Connect with us

বাংলাদেশ

রাজশাহী থেকে সিরাজগঞ্জ, ৮ জেএমবি জঙ্গি গ্রেফতার

তল্লাশি চালিয়ে দু’টি পিস্তল, রাম দা, চাপাতি, বোমা তৈরির সরঞ্জাম ও উগ্র মতবাদের বই ইত্যাদি মিলেছে।

Published

on

জঙ্গি ধরার অভিযান।

ঋদি হক: ঢাকা

রাজশাহী (Rajshahi) নগরীর শাহ মাখদুম এলাকার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে চার জঙ্গিকে অস্ত্র-সহ গ্রেফতার করে র‌্যাব (RAB)। তাদের তথ্যের ভিত্তিতেই সিরাজগঞ্জের (Sirajganj) শাহজাদপুর উকিলপাড়া এলাকার একটি বাড়ি ঘিরে অভিযানে নামে র‌্যাব। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১০টা নাগাদ বাড়ি থেকে ৪ জন বেরিয়ে এসে আত্মসমর্পণ করে। এদের মধ্যে একজনের নাম কিরণ, যে সিরাজগঞ্জ অঞ্চলের নব্য জেএমবি-র (JMB, Jammat-ul-Mujahideen Bangladesh) দ্বিতীয় প্রধান।

Loading videos...

ধৃতরা নব্য জেএমবি-র সদস্য বলে জানিয়েছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন তথা র‌্যাব সদর দফতরের মিডিয়া শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ।  র‌্যাব-১২ সিরাজগঞ্জ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানি কমান্ডার মুহাম্মদ মহিউদ্দিন মিরাজ জানিয়েছেন, বাড়িটিতে তল্লাশি চালিয়ে দু’টি পিস্তল, রাম দা, চাপাতি, বোমা তৈরির সরঞ্জাম ও উগ্র মতবাদের বই ইত্যাদি মিলেছে।

রাজশাহীর পর সিরাজগঞ্জ

রাজশাহীর অভিযানে ধৃত ৪ জন নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি-র সক্রিয় সদস্য বলে র‌্যাবের দাবি। এদের মধ্যে মাহমুদ নামে একজন রাজশাহী অঞ্চলের প্রধান। প্রাথমিক ভাবে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে যে তথ্য পাওয়া যায় তারই ভিত্তিতে র‍্যাব শুক্রবার ভোররাতে সিরাজগঞ্জ শাহজাদপুর উপজেলার বাড়িতে অভিযান চালায়। বেলা সাড়ে ১০টা নাগাদ ৪ জন আত্মসমর্পণ করে। এদের মধ্যে কিরণ নামে একজন পাবনা-সিরাজগঞ্জ জেএমবি-র আঞ্চলিক প্রধান বলে  সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন মুহাম্মদ মহিউদ্দিন মিরাজ।

শাহজাদপুরের বাড়িটি সিরাজগঞ্জের খায়রুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি কিনেছেন। নির্মীয়মাণ চারতলা বাড়িটির নীচের তলায় কয়েক জন যুবক ভাড়া থাকত। রাতে সেখানে অপরিচিত লোকের আনাগোনা ছিল। বাড়িতে বসবাসকারীদের কেউ কেউ মুদিখানার ছোটখাটো দোকান চালাত। লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ জানিয়েছেন, রাজশাহীর শাহ মখদুম এলাকা থেকে চার জন জঙ্গিকে গ্রেফতারের পর এই বাড়িটি সম্পর্কে তথ্য মেলে।

দেশ জুড়ে জেএমবি-র হামলা

২০০৫ সাল। ক্ষমতার মসনদে বিএনপি’র চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ওই বছরের ১৭ আগস্ট সকাল সাড়ে ১০টায় একযোগে কেঁপে ওঠে গোটা বাংলাদেশ। মাত্র আধ ঘণ্টার ব্যবধানে বাংলাদেশের ৬৩টা জেলার প্রায় ৩০০টি স্থানে ঘটানো হয় বিস্ফোরণ। সংবাদমাধ্যমের দৌলতে পৃথিবীব্যাপী সংবাদের শিরোনাম হয় বাংলাদেশ। সে দিন ভয় আর শঙ্কায় কেঁপে উঠেছিল আমজনতা। আতঙ্কের জাল বিস্তার করেছিল গোটা দেশে!

সে হামলায় সে দিন নিহত হন ২ জন এবং আহত হয়েছিলেন পাঁচ শতাধিক। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা বিস্ফোরণস্থলগুলো পরিদর্শন করতে গিয়ে ছড়ানো ছিটানো বেশ কিছু লিফলেট পান। এই ন্যাক্কারজনক ঘটনা অর্থাৎ বোমা-হামলার দায় স্বীকার করে ধর্মীয় সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)।

দেশ জুড়ে ইসলাম প্রতিষ্ঠার নামে জেএমবি-র হিংসা ছড়িয়ে পড়ে। জেএমবি-র সহিংস কর্মকাণ্ডের অজুহাতে একটি মহল ঢালাও ভাবে জঙ্গি ও উগ্রবাদী হিসেবে মাদ্রাসার দিকে আঙুল তোলার চেষ্টা করে। কিন্তু গুলশান হামলা সাধারণ মানুষের ধারণা পালটে দেয়।

র‍্যাবের হাতে ধৃত জঙ্গিরা।

জঙ্গিরা হামলার ক্ষমতা হারিয়েছে    

বড়ো ধরনের কোনো হামলা ঘটানোর ক্ষমতা জঙ্গিদের নেই বলে বার বার দাবি করে আসছেন বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ঈদ, পয়লা বৈশাখ-সহ বিভিন্ন উৎসব ঘিরে জঙ্গিগোষ্ঠীর তৎপরতা বেড়ে যায়। এ ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সতর্ক থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

অপর দিকে ‘কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটে’র প্রধান ও ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলামেরও দাবি গুলশান হলি আর্টিসানের মতো হামলার সক্ষমতা জঙ্গিদের নেই। হলি আর্টিসানের পর শোলাকিয়া ঈদ জামায়াত বাদ দিলে সিলেটে একটি সেকেন্ডারি অ্যাটাক ছাড়া আর কোনো জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটেনি।

মনিরুল ইসলাম বলেন, জঙ্গি প্রসঙ্গে কোনো আলোচনা হলেই গুলশান জঙ্গি হামলার ঘটনা সামনে আসে। ঝুঁকিপূর্ণ অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে জঙ্গিদের সাংগঠনিক কাঠামো ভেঙে দেওয়া হয়েছে। গুলশান হামলার পর জঙ্গিবাদবিরোধী একটা ঘৃণা মানুষের মনে জন্ম নিয়েছে। দেশের মানুষ কোনো উগ্রবাদকে সমর্থন করে না, বরং জঙ্গি তৎপরতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে।

গুলশান হামলার পর আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর বিভিন্ন জঙ্গিবিরোধী অভিযানে