লস অ্যাঞ্জেলেস: ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌন হামলার অভিযোগের পর এ বার মানহানির মামলা। যে মহিলা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভাবী প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে যৌন হামলার অভিযোগ এনেছিলেন, তিনিই এ বার মানহানির মামলা দায়ের করলেন। উল্লেখ্য, আর দু’ দিন পরেই ট্রাম্পের শপথ নেওয়ার কথা।    

‘অ্যাপ্রেন্টিস’ নামের জনপ্রিয় টিভি রিয়্যালিটি শো-র তারকা সামার জার্ভোস অভিযোগ করেছিলেন, মি. ট্রাম্প ২০০৭ সালে তাঁর সঙ্গে জোরপূর্বক যৌন সম্পর্কের চেষ্টা করেন। ওই রিয়্যালিটি শো-র বিচারক ছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

নির্বাচনী প্রচারের সময় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বেশ কিছু যৌন অসদাচরণের অভিযোগ আসে, যার সবগুলোই অস্বীকার করেন তিনি। সব অভিযোগকে ‘মিথ্যা এবং হাস্যকর’ বলে বর্ণনা করে এবং অভিযোগকারীদের ‘অসুস্থ’ দাবি করে ট্রাম্প বলেন, ওরা ‘খ্যাতি, অর্থ এবং রাজনীতির কারণে এমনটা করছে’।

“মি. ট্রাম্প যে হেতু আমার অনুরোধ অনুযায়ী তাঁর কথা প্রত্যাহার করেননি, সে কারণে আমার মর্যাদা পুনরুদ্ধারের জন্য তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই” – আইনজীবী গ্লোরিয়া অলরেডকে পাশে বসিয়ে লস অ্যাঞ্জেলসে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন মিস জার্ভোস। অলরেড জানান, অভিযোগকারীর বক্তব্য লাই ডিটেকটরের মাধ্যমে পরীক্ষা করা হয়েছে এবং দেখা গিয়েছে ট্রাম্পের সব অভিযোগ সত্য।  

মামলায় ট্রাম্পকে একজন ‘মিথ্যাবাদী এবং পুরুষতান্ত্রিক’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে বলে জানান মিস জার্ভোস।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here