bike

অটোডেস্ক: নিজের ওজনের তুলনায় অনেক বেশি ওজনের বস্তুকে টেনে তোলার ক্ষমতা ধরে মানুষ। কিন্তু এর জন্য দরকার হয় নির্দিষ্ট কয়েকটি পদ্ধতি। সেই পদ্ধতি অনুসরণ না করে বেমালুম ভারী বস্তু তুলতে গিয়ে চোট খেতে অনেক সময়েই। আচমকা হেঁচকা টানে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে পেশি বা আঘাত লাগতে পারে হাড়েও। তবে বাইকের ক্ষেত্রে ঘটতে পারে পথ দুর্ঘটনা।

ভারী বস্তু তোলার পদ্ধতি

বাইক আরোহী মাত্রই জানতে হয় নিজের থেকে বেশি ওজনের মোটরযানটিকে কী ভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হয়। বাইক চালানো শেখার প্রথম ধাপে সব নিয়ে হুড়মুড়িয়ে পড়ার নমুনা থাকলেও বাইকের গতি এবং ওজন সম্পর্কে ধারণা তৈরি হয়ে যাওয়ার পর সে সমস্যা দূরে যায়। কিন্তু তবুও মাঝে মধ্যে কোনো কারণে নিয়ন্ত্রণ শক্তির এদিক-ওদিক হলে বাইকের ভার সহ্য করতে না পারার ঘটনাও ঘটে যেতে দেখা যায়। তখন যে দুর্ঘটনা নিশ্চিত, তা বলাই বাহুল্য। তবে আলোচনার বাইরে থাকছে, বেপরোয়া ভাবে বাইক চালানোর প্রবৃত্তি।

আসনের উচ্চতা

বাইকের সিট বা বসার জন্য যে আসনটি রয়েছে তার উচ্চতা যত কম হবে ততই সুবিধা হবে বাইকটিকে নিয়ন্ত্রণ করা। সেটা ৪০০ কেজির ইন্ট্রুডার হলেও কিছু যায়-আসে না। যে বাইকে বসার পর দুই পায়ের গোড়ালি মাটি স্পর্ষ করছে, তাতে নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা বেশি প্রয়োগ করা যায়। যে কারণে আধুনিক স্পোর্টস বাইকের আসন যতটা সম্ভব নীচু করার দিকে নজর দেয় নির্মাতা সংস্থাগুলি।

মোড়ের বাঁক

সোজা রাস্তায় তীব্র গতিতে বাইক চালিয়ে গেলেও নিয়ন্ত্রণের সমস্যা ততটা হয় না, যতটা হয় বাঁক নিতে গিয়ে। স্বাভাবিক ভাবেই রাস্তার বাঁক কতটা রয়েছে সে দিকে খে‌য়াল করতে হবে চালকের আসনে বসে। হতে পারে নতুন রাস্তা। কিন্তু বাঁকের বহর আন্দাজ করে বাইকের গতি কমানোর মধ্যে দিয়েই চলযানটিকে নিয়ন্ত্রণে রাখা অনেক সুবিধাজনক।

পিছনের ব্রেক

সামনের ব্রেক মারা মানেই বাইকের গতি চকিতে স্তব্দ হয়ে যাওয়া। ফলে আচমকা গতিময়তা থেকে পুরোপুরি গতিরুদ্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে ভরবেগের পরিবর্তনের ঝটকা সামাল দেওয়া মুশকিল হয়ে পড়ে। কিন্তু পিছনের ব্রেক ব্যবহার করলে সে সবের ঝক্কি কমবে। কারণ পিছনের ব্রেক কাজ করে অপেক্ষাকৃত নিম্ন ক্ষমতায়। তবে এক বার নয়, একাধিক বার পিছনের ব্রেকের ব্যবহার করাই শ্রেয়।

ট্রেনিং স্কুল

এটা নিয়ে তো নতুন করে কিছু বলার নেই। লাইসেন্স আপনি যে ভাবেই জোগাড় করুন না কেন, বাইকের সঠিক ব্যবহার হাতে-কলমে শিখতে ট্রেনিং স্কুলের সাহায্য নেওয়া যেতে পারে। তবে বাইক চালানো শিখতে স্কুলে যেতে হবে, এমন ইচ্ছে কত জনের মন সায় দেবে, তা খোদায় মালুম।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here