বিয়ন্ড দ্য ড্রিম গার্ল। নিজের আত্মজীবনী প্রকাশ অনুষ্ঠানে কলকাতা এসে জীবনের নানা অজানা কথা বললেন স্বপ্নের রাজকুমারী হেমা মালিনী। শুনলেন রাকা রায়।

প্রশ্ন: অনেকভাবে দর্শক আপনাকে চেনে। আপনি কোন কাজটাকে সবথেকে বেশি চ্যালেঞ্জিং মনে করেন, অভিনেত্রী, নৃত্য শিল্পী পরিচালক নাকি রাজনীতিক?

উত্তর: অবশ্যই রাজনীতিক হিসেবে কাজ খুব কঠিন। নাচ, গান, অভিনয় তো জানলে সহজেই করে ফেলা যায়। কিন্তু রাজনৈতিক কাজ করতে হলে অনেক বেশি সাবধান হতে হয়।

প্রশ্ন: এর আগেও রামকমল মুখার্জি আপনার জীবনী লিখেছেন। তাহলে এই বইতে নতুন কী আছে?

উত্তর: আমার রাজনৈতিক জীবনের পুরোটা আছে। এমন অনেক কথা যা আগে বলা হয়নি। ব্যক্তিগত জীবনে দেওল পরিবারের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক নিয়ে নানা  রকম গল্প সবাই বলে, তাই সত্যটা জানালাম।

প্রশ্ন: তাহলে বলেই ফেলুন, সানির সঙ্গে আপনার কথা আছে?

উত্তর: (হেসে) শুধুমাত্র একটা কথা বলি আমার যখনই সমস্যা বা টাফ টাইম আসে সবার আগে সানিকেই পাই। লাস্ট টাইম আমার গাড়ি অ্যাকসিডেন্টের সময় সব থেকে ভালো ডাক্তার-এর ব্যবস্থা করেছিল। আর কিছু কি বলতে হবে? ধরমজির সঙ্গে সব সময়ই থাকে আমার সমস্যায়।

প্রশ্ন: বাংলা গান আর গাইলেন না কেন?

উত্তর: আপনি জানেন না আমার একটা ভজন বেরিয়েছে। ওঃ বাংলা গান বলছেন? সেতো কিশোরদা ছিল তাই গেয়েছিলাম। কিশোরদা আজ নেই। তাই আমাকে গাওয়ানোরও কেউ নেই।

প্রশ্ন: আপনার কি মনে হয় এখনকার যুগে সীতা হওয়া উচিত কি গীতার মতো মেয়েদের?

উত্তর: (একটু ভেবে) বাইরে অবশ্যই গীতা হওয়া উচিত কিন্তু বাড়িতে সীতা হতে হবে।

প্রশ্ন: ধরমজির কাছেপিঠে তাহলে সীতা?

উত্তর: অবশ্যই, আফটার অল ইন্ডিয়ান ওয়াইফ আমি।

প্রশ্ন: জীবনের নানা ওঠাপড়া দেখেছেন। প্রথম ছবিতেই বাতিল হয়েছিলেন। নতুন প্রজন্মকে কী বলবেন?

উত্তর: কিছুতেই ভেঙে পড়তে নেই। কিছু হলনা মানেই জীবন শেষ হয়ে যাইনি। অনেক কিছু করার আছে, লেগে থাকো সাফল্য পাবেই।

প্রশ্ন: স্বপ্ন সুন্দরী আপনি। আজও এতো সুন্দর কী ভাবে?

উত্তর: আমি সিক্সটি নাইন। তবে এটা ভাবতেই নেই। নিজেকে ভালোবাসি। বলি জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত কাজকর্ম করতে করতে চলে যাবো। মন ভালো থাকলে এমনই সুন্দর লাগবে (হাসি)।

প্রশ্ন: ইন্ডাষ্ট্রিতে ৫০ বছর হয়ে গেলো। পিছন ফিরে তাকালে কী দেখেন?

উত্তর: আমি তো খেয়ালই করিনি। রামকমল আমায় বলল ৫০ বছর হয়ে গেছে। মনে হচ্ছে এই তো সেদিনের কথা। কত মানুষ আমার সাফল্যের সঙ্গে জড়িয়ে। আমি কৃতজ্ঞ সেই সব পরিচালক, প্রযোজক, সহ অভিনেতা সকলের কাছে, যাদের জন্য আজ আমি ড্রিম গার্ল হতে পেরেছি ।

প্রশ্ন: পরিচালক হিসেবে দর্শক আপনাকে আবার কবে পাবে?

উত্তর: নাহ আর পাবে না। খুব ঝামেলার কাজ। আমি এতো সময় দিতেও পারবো না। এবার বাড়িতে বেশি সময় দিতে চাই। নাতি নাতনি ওদের সঙ্গে থাকতে চাই। নাচটা করে যাবো। কারণ ওতে বেশি সময় লাগে না। শো শেষ হলেই বাড়ি আসতে পারবো। পরিচালনা করা আর সম্ভব নয়। আর নয়। সবাই সব জানে আমার। আমার জীবন তো খুলি কিতাব। বাকিটা বইতে পড়ে নিন(হাসি)। নমস্কার।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here