বংবিউটি বিপাশা বসু ঝটিতি সফরে কলকাতা ঘুরে গেলেন। উদ্দেশ্য, ‘সেফোরা’ প্রসাধনী ব্র্যান্ডের দোকান উদ্বোধন। সেই সুযোগে তাঁর সঙ্গে আড্ডা জমালেন রাকা রায়

প্রশ্ন: কলকাতায় বিয়ের পর করণকে সঙ্গে নিয়ে কবে আসবেন?

উত্তর: আমরা এসেছিলাম তো। তবে মিডিয়া জানতে পারেনি।চুপি চুপি এসেছিলাম(হাসি)।

প্রশ্ন: কলকাতাকে মিস করেন? কতটা বদলেছে কলকাতা?

উত্তর: আমার বাবা-মা সবাই মুম্বই থাকে তাই বাড়ির ফিলটা মিস করিনা। তবে কলকাতা অনেক বদলেছে।এয়ারপোর্ট থেকে আসার সময় দেখলাম কি সুন্দর সাজানো রাস্তার ধারে আলো দিয়ে।নতুন নতুন ব্রিজ হচ্ছে।কলকাতা প্রতিনিয়ত পাল্টাচ্ছে। আমি যখন কলকাতা ছিলাম তখন এত প্রসাধনীর দোকান ছিল না। এখন তো বিশ্বের সব নামকরা ব্র্যান্ড কলকাতার মলে পাওয়া যায়। কলকাতার মেয়েদের কাছে এখন অনেক অপশন।

প্রশ্ন: বর করণকে কী রান্না করে খাইয়েছেন?

উত্তর: আমি থাই খাবার ভালোই রান্না করতে পারি। তবে করণ মাছ খেতে বেশি ভালো বাসে। থাই খাবার পছন্দ করেনা।

প্রশ্ন: আপনারা জুটি করে একটি কন্ডোমের বিজ্ঞাপন করেছিলেন কিন্তু সেটা নিয়ে সমস্যা হয়?

উত্তর: দেখ আমরা তো ভালোভাবেই কাজটা করি। অনেকেই প্রশংসা করেছে, তবে বিতর্ককে আমি আমল দিই না কোনোদিন।

প্রশ্ন: সোশাল মিডিয়াতে দেখা গেলেও সিনেমায় কম দেখা যাচ্ছে বেশি।

উত্তর: চিন্তার ব্যাপার নেই এই বছরেই খবর পাওয়া যাবে আমার নতুন ছবির।

প্রশ্ন: বাংলা ছবি?

উত্তর: আমি আগেই বলেছি আমি বাংলায় ভালো স্ক্রিপ্ট পেলে অবশ্যই কাজ করবো। এখন তো অনেক নতুন পরিচালক কাজ করছে। আমি ভালো অফার পেলে নিশ্চয়ই করব।

প্রশ্ন: প্রসাধনী নিয়ে কিছু বলুন। কেমন সাজ হবে কলেজ গোয়ারদের।

উত্তর: কম বয়সিদের উচিত মিনিমাম মেকআপ ব্যবহার করা। তবে পার্টিতে অবশ্যই লাউড সাজতে হবে। আচ্ছা কলকাতায় এত ঠান্ডা কেন। আমিতো এয়ারপোর্ট থেকে আসতে গিয়ে কেঁপে গেলাম। জ্যাকেট না নিয়ে সমস্যা হচ্ছিলো। বাই দ্য ওয়ে হ্যাপি নিউ ইয়ার(হাসি)।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here