Apache RR 310

অটোডেস্ক: কথা ছিল বিএমডব্লুউ-র থেকে জোরে ছুটবে টিভিএসের এই নতুন বাইক। কারণ বিএমডব্লুউ জি ৩১০-এর মতোই এক সিলিন্ডারের ইঞ্জিন পাচ্ছে টিভিএসের অ্যাপাচে আরআর ৩১০। কিন্তু কোথায় কী?

প্রথমবার সওয়ারি হওয়ার পর শুধু হতাশা ভরা কথা শোনা যাচ্ছে। বেশির ভাগেরই বক্তব্য, প্রতিশ্রুতি পুরোপুরি রক্ষা করা হয়নি। সংস্থা জানিয়েছিল, এই বাইকের সর্বোচ্চ গতি হবে ১৬০ কিমি প্রতি ঘণ্টা। কিন্তু অনেক কষ্টে কায়দা করে এস্কেলেটার দাবিয়ে ১৫০-এ পৌঁছনো গেলেও ১৬০ কিন্তু শুধু কথার কথাই মনে হচ্ছে তাঁদের কাছে।

বাইকটির আনুষ্ঠানিক আত্মপ্রকাশ ঘটেছিল গত বছরের ডিসেম্বরে। তখন জানানো হয়েছিল, বিএমডব্লিউ জি৩১০আর-এর বুনন রয়েছে অ্যাপাচের এই নতুন সিরিজে। যা তৈরি হচ্ছে টিভিএসের হসুর প্রকল্পে। এটিকে যৌথ উদ্যোগে প্রস্তুত করছে বিএমডব্লিউ মোটরার্ড এবং টিভিএস।

কিন্তু দাম অনুযায়ী যে বাইক-প্রেমীদের মোটেই সন্তুষ্ট করতে পারছে না অ্যাপাচে আরআর ৩১০, সে কথা কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে। একটা দু’লক্ষ টাকা (ভারতে) দামের বাইকের বাইরের আবরণ যেমন হওয়ার কথা, তা হয়তো রয়েছে। কিন্তু অন্দরের মানে ইঞ্জিনের জোর সম্ভবত ততটা নেই। যে কারণে ক্রেতার প্রত্যাশা সঠিক ভাবে পূরণ না করতে পারার অভিযোগ উঠছে।

তবে অবশিষ্ট অনুষঙ্গ নিয়ে তেমন কোনো বিরূপ মন্তব্য ভেসে আসছে না। অ্যাপাচে আরআর ৩১০-এর সওয়ারি স্বাচ্ছন্দ্য যথেষ্ট ভালো। পেইন্টিংও অনবদ্য। পাশাপাশি স্পিড, অডোমিটার, ট্রিপ মিটার, গিয়ার শিফট ইন্ডিকেটরের উপস্থিতিও আকর্ষণীয় করে তুলেছে এই বাইকটিকে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন