পোর্ট ব্লেয়ার : আন্দামানের দু’টি দ্বীপে আটকে পড়া ২৩৭৬ জন পর্যটককে শুক্রবার উদ্ধার করা হয়েছে। এঁদের মধ্যে বেশ কিছু বিদেশি পর্যটক রয়েছেন। এঁদের পোর্ট ব্লেয়ারে নিয়ে আসা হয়েছে। সবাই সুস্থ আছেন, নিরাপদে আছেন, প্রত্যেকের যথাযথ দেখভাল করা হচ্ছে বলে আন্দামানের প্রশাসন সূত্রে বলা হয়েছে।

সন্ধ্যায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছিল, আন্দামানের হ্যাভলক ও নীল দ্বীপে আটকে পড়া ১৯০০-রও বেশি পর্যটককে শুক্রবার সন্ধের মধ্যে উদ্ধার করা হয়। এঁদের মধ্যে হ্যাভলক থেকে ১৬১৪ জন এবং নীল থেকে ২৮৯ জন। পরে জানা যায় আটকে পড়া সব পর্যটককেই উদ্ধার করে পোর্ট ব্লেয়ারে নিয়ে আসা হয়েছে।    

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের এক মুখপাত্র জানান, বৃষ্টি ও ঝোড়ো বাতাস উপেক্ষা করে শুক্রবার সকাল থেকে ভারতীয় বিমানবাহিনীর তিনটি এমআই-১৭ ভি ৫ হেলিকপ্টার, ভারতীয় নৌবাহিনীর ৬টি জাহাজ এবং উপকূলরক্ষী বাহিনীর ৩টি জলযান উদ্ধারকাজে নামে। বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারগুলি মোট ১৪টি সর্টি করে – ১১ বার হ্যাভলকে এবং ৩ বার নীল দ্বীপে।

পোর্ট ব্লেয়ার থেকে ৪০ কিমি দূরে অবস্থিত হ্যাভলক ও নীল দ্বীপ পর্যটকদের সবচেয়ে জনপ্রিয় গন্তব্য। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার জন্য গত ৫ ডিসেম্বর থেকে এই দু’টি দ্বীপে পর্যটকরা আটকে ছিলেন। ঘূর্ণিঝড় ‘বরধা’র জেরে সমুদ্র উত্তাল থাকায় এবং ঝোড়ো হাওয়া চলতে থাকায় এত দিন আটক পর্যটকদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। আন্দামানের লেঃ গভর্নর জগদীশ মুখি জানিয়েছেন, উড়ানের সময়সূচি অনুযায়ী পর্যটকদের নিজেদের জায়গায় ফেরত পাঠানোর বন্দোবস্ত করা হচ্ছে। যত দিন না তাঁরা ফেরার উড়ান ধরেন তত দিন তাঁদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ছবি সৌজন্যে টুইটার

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here