সম্পর্কের মধ্যে দৃঢ়তা বাড়াতে চান? মেনে চলুন এই পদ্ধতি

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: আজকাল সাধারণ ভাবে সকলেই খুব ব্যস্ত। সঙ্গের মানুষটির সঙ্গেই কথা বলার সময় দিনের মধ্যে হাতে বাঁধা কয়েক মিনিট। তাই অনেক সম্পর্কই কেমন  যেন ফ্যাকাসে হয়ে যাচ্ছে। তাই সম্পর্কের মধ্যে নতুন করে স্পার্ক আনতে ও দৃঢ়তা বাড়াতে এই কয়েকটি টিপ সুযোগ পেলে মেনে চলতে পারেন।

১। সঙ্গীর প্রতি আগ্রহ প্রকাশ

জীবন এখন খুব আত্মকেন্দ্রিক। এক সঙ্গে থাকলেও নিজেদের কাজের, পেশার চিন্তা করতে করতে করতে সময় কেটে যায়। তাই পাশের মানুষটির দিকে তাকানোর বা তার জীবন সম্পর্কে আগ্রহ প্রকাশ করার বা সময় অসময়ে পাশে থাকা হয়ে ওঠে না। তাই তাকে বুঝে ওঠাও হয়ে ওঠে না। সমস্যা বাড়তে থাকে। দিনের মধ্যে কিছুটা সময় নিয়ম করে তাকে দিন, কথা বলুন, তার প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করুন।

Loading videos...

২। আমি, তুমি ও স্মার্ট ফোন

আজকাল গেম খেলার আকর্ষণ বা সোশ্যাল মিডিয়া চ্যাট বা নিজের কাজের কারণ যে কোনো কারণেই স্মার্টফোন আমাদের জীবনের বহু মূল্যবান সময় কেড়ে নিয়েছে। ফাঁকা সময়ও আমরা স্মার্টফনে মুখ গুঁজে কাটিয়ে দিই। এটিও সম্পর্ক খারাপ হওয়ার একটি অন্যতম কারণ। তাই স্মার্টফোনকে যথাসম্ভব মাঝে ঢুকতে দেবেন না। তা বন্ধ রাখুন। না হলে দূরে রাখুন। এই কাজটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।

৩। কমন ফ্যাক্টর খুঁজে বের করুন  

সকলের সখ আলাদা হয়, স্বভাবও। এক জন চুপচাপ হলে অন্য জন বকবক করতে ভালোবাসেন। কিন্তু তা সত্বেও চেষ্টা করুন কোনো কোনো বিষয়ে দুই জনের মিল খুঁজে বার করতে। তা না হলেও একে অপরকে নিজেদের সখ পূরণে সঙ্গে রাখুন। এতে দাম্পত্যের বন্ধন অটুট হয়। এটা আপনাদের ঘনিষ্ঠতা বাড়াবে। 

৪। সাধারণ কাজগুলি এক সঙ্গে করুন

কাজের জন্য সারা দিন সময় কাটান আলাদা। আলাদা থাকতে বাধ্য হন। তাই বাকি সময়টা এক সঙ্গে থাকার চেষ্টা করুন। সে ক্ষেত্রে এক সঙ্গে খেতে বসতে পারেন। এক সঙ্গে ঘুমোতে যাওয়ার নিয়মটিও বেশ কাজের। এমনটি করতে পারলে ভালো সময় কাটানোর জন্য আলাদা করে সময় বের করতে হয় না। এই বিষয়টি নিজেই সম্পর্ক ভালো করতে সাহায্য করে।

৫। রোমান্সকে তুচ্ছ মনে করবেন না

হতেই পারে দু’ জনেই খুবই বাস্তববাদী। তবুও প্রেম, ভালোবাসার ওপর থেকে ভরসা হারাবেন না। জীবনে এর প্রয়োজনও কম নয়। তাই কারণে অকারণে সঙ্গীকে ‘ভালোবাসি’ বলুন। তাকে চমকে দেওয়ার, আনন্দ দেওয়ার জন্য নিত্য নতুন উপায় বের করুন। নিজেকে রোমান্টিক করে তুলুন। রাতে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা করুন, বাড়িতেই আমেজ করে দু’ জনের খাওয়াদাওয়ার আয়োজন করুন। মাঝে মধ্যে ছোটোখাটো ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করুন, এক আধ দিন বাইরে খান। অথবা রাতে শোওয়ার সময়টাকে আনন্দময় করে তুলুন। দেখবেন পাশের মানুষটিও বাস্তবতার আবরণ ছেড়ে আপনার সঙ্গে তালে তাল মিলিয়ে আনন্দ করছে। এতে সম্পর্ক দৃঢ় হয়।

পড়ুন – বদরাগী মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক সামলাবেন কী করে ? রইল টিপস

আরও – শিশুসন্তানের সঙ্গে বাবা-মা এই ভুল আচরণ প্রায়ই করে থাকেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.