ওয়েবডেস্ক: হিরো মোটোকর্প তাদের নিজেদের তৈরি বাইকের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলল। এত দিন পছন্দের বাইকটি কিনব কিনব করেও যাঁদের কেনা হয়ে ওঠেনি তাঁদের কাছে এটা রীতি মতো দু‌শ্চিন্তার কারণ হয়ে উঠেছে। তবে সংস্থার তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ক্রেতার পকেটের কথাও তাদের মাথায় রয়েছে। অর্থাৎ দাম বাড়ালেও তা থাকবে নাগালের মধ্যেই। হয়তো সর্বোচ্চ দাম বাড়তে পারে চারশো টাকা। এবং অবশ্য মডেল অনুযায়ী নির্ভর করছে মূল্যবৃদ্ধির পরিমাণ।

কিছু দিন আগেই হিরো জানিয়েছিল, ২০১৮-তে তারা তিনটি নতুন মডেল বাজারে নিয়ে আসছে। সুপার প্সেনডার, প্যাশন প্রো এবং প্যাশন এক্সপ্রো। তিনটি মডেলই পুরনোর নতুন সংস্করণ। মূলত ১০০ এবং ১২৫ সিসির ওই পুরনো সংস্করণগুলির দাম ছিল ৫১-৬০ হাজার টাকার মধ্যে। কিন্তু বাজারের চাহিদা যাচাইয়ের সমীক্ষা থেকে উঠে আসা তথ্য থেকে সংস্থা যথেষ্ট উৎসাহিত বোধ করে। তারা জানতে পারে এই তিনটি মডেল নিয়ে নবীন প্রজন্মের বাইক-প্রেমীদের আগ্রহের অন্ত নেই। সম্ভবত ওই তিনটি বাইকের দামেও বৃদ্ধি কাঁটা বসবে।

Hero Passion XPro
নতুন প্যাশন এক্সপ্রো

২০১৭-এর শেষ মাসে এসে ভারতের প্রায় সমস্ত বাইক নির্মাতা সংস্থাগুলি আগামী বছরে তাদের নতুন মডেলের বাইকের ঘোষণা করেই চলেছে। থমকে নেই বিদেশি সংস্থাগুলিও। তারা এ দেশের ক্রেতাদের সাধ্য মতো সম্ভার হাজির করতে চলেছে। তারই মধ্যে হিরোর এই মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত কি বাইক-বাজারে নতুন কোনো সংকেত দিচ্ছে?

আপাতত এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই টানাপোড়েন চলছে ক্রেতা মহলে। কারণ হিরো দাম বাড়ানোর পর বাকি সংস্থাগুলি তো আর হাত গুটিয়ে বসে থাকবে না! তবে মনে রাখবেন, পুরনো দামে বাইক কেনার জন্য হাতে কিন্তু এখনও চার দিন সময় রয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here