মুম্বই: স্বল্প রোগভোগের পর বিশিষ্ট উচ্চাঙ্গ সংগীতশিল্পী ‘পদ্মবিভূষণ’ কিশোরী আমনকর সোমবার রাতে মধ্য মুম্বইয়ে তাঁর বাসভবনে প্রয়াত হলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪। এই খবর  তাঁর পরিবারের সূত্রে পাওয়া।

কিশোরী আমনকরের জন্ম ১৯৩২ সালের ১০ এপ্রিল। হিন্দুস্থানী সংগীতে প্রথম সারির শিল্পী ছিলেন কিশোরী। তিনি ছিলেন জয়পুর ঘরানার। কিশোরীর মা মগুবাই কুর্দিকর-ও ছিলেন সংগীতজ্ঞ। মগুবাই জয়পুর ঘরানার পথিকৃৎ আলাদিয়া খান সাহেবের কাছে শিক্ষালাভ করেন।

কিশোরীর সংগীত শিক্ষা শুরু তাঁর মায়ের কাছেই। জয়পুর ঘরানার কৌশল, খুঁটিনাটি সব আয়ত্ত করেন মায়ের কাছ থেকেই। কিন্তু মায়ের কাছে গান শিখতে শিখতেই তিনি নিজস্ব স্টাইলও তৈরি করেন। তাই তাঁর গানের মধ্যে অন্যান্য ঘরানারও প্রভাব লক্ষ করা যেত। যার ফলে জয়পুর ঘরানারই একটা নিজস্ব স্বতন্ত্রতা তৈরি করেছিলেন কিশোরী। হিন্দুস্থানী সংগীতের  বিভিন্ন ঐতিহ্যগত রাগের ভিত্তিতে তৈরি খেয়াল গানে বেশি পারদর্শী ছিলেন তিনি। তবে ঠুমরি, ভজন ও ভক্তিমূলক সংগীতও পরিবেশন করতেন তিনি।

দক্ষ সংগীতশিল্পী ছাড়াও কিশোরী আমনকর ছিলেন এক জন সুবক্তা। সংগীতে রসের প্রভাব নিয়ে তিনি দেশের বিভিন্ন জায়গায় বক্তৃতা দিতে যেতেন। কলাক্ষেত্রে তাঁর অবদানের জন্য ভারত সরকার ১৯৮৭ সালে তাঁকে ‘পদ্মভূষণ’ এবং ২০০২ সালে ‘পদ্মবিভূষণ’ সম্মানে সম্মানিত করেন। ২০১০ সালে তিনি সংগীত নাটক অ্যাকাডেমির ফেলো হন।   

 

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here