ওয়েবডেস্ক: কে পৃথিকা অশ্বিনী, দেশের রূপান্তরকামী পুলিশ অফিসার। তামিলনাড়ুর সালেমের বাসিন্দা পৃথিকা পেটের টানে জীবন-জীবিকার লড়াইটা শুরু করে ছিলেন অটো ড্রাইভার হিসাবে। তখন তাঁর নাম ছিল প্রদীপ কুমার।
২০১১ সালে বাড়ি ছাড়েন পৃথিকা। তারপর পেট চালানোর জন্য নানা ধরনের কাজ করতেন তিনি। একটা সময় তিনি একটি মহিলা হোস্টেলে ওয়ার্ডনেরও কাজ করেন। ছোট থেকেই মনের মধ্যে পুষে রেখেছিলেন পুলিশ হওয়ার ইচ্ছেটা। সেই মতো পুলিশ চাকরিতে আবেদনও করেন।

আরও পড়ুন: ‘ট্রান্সভিশন’, ভারতের প্রথম রূপান্তরকামীদের ইউটিউব চ্যানেল

কিন্তু তৃতীয় লিঙ্গের শারীরিক সক্ষমতার পরীক্ষা এবং ইন্টারভিউয়ের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কোন গাইডলাইন না থাকায় তাঁর আবেদন বাতিল হয়ে যায়। ২০১৫ সালে মাদ্রাজ হাইকোর্টের হস্তক্ষেপে তাঁর আবেদন বৈধ হয়।পুলিশে চাকরির জন্য পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেন তিনি। ২০১৬ সালের মার্চে তাঁকে ট্রেনিং-এর জন্য পাঠানো হয় ধর্মাপুরিতে। গত সোমবার চুলাইমেদু পুলিশ স্টেশনে সাব-ইন্সপেক্টর হিসাবে যোগ দিয়েছেন ২৩ বছরের কে পৃথিকা অশ্বিনী।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here