পুলিশকর্তার স্ত্রী ও ব্যবসায়ী খুন বাংলাদেশে

0

খবর অনলাইন: আবার হত্যার ভ্রূকুটি বাংলাদেশে। খুন হলেন পুলিশ সুপারের স্ত্রী ও খ্রিস্টান ব্যবসায়ী।

চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম রবিবার সকালে চট্টগ্রাম শহরের জিআইসি মোড়ে তিন মোটরবাইক আরোহীর হাতে খুন হন। পাঁচলাইশ থানার ওসি মহিউদ্দিন মাহমুদ জানান, ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দেওয়ার জন্য মাহমুদা বাড়ির কাছাকাছি জিআইসি মোড়ে এসেছিলেন। সেই সময় মোটরবাইকে আসা তিন দুষ্কৃতী তাঁকে প্রথমে ছুরি মেরে ও পরে গুলি করে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় মাহমুদার। মোটরবাইকটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার বা আটক করেনি পুলিশ।

মাহমুদার স্বামী বাবুলের সম্প্রতি পদোন্নতি ঘটে। গত সপ্তাহেই তিনি পুলিশ সুপার হয়েছেন, যোগ দিয়েছেন ঢাকার পুলিশ সদর দফতরে। এর আগে তিনি চট্টগ্রামে নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শিলেন। জঙ্গি দমনে বরাবরই সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন তিনি। নিজের জীবন নিয়ে না ভাবলেও পরিবারের জন্য সর্বদাই শঙ্কিত থাকতেন বাবুল। নিজের এই উদ্বেগের কথা লুকোতেনও না তিনি।

গোয়েন্দা পুলিশের ডেপুটি কমিশনার মোক্তার আহমেদ বলেন, “জঙ্গি দমনে অনেক কাজ করেছেন বাবুল। প্রাথমিক ভাবে তাই মনে করা হচ্ছে জঙ্গিরাই এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। তবে তদন্তে সব দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে।” বাবুল আক্তারের স্ত্রীর হত্যার ঘটনায় জঙ্গি-যোগ থাকতে পারে বলে মনে করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালও।

চট্টগ্রামের পর নাটোর। খুন হলেন ৬০ বছর বয়সি খ্রিস্টান ব্যবসায়ী সুনীল গোমেজ। নাটোরের মিশনপল্লির খ্রিস্টানপাড়ার বাসিন্দা সুনীল একটি মুদি দোকানের মালিক ছিলেন। এ দিন দুপুরে সেই দোকানের মধ্যে তাঁর দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাঁর গলায় এবং ঘাড়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর দাগ রয়েছে। আইএস জঙ্গি সংগঠনের সংস্থা ‘আমাক’-কে উদ্ধৃত করে একটি মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা জানিয়েছে, এই হত্যার দায় স্বীকার করেছে আইএস।

দেখুন আততীয় হামলার সিসিটিভি ফুটেজ।

সৌজন্যে বিডি নিউজ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন