bike

অটোডেস্ক: চাহিদার শেষ নেই। অন্ত নেই ইচ্ছে পূরণেরও। ক্রেতার এমন ভাবাবেগকে পুঁজি করেই নিত্যনতুন মডেলের মোটর বাইক নিয়ে আসে নির্মাতা সংস্থাগুলি। তবে নতুন মডেল বাজারে নিয়ে আসার আগে চলে হরেক রকমের পরীক্ষা এবং সমীক্ষা। এই দু’টি পর্যায় উতরে গেলেই নতুন মডেল বাজারে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলে সংস্থা। তবে এর একটি বড়োসড়ো অঙ্গ কোনো আন্তর্জাতিক স্তরের প্রদর্শনী। মূলত বেশি দামের বাইকের ক্ষেত্রে প্রদর্শনীতে অংশ নেওয়া অনিবার্য।

তা যাই হোক এখন এক ঝলকে দেখে নেওয়া যায় চলতি মাসে কোন সংস্থা নতুন কোন মডেলের বাইক নিয়ে আসছে ক্রেতার সাধপূরণে।

দুকাটি মনস্টার ৮২১

ducati

একেবারে আনকোরা নয়। গত বছর বিএস ফোর নীতি না মানার জন্য উৎপাদন বন্ধ করে দিতে হয়েছিল এই বাইকের। সেই সব ফাঁকফোকর মিটিয়ে নিয়ে ফের আবির্ভাব হতে চলেছে এই স্ট্রিট ফাইটার। ৮২১ সিসির এই বাইকে থাকছে তিন-স্তরীয় এবিএস এবং আট-স্তরীয় ট্রাকশন কন্ট্রোল। এক্স-শোরুম দাম ১০ লক্ষ টাকা।

ইন্ডিয়ান রোড মাস্টার এলিট

road master

আমেরিকার ইন্ডিয়ান মোটর সাইকেল নিয়ে আসতে চলেছে নতুন এই মডেল। ১৮১১ সিসির এই বাইক নিয়ে সাধারণ বাইকপ্রেমীদের মনে উৎসাহ থাকলেও দামের বহরে নিজের করে নেওয়ার আগ্রহ ততটা দেখা যায় না। আপাতত জানা গিয়েছে ৩ মে আত্মপ্রকাশ করা এই বাইকের দাম ৫০ লক্ষ টাকার কাছাকাছি।

হিরো এক্সট্রিম ২০০ আর

hero

নামেই স্পষ্ট হিরোর নতুন সংস্করণটি ২০০ সিসির বাইক। সিঙ্গল সিলিন্ডার ইঞ্জিনের এই বাইক দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার করা জন্য নির্মিত। মাইলেজ খুব একটা মন্দ নয়। দামেও যথে্ষ্ট নজরকাড়া। এখনও পর্যন্ত জানা গিয়েছে, সর্বোচ্চ ১১২ কিমি প্রতি ঘণ্টায় দৌড়তে সক্ষম এই বাইকের দাম হতে পারে ৮৫ হাজার টাকা।

সুজুকি বুর্গম্যান স্ট্রিট ১২৫

suzuki

বাইক নয়, স্কুটার। তবে ১২৫ সিসির। ২০১৮-র অটো এক্সপোয় এই স্কুটার নজর কেড়েছে দর্শনার্থীদের। স্বাভাবিক ভাবেই বাজারে নিয়ে আসতে খুব একটা বেশি সময় নেয়নি সংস্থা। সামনের চাকায় পাওয়া যাবে ডিস্ক ব্রেকের সুবিধা। দাম পড়তে পারে মাত্র ৬৫ হাজারের কাছাকাছি।

সুজুকি গিক্সার এবিএস

gixxer

২০১৬ থেকে নানান পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। এ মাসেই সেই খাটনির ফসল বাজারে নিয়ে আসছে সুজুকি। ১৫৫ সিসির এই বাইকের বিশেষত্ব এয়ার-কুলিং ইঞ্জিন। নতুন এই পদ্ধতি পরখ করে দেখা যেতেই পারে। দাম ৯৫,৫০০ টাকার মধ্যেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here