পড়ুন।

২। সময় পেলেই নিজের পছন্দমতো গান শুনুন।

৩। ভালো ভালো চিন্তাভাবনা করুন।

৪। মেডিটেশন করুন।

৫। যে কোনো কথা বলার আগে ভাবনাচিন্তা করে গুছিয়ে বলুন।

৬। সময় পেলে মনটা হালকা রাখার জন্য কাছে-পিঠে কোথাও ঘুরে আসুন।

৭। এমন কোনো কাজ করুন যেখানে দু’জনের মন ভালো থাকে। যেমন ধরুন, খুব সামান্য কিন্তু দু’জনের কাছে সেই উপহারটা খুব দামী। এই রকম কোনো উপহার দিতেই পারেন।

রাগকে নিয়ন্ত্রনে রাখবেন কী ভাবে আরও বিস্তারিত ভাবে জানিতে এই বইটি পড়তে পারেন।

যোগা এন্ড স্ট্রেস ম্যানেজমেন্ট , দাম ১৫৯.০০ পেপারব্যাক

জীবন যেমন

মন খারাপ? মন ঠিক করতে আরও আট পরামর্শ

happy

স্মিতা দাস

মন খারাপ হলে শরীর খারাপ হয়। কিন্তু এটা তো চলতে দেওয়া যায় না। তাই হুট করে মন খারাপ লাগলে, হুট করে তা ঠিকও করে ফেলতে হবে। তেমনই মন ভালো করার সহজ ৮টি উপায় আগের পর্বে বলা হয়েছে। এই পর্বে রইল আরও ৮টি সহজ উপায়।

১। নেতিবাচক ভাবনা থেকে বেরিয়ে নতুন কিছু করার চেষ্টা করুন। নিজের জীবনে নতুন কোনো কিছুকে নিয়ে আসুন, কোনো ট্রেনিং বা পোষ্য বা যা হোক। যাতে আপনি অনেকটা সময় আটকে থাকবেন। তা হলে আর উলটোপালটা চিন্তা স্থান পাবে না। মনও খারাপ হবে না।

২। মন খারাপ হলে যেমন সকলের মধ্যে থাকা একটা ওষুধ, তেমন সকলের থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়াটাও। নিজেকে একক ভাবে সময় দেওয়া, নিজেকে বোঝানো এবং বোঝা দরকার। ঠিক ভাবনায় ভাবিত হওয়া ইত্যাদির জন্যও নিজেকে সময় দিতে হয়, তার জন্য সকলের থেকে একটু আলাদা হওয়া দরকার পড়ে। তাতেও মন খারাপ ঠিক হয়ে যায়।  

৩। বাড়ির যে কোনো কাজে অন্যকে সাহায্য করুন। কাজে মেতে থাকলে মন খারাপ চলে যাবে।

৪। মন খারাপ লাগলে রান্না করতে পারেন। অনেক সময় মন দিয়ে রান্না করতে গেলেও আপনার মেজাজ ভালো হয়ে যেতে পারে।

৫। নিজের কাজের জায়গাটি মনের মতো করে সাজান। সেখানে নানা রঙের সামগ্রী রাখুন। কম্পিউটার ল্যাপটপে মজার স্ক্রিনসেভার রাখুন, যা দেখলেই আনন্দে মন ভরে যায়।

৬। মন খারাপ হলে লেখাপড়ার কাজ করুন। ডায়েরিতে মজার কোনো স্মৃতি লিখতে পারেন। মজার বই পড়তে পারেন।

৭। ছবি তুলুন। মন ভালো না থাকলে নিজের চারপাশের সুন্দর ভালো খারাপ সব মিলিয়ে যেমনটা মন চায় তেমনই ছবি তুলুন। বিভিন্ন কোণ থেকে ছবি তুলুন। আকাশ, গাছ পাখি, ফড়িং, প্রজাপতি, পথঘাট এই সমস্ত কিছুর রূপকে ক্যামেরাবন্দিকরুন। সেগুলো দেখুন, শেয়ার করুন, মন ভালো হয়ে যাবে।  

৮। সাজগোজ করুন। আরও একটি ভালো পথ হল এটি। সব শেষে বললেও, এটি কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। নিজেকে মনের মতো করে সুন্দর করে সাজান। নেলপলিশ পরুন। লিপস্টিক লাগান, কাজল পরুন, চোখ আঁকুন ইত্যাদি। সুন্দর করে চুল বাঁধুন। বা রূপচর্চায় মন দিন। মন ভালো হয়ে যাবে।

Continue Reading

জীবন যেমন

যখন তখন মন খারাপ লাগে? ভালো করার সহজ ৮ উপায়

happy

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কারণে অকারণে মন খারাপ হওয়া মনেরই ধর্ম। অনেকেরই থেকে থেকে কোনো কিছুতেই ভালো লাগে না। কেমন একটা মন খারাপ করা ভাব। এমন হলে খাওয়াদাওয়াতেও মন লাগে না। বাকি কাজ তো ছেড়েই দিন। কিন্তু এর পরিণতি যা হয় তা হল শরীর খারাপ। কিন্তু এটা তো চলতে দেওয়া যায় না। তাই হুট করে মন খারাপ লাগলে, হুট করে তা ঠিকও করে ফেলতে হবে। কী করে? তারই কয়েকটি উপায় বাতালানো যাক

