ব্রেকফাস্ট না খেয়ে ওজন কমানোর চেষ্টা ভুলেও করবেন না

ওয়েবডেস্ক: আজকাল ওজন কমানো নিয়ে কম-বেশি সবাই চিন্তিত থাকেন। ওজন কমাতে অনেকে ডায়েট ও ব্যায়াম করেন। কেউ কেউ আবার ওজন কমাতে ডায়েট করার তাগিদে সকালের ব্রেকফাস্ট বাদ দিয়ে দেন। ভাবেন, একবেলা কম খেলে হয়তো ওজনটা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। কিন্তু, উল্টে যে নিজের ক্ষতি নিজেই করছেন সেটা একবারও ভাবছেন না।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এই প্রবণতাতেই লুকিয়ে রয়েছে মারাত্মক বিপদ। ওজন ঝরা, ফিট থাকার বদলে ব্রেকফাস্ট বাদ দেওয়ায় আপনার শরীরে মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে।

১। ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে

যদি রোজ সকালে ব্রেকফাস্ট না করেন, তা হলে ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যাবে। এ ছাড়া শরীরে ইনসুলিনের ভারসাম্য নষ্ট হবে।

২। ওজন বৃদ্ধি

সকালের ব্রেকফাস্ট না খেলে ওজন কমার বদলে উল্টে ওজন বেড়ে যাবে। কারণ খিদের পেটে লাঞ্চে আপনি বেশি খাবার খেয়ে ফেলবেন। যা উল্টে আপনার ওজন বাড়িয়ে দিতে সাহায্য করবে।

৩। হৃদরোগের সম্ভাবনা

হেলদি ব্রেকফাস্ট হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। গবেষকদের মতে, ব্রেকফাস্ট বাদ দিলে হাইপার টেনশন, ওবেসিটি, হাই ব্লাড সুগার, হাই কোলেস্টেরলের প্রবণতা বাড়ে। যা হৃদরোগের সম্ভাবনা বাড়িয়ে তোলে।

আরও পড়ুন: শীতকালে পেটের অতিরিক্ত মেদ কমান এই ৪টি উপায়ে

৪। কমিয়ে দেয় এনার্জি লেভেল

সারাদিন খিটমিটে মেজাজ ও ক্লান্তবোধ করছেন? যদি সকালের ব্রেকফাস্ট না করে থাকেন তা হলে শরীরের এই অবস্থা নিয়ে একদমই ভাববেন না। কারণ ব্রেকফাস্ট না করার কারণেই আপনার শরীরের এই অবস্থা! ব্রেকফাস্ট না করার অভ্যাস যাঁদের রয়েছে তাঁরা প্রতিনিয়তই কাজের ক্ষেত্রে অবসাদ অনুভব করেন, খুব অল্পতেই ক্লান্ত হয়ে পড়ে এবং কাজেও মনোযোগ ধরে রাখতে কষ্ট হয় তাঁদের। এই অভ্যাস দিনের পর দিন চলতে থাকলে মস্তিষ্ক ক্লান্ত হয়ে যায় এবং এর কর্মশক্তি কমে যেতে থাকে।

৫। চুল পড়ার সমস্যা বাড়ায়

কেরাটিন নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। আর সকালের খাবার এড়িয়ে যাওয়ার অভ্যাস থাকলে তা হলে একদমই অবাক হবেন না! কারণ এর কারণেই আপনার নতুন চুল গজানোতে বাধা সৃষ্টি হয়। সকালের ব্রেকফাস্ট আপনার চুলের জন্য উপকারী কারণ এটি চুলের ফলিকলে এনে দেয় পরিপূর্ণ পুষ্টি ও শক্তি। যার ফলে চুলের গোড়া হয় মজবুত ও শক্ত। তা হলে নিয়ম করে সকালের ব্রেকফাস্ট খেলে চুলের ফলিকল ভালো থাকবে এবং নতুন চুল গজানোর সঙ্গে সঙ্গে চুল পড়াও কমে যাবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here