নতুন বন্ধু কি শুধুই বন্ধু? না কি আরও বেশি কিছু? তা বুঝতে হলে খেয়াল করুন এই ৫টি আচরণ

0
relation
প্রতীকী

ওয়েবডেস্ক: নতুন বন্ধুর সঙ্গে আলাপ হওয়ার পর সম্পর্ক একটু অন্য দিকে মোড় নিচ্ছে কি না, সেটা বুঝবেন কী ভাবে? না কি আপনি যা চাইছেন অর্থাৎ সম্পর্কটা আরও একটা নতুন নাম দিতে, সেটি অপর জনও চাইছেন কি না? সেটাই বা বুঝবেন কী ভাবে? এই সমস্ত ভেবে ভেবে সারাদিন অস্থির হয়ে উঠছেন? কী ভাবে জানবেন মনের গোপন কথা? সরাসরি জিজ্ঞাসা করবেন নাকি সময় দেবেন? নানান প্রশ্ন মনের কোণে উদয় হচ্ছে কিন্তু সঠিক উত্তর খুঁজে পাচ্ছেন না। তা হলে এই টিপসগুলি কাজে লাগতে পারে। বন্ধুত্ব একটু এগিয়ে নতুন দিকে মোড় নিতে চাইছে কি না, জানতে হলে খেয়াল করুন বন্ধুর মধ্যে এই সব আচরণগুলির প্রকাশ আছে কিনা।

স্ট্যাটাস –

তিনি কি নিজেকে বার বার সিঙ্গল বলে জানান দেন। কথায় কথায় সেটি জাহির করেন? যদি তাই হয় তা হলে বুঝতে হবে তিনি জানাতে চাইছেন যে একা আছেন, অবিবাহিত। চাইলেই তিনি নতুন সম্পর্কে এগোতে পারেন। তাতে তিনিও আগ্রহী।

উৎসাহ –

তিনি যদি আপনার বিষয়ে একটু বেশি বেশি উৎসাহ দেখান, তা হলে বুঝতে হবে তিনি নিজেও একটু বেশি গুরুত্ব পেতে চাইছেন। বন্ধুত্বের থেকে একটু এগিয়ে যেতে চাইছেন। এই উৎসাহ বুঝতে হলে খেয়াল রাখতে হবে কাজের দিন ও ছুটির দিনে তিনি আপনার সঙ্গে ফোন মেসেজ আর সামনাসামনি সাক্ষাৎ করে যোগাযোগ কত বেশি করতে চাইছেন তার দিকে। যত বেশি বেশি ঘন ঘন তিনি যোগাযোগ করবেন সারা দিনে বুঝতে হবে আগ্রহ তাঁর দিক থেকে ততটাই বেশি।

তাকিয়ে থাকা –

অনেক সময়ই লক্ষ্য করলে দেখা যাবে তিনি আপনার দিকেই তাকিয়ে আছেন, কোনো না কোনো কারণে বা অজুহাতে। প্রায়ই চোখাচুখি হচ্ছে। এমনকী অন্য কোনো কাজ করার সময়ও তাকাতে বাদ যাচ্ছে না। এটিও কিন্তু খুব স্পষ্ট একটি ইঙ্গিত, সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যেতে চাওয়ার।

সোশ্যাল মিডিয়া –

আজকাল সোশাল মিডিয়া যে কোনো সম্পর্কের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। তেমনই, যদি তিনিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ফ্রেন্ড লিস্টে থেকে থাকেন তা হলে লক্ষ্য করতে হবে সেখানে তাঁর আচরণ কেমন। যদি আপনার ছবি বা পোস্টে বেশি বেশি কমেন্ট, লাইক ইত্যাদি করেন বা নিজের ছবিতে বার বার আপনাকে ট্যাগ করেন তা হলেও বিষয়টি স্পষ্ট।  

হাতে হাত –

কথায় কথায় হাত ধরার প্রবণতাও এরই আরও একটি স্পষ্ট ইঙ্গিত। এই শরীরী স্পর্শের মধ্যে দিয়েও অনেকেই নিজের মনের ইচ্ছা প্রকাশ করে থাকেন।

জড়িয়ে ধরা –

শুভেচ্ছার প্রকাশ বা বন্ধুত্বের খাতিরে সকলেই সকলকে জড়িয়ে ধরতে পারেন। সেগুলি ক্ষণিকের। কিন্তু তিনি যদি আপনাকে কোনো কারণে জড়িয়ে ধরেন এবং তা যদি খানিক বেশি সময়ের জন্য হয় তা হলে এটি তাঁর অনুভূতির একটি স্পষ্ট বহিঃপ্রকাশ তা বুঝে নিতে হবে।

দেখুন – সন্তান বয়ঃসন্ধিতে? কিছুতেই বাগে আনতে না পারলে অবশ্যই এগুলি করে দেখুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.