১। মন খুলে হাসুন

মন ভালো রাখার সব চেয়ে সেরা ওষুধ হাসি। খুব মন খারাপ হলেও হাসি মন ঠিক করে দিতে পারে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, হাসির সুফল সুদূরপ্রসারী। খালি মন না, শরীরকেও সুস্থ রাখে হাসি। এ ছাড়াও এটি রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়াতে সাহায্য করে।

২।  শরীরচর্চা করুন

শরীরচর্চা অর্থাৎ ব্যায়ামও আপনার মন ভালো রাখতে পারে। শরীরচর্চার ফলে অ্যান্ডরফিন নামক হরমোন নির্গত হয়। এই হরমোন মন চাঙ্গা রাখে, ভালো রাখে। তা ছাড়া শরীরচর্চা উদ্বেগ ও মানসিক অবসাদ কমাতে খুবই সাহায্য করে।

৩। হাঁটুন

হাঁটতে পারেন। ঘরে যদি কোনো কিছু করার না থাকে, বা ভালো না লাগে তবে মন ভালো করতে হাঁটতে বেরিয়ে যান। বাইরের খোলা হাওয়া মনকে সতেজ করবে।

৪। রোদে দাঁড়ান

নিয়ম করে যদি সকালে ঘুম থেকে উঠে চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে কয়েক মিনিট রোদে দাঁড়াতে পারেন তা হলে শরীর পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন `ডি` পায়। ঝকঝকে সূর্যালোকের এমন ক্ষমতা আছে, যা মানসিক ভাবে সুস্থ রাখে

৫। গান

মন খারাপের আরও একটি মোক্ষম ওষুধ হল গান। গান মানুষের মন ভালো রাখতে সাহায্য করে। তাই তো মিউজিক থেরাপি আজকাল এত জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। পছন্দের কোনো গান শুনলে মুহূর্তেই আপনার মন ভালো হয়ে যেতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, গান মন ভালো রাখার পাশাপাশি মানসিক ও শারীরিক বিভিন্ন সমস্যাও দূর করে। তাই চাইলে নিজেও গলা ছেড়ে গান গাইতে পারেন।

৬। ছবি দেখুন

পুরোনো ছবির অ্যালবাম দেখুন। তাতে মন খুব তাড়াতাড়ি ভালো হয়ে যায়। কারণ পুরোনো দিনের মজার মজার কথা মনে করিয়ে দেয় ছবি। ফলে মন আপনা থেকেই খুশিতে ভরে ওঠে।

৭। ইনডোর গেমস খেলুন

তা ছাড়া ইনডোর গেমস খেলুন। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে একত্রিত হোন, সবাই মিলে মজাদার কোনো খেলা খেলুন। এই হইচই আনন্দ মন ভরিয়ে তুলবে।

৮। বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে কথা বলুন

বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে ফোনে কথা বলুন। কোনো সমস্যা মনে দানা বাঁধলে শেয়ার করুন। সমস্যা থেকে বেরোনোর পথ জানতে চাইতে পারেন বন্ধুবান্ধবের কাছে। পরামর্শ চাইতে পারেন।

জেনে নিন- মুখের দুর্গন্ধ? দূর করার মোক্ষম ওষুধ বেকিং সোডার এই মিশ্রণ

Continue Reading

জীবন যেমন

স্কুল বন্ধ কিন্তু বড়োদের অফিস চালু, এই পরিস্থিতিতে ছোটোদের সামলাবেন কী ভাবে?

room

খবর অনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের কড়াকড়ি আপাতত শিথিল হয়েছে কিন্তু মাথায় রাখতে হবে ছোটোদের কথা। বড়োদের ব্যাপারটা সহজ হলেও ছোটোদের তা নয়। প্রায় তিন মাসের কাছাকাছি ঘরবন্দি। স্বাভাবিক ভাবেই এখন একটু ছাড় পেলেই অনেক বেশি লাগামছাড়া হয়ে পড়ছে তারা। ফলে তাদের সামলানো বেশ  মুশকিল হয়ে পড়ছে। কী ভাবে সামলাবেন তাদের?

১। ভয় না দেখিয়ে বোঝান

লকডাউন শিথিল হয়ে আনলক পর্যায় শুরু হলেও কোভিড ১৯ বিদায় নেয়নি। ওষুধ বেরোয়নি। সেটা ছোটোদেরও বোঝাতে হবে। অবশ্যই ভয় দেখানো নয়। তা হলে তারা পরেও ঘরের কোণ ছেড়ে বেরোতে চাইবে না। এখনই পার্কে যাওয়া কেন সম্ভব নয়, স্কুল কেন খুলছে না ভালো করে বোঝাতে হবে।

২। বেরোনোর প্রয়োজন কী

আপনাকে অফিস যেতে দেখলে শিশুর মাথায় প্রশ্ন আসতে পারে তারা কেন নয়? আপনারা কেন? সে ক্ষেত্রেও বাস্তবটা খুব কড়া ভাবে না বলে ওদের বোঝার মতো করে বোঝান। পার্কে যাওয়া আর অফিসে যাওয়ার মধ্যে মূল পার্থক্যটা বোঝান।

৩। কোলের শিশু?

কোলের শিশু হলে চিকিৎসার প্রয়োজন ছাড়া এখনই নিয়ে বাড়ির বাইরে বেরোবেন না। একঘেয়ে ঘরে ওদের দমবন্ধ লাগলে বাড়ির ছাদে ঘোরাই যায়। তবে রাস্তায় নয়।

৪। শিশুর বয়স ৩-৪ বছর হলে?

৩ বা ৪ বছরের শিশুদের জন্যও একই নিষেধাজ্ঞা পালন করা বাঞ্ছনীয়। তবে নেহাতই নিয়ে বেরোতে হলে ভালো মাস্ক ও গ্লাভস পরান।

লকডাউনে ছোটদের মনের অবসাদ দূর করতে কয়েকটি টিপস

৫। বাইরের খাবার

ছোটোরা বায়না করলেই বাইরের খাবার কিনে দেবেন না। সে ক্ষেত্রে বাড়িতেই মুখরোচক কিছু করে মন ভালো করে দিন। রেস্তোরাঁ থেকে খাবার আনালেও তা বাড়িতে ভালো করে গরম করে তবেই খাবেন।

৬। সময় দিন

নিজেদের কাজের মধ্যেও সময় বের করে তাদের সময় দিন। গল্প করুন, ছবির বই দেখুন, খেলা করুন, কার্টুন দেখুন। ছোটোখাটো হাতের কাজ, ম্যাজিকের মতো জিনিস শেখাতে পারেন। ওদের নিজের মতো থাকতে দিন। তবে খুব বেশি টিভি বা মোবাইলে নয়। কিছু তৈরি করা, করে দেখানো ইত্যাদির টাস্ক দিন। পছন্দের খেলাগুলো হাতের কাছে রাখুন।

৭। লেখাপড়া

শেষে হলেও গুরুত্বপূর্ণ কথা হল লেখাপড়া। সব কিছুর মধ্যে অবশ্যই লেখাপড়ার নিয়ম যেন ভঙ্গ না হয়। এর পর স্কুল খুললে তখন আর পড়াশোনায় মন বসানো যাবে না। তাই নিয়ম করে সমস্ত বিষয়ের পড়াশোনা চালিয়ে যান।

৮। সুরক্ষা বিধির অভ্যাস

এর পর স্কুল খুললে কী ভাবে থাকতে হবে, কী কী নিয়ম মেনে চলতে হবে, সেগুলি এখন থেকেই একটু একটু করে বোঝাতে শুরু করে দিন। পারলে অভ্যাস করাতেও শুরু করুন। যাতে স্কুল শুরু হলে তা নিয়ে সমস্যায় পড়তে না হয়। কোনো রকম ভুলচুক না হয়। অবশ্যই শেখান হাত স্যানিটাইজ কখন কী ভাবে করবে, মাস্কের ব্যবহার, সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাস, দূরত্ব বজায় রাখার অভ্যাস।

আপনার বাচ্চা অনলাইনে ঠিকমতো ক্লাস করছে তো! খেয়াল রাখুন এই বিষয়গুলি

Continue Reading
Advertisement
ক্রিকেট5 hours ago

ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তনে ঐতিহাসিক জয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের

বাংলাদেশ7 hours ago

জাল করোনা-শংসাপত্র চক্রের অন্যতম পাণ্ডা ধৃত ও চাকরি থেকে বরখাস্ত

রাজ্য9 hours ago

রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ হাজার পার, কমছে মৃত্যুহার

রাজ্য9 hours ago

রাজ্যের লক্ষ্য দৈনিক ১ লক্ষ করোনা নমুনা পরীক্ষা করা, আসছে নতুন যন্ত্র

পরিবেশ9 hours ago

একুশ শতকে প্রথম মুক্ত অবস্থায় ঘুরে বেড়াতে দেখা গেল সোনালি বাঘকে

দেশ9 hours ago

কেরল সোনা পাচারকাণ্ড: এনআইএ-র হাতে গ্রেফতার স্বপ্না সুরেশ, উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

indian post
শিল্প-বাণিজ্য11 hours ago

দেখে নিন পোস্ট অফিসের ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পগুলিতে সর্বশেষ সুদের হার

দেশ12 hours ago

ঘোড়া আস্তাবল থেকে পালালে তবেই কংগ্রেসের ঘুম ভাঙবে? সচিন পায়লট প্রসঙ্গে বিস্ফোরক মন্তব্য কপিল সিবালের

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা5 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা6 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা1 week ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে