খবর অন্লাইন ডেস্ক: প্রায় প্রত্যেক মেয়েই চায় এমন এক্জন সঙ্গী, যে তার মনের ছোট ছোট চাওয়া-পাওয়াগুলির ব্যাপারে খেয়াল রাখবে।

প্রায় বেশিরভাগ মেয়েরাই তাদের ভালোলাগার কথা মুখ ফুটে বলতে পারেন না। অনেক সময়ে মেয়েরা যেটা পারেন না সেই কাজটা ছেলেদের দ্বারা হয়। খুব সহ্জেই ছেলেটি তার মনের মানুষকে কাছে টেনে নেয়।

এইরকম আরও ছোট ছোট কিছু ভালো গুণের জন্য মেয়েদের কাছে তার মনের মানুষটি হয়ে ওঠে আরও বেশি কাছের।

১। নিয়মিত খোঁজখবর নেওয়া-

কোনও নতুন সম্পর্কে পথচলা শুরু করলে আপনার প্রেমিক যদি আপনার নিয়মিত খোঁজ রাখেন। তাহলে সেই ব্যাপারগুলো আপনার কাছে খুবই ভালো লাগে।

যদি সেই খোঁজ নেওয়ার পরিমাণ  দিনের পর দিন আরও বাড়ে তাহলে প্রায় বেশিরভাগ মেয়েরা সেটা খুব সুন্দর করে উপভোগ করেন।

২। উপহার-

সঙ্গীর কাছ থেকে উপহার পেতে প্রায় প্রত্যেক মেয়েরাই খুব পছন্দ করেন।
 
অনেক সময়ে ছেলেরা ভেবে পান না কী উপহার নিয়ে যাবেন তার প্রেমিকার জন্য। সবসময় যে দামী কোনও উপহার না দিয়ে চকোলেট কিংবা ফুলের তোড়া দিতে পারেন আপনার মনের মানুষকে। এতে কিন্তু আপনার মনের মানুষটি বরং আনন্দ পাবে।

৩। বুদ্ধিমান সঙ্গী-

যেসব ছেলেরা খুব বুদ্ধি দিয়ে তার মনের মানুষের কথা বুঝতে পারে অথবা তার মনের মানুষ কোনও সমস্যায় পড়েছে। সেই সমস্যায় কীভাবে বুদ্ধি করে কথা বলে তার প্রেমিকাকে রক্ষা করছে।

এই ছোট ছোট ব্যাপারগুলো প্রায় প্রতিটি মেয়েকে ভীষণভাবে আকর্ষিত করে।

৪। ফ্যাশন সচেতন-

ফ্যাশন সম্পর্কে সবসময় সচেতন থাকতে হবে ছেলেদের। তাই বলে অতিরিক্ত স্টাইল প্রায় অধিকাংশ মেয়েদের অপছন্দের। সবসময় মাথায় রাখবেন আপনার সাজের মধ্যে এমন মাধুর্য থাকবে।

যাতে আপনার প্রেমিকা আপনার সেই লুকের ওপরে পুরো ফিদা থাকেন।

৫। আলতো আদর-

প্রায় অনেক সময়ে মেয়েরা মুখে প্রকাশ না করলেও তার মনের মানুষের থেকে আলতো আদর পেতে অনেকেই পছন্দ করেন। যদি একসঙ্গে মিট করবেন প্ল্যান করে থাকেন তাহলে সেইদিন আপনার সঙ্গীকে আলতো করে স্নেহের ও ভালোবাসার প্রতীক চুম্বন করতে পারেন কপালে।

এতে সম্পর্কের ভীত যেমন মজবুত হয় ও সম্পর্কের গভীরতাও আরও গাড় হয়।  

আরও পড়তে পারেন :

সঙ্গীকে সময় দিতে পারেন না? মেনে চলুন এই ৫টি টিপস

স্বামী-স্ত্রী একে অন্যের কাছ থেকে এই ৭টি প্রত্যাশা না করাই ভালো

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন