নিজস্ব সংবাদদাতা, গুয়াহাটি: বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হল নাগাল্যান্ডের স্থাপনাদিবস উপলক্ষে আয়োজিত ঐতিহ্যমণ্ডিত হর্নবিল উত্‍সব। অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল, নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী টি আর জেলিয়াং-সহ রাজ্যের অন্যান্য মন্ত্রী-আধিকারিক ও অসংখ্য জনতাকে নিয়ে  কিসামা গ্রামে দশ দিনের এই উত্‍সবের সূচনা করলেন রাজ্যপাল পদ্মনাভ বালাকৃষ্ণ আচার্য।

প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ পেয়ে বুধবার সন্ধ্যায়ই সপার্ষদ এসে পৌঁছোন অসমের মুখ্যমন্ত্রী সনোয়াল। তাঁকে নাগাল্যান্ডের পারস্পরিক পোশাক পরিয়ে স্বাগত জানান নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী জেলিয়াং। অসমের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এসেছেন তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্যরা যথাক্রমে কেশব মহন্ত, অতুল বরা, অসমের সাংসদ কামাখ্যাপ্রসাদ তাসা, বিধায়কবর্গ যেমন মৃণাল শইকিয়া, তপন গগৈ, ভবেশ কলিতা, বিমল বরা, বিনন্দ শইকিয়া, ঋতুপর্ণ বরুয়া, বিনোদ হাজরিকা প্রমুখ।

এ দিনের বর্ণময় অনুষ্ঠানে পরম্পরাগত নাচ-গান-খানা-পিনার আয়োজন চোখে দেখার মতো। সকাল ও দুপুরের অনুষ্ঠানে অসমের শিল্পীরা পরিবেশন করেছেন বিহু নৃত্য ইত্যাদি। মেলাপ্রাঙ্গণে আয়োজিত সভামঞ্চে ভাষণ দিয়েছেন অনেকে। টানা দশ দিনের হর্নবিল উৎসবে নানা ধরনের খেলাধুলো, নৃত্য-গীত, পরম্পরাগত খাদ্যসম্ভার, বস্ত্র, পোশাক-পরিচ্ছদের পাশাপাশি নাগাদের জীবনশৈলীর নানা প্রদর্শন হবে। মেলায় অংশ নিতে দেশ-বিদেশ থেকে অসংখ্য পর্যটকের দল ভিড় করেছে।

উল্লেখ্য, তদানীন্তন রাষ্ট্রপতি ড. রাজেন্দ্র প্রসাদের হাতে ১৯৬৩ সালের ১ ডিসেম্বর নাগাল্যান্ডের জন্ম হয়েছিল। এর পর ২০০০ সাল থেকে এই দিনটি রাজ্যের স্থাপনাদিবস হিসেবে এই কিসামা গ্রামে পালন করছে রাজ্য সরকার। মেলাটি ইতিমধ্যে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটে গুরুত্ব পেয়েছে। ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই হর্নবিল উত্‍সবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here