টিকিট না পেয়ে বিজেপি ছাড়লেন ছয় নেতা, কর্নাটকে ফল খারাপ হলে আসতে পারে ‘সুনামি’!

0
3032
bhp-flag

বিশেষ প্রতিনিধি: কর্নাটক বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসকে মোকাবিলা করতে হিমশিম খাওয়া বিজেপির এখন বাড়তি চাপ দলীয় নেতৃত্বের গোসা। গত মঙ্গলবারই দল ছেড়েছেন বিজেপির জেলা সভাপতি কিশোর কুমার-সহ সতীশ হেগড়ে, ভিত্তাল পূজারি, শ্রীনিবাস মার্কেলা, চন্দ্রমোহন পূজারি এবং রবীন্দ্র ডোড্ডামানে নামের ছ’জন প্রভাবশালী নেতা। তাঁরা ওই দিন রাতে দলীয় নেতৃত্বের হাতে পদত্যাগপত্র জমা করেন সংশ্লিষ্ট বিধানসভা আসনে দল মনোনীত প্রার্থী পছন্দ না হওয়ায়।

তবে এ সবের বাইরে যে কথাটি খুব বেশি করে ঘুরপাক খাচ্ছে তা হল, এই নির্বাচনে যদি বিজেপি আশাপ্রদ ফল না করতে পারে তাহলে জাতীয় রাজনীতিতে আমূল পরিবর্তন ঘটে যেতে পারে। এবং তা অবশ্যই আগামী লোকসভা ভোটের দিকে তাকিয়েই। যদিও রাজনীতিতে ভবিষ্যদ্বাণী খাটে না। তবুও মাত্র এক মাস ছয়েকের মধ্যে ঘটে যাওয়া বেশ কয়েকটি ঘটনা সে দিকেই ইঙ্গিত করছে বলে ওয়াকিবহাল মহলের মতে।

এই সময়কালের মধ্যে গুজরাতের বিধানসভা নির্বাচন, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, বিহারের উপনির্বাচনের ফলাফলে বিজেপির একাংশে সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে। এদের মধ্যে বেশিরভাগই ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে-পরে ভারতীয় জনতা পার্টি বিশেষ করে নরেন্দ্র মোদীর অভিনব আহ্বানে সাড়া দিয়েই বিজেপির ছাতার নীচে সঙ্ঘবদ্ধ হয়েছিলেন।

শুধু ব্যক্তিগত ভাবে কোনো নেতা নয়, এনডিএ জোটের শরিক দলগুলিও এখন থেকেই মেপে পা ফেলতে শুরু করেছে। এর মধ্যে শিবসেনা, টিডিপি তো বিজেপির সঙ্গে না থাকার কথা প্রকাশ্যেই ঘোষণা করেছে। অন্য দিকে অকালি, টিএসআর, ওয়াইএসআর বা জেড (ইউ)-র সঙ্গে যে ঠোকাঠুকি লেগে রয়েছে, তা বড়োসড়ো ফাটলের সৃষ্টি করতে খুব একটা বেশি সময় নেবে না।

এর উপর রয়েছে জাতিগত রাজনীতির চরম পরিণাম। দলিতদের নিয়ে যে ধরনের সমস্যার মুখে কেন্দ্র পড়েছে, সেখান থেকে সহজে বের হওয়ার পথ বাতলাতে ব্যস্ত আরএসএস। সম্প্রতি দলিতদের ডাকা ভারত বন্‌ধে সক্রিয় ভাবে অংশ নেওয়া ছয় দলীয় সাংসদের সঙ্গে একান্তে কথা বলেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। কিন্তু তাঁরা প্রত্যেকেই প্রকাশ্যে বলেছেন, ‘যাঁদের ভোটে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছি, তাঁদের সুবিধা-অসুবিধা তো দেখতেই হবে।’ অর্থাৎ তাঁদের ওই মন্তব্যের মধ্যেও লুকিয়ে রয়েছে, আগামী চিন্তাভাবনার চরম লক্ষণ।

সব মিলিয়ে কর্নাটকের ভোটের ফলাফলের উপর নির্ভর করছে বিজেপির সেই সব নেতার গতিবিধি, যাঁরা দলীয় নীতি-আদর্শের কথা শিকেয় তুলে শুধুমাত্র কংগ্রেস বিরোধিতা এবং মোদীর মন্ত্রে সম্মোহিত হয়ে ২০১৪-র আগে-পরে বিজেপির নৌকায় উঠেছিলেন।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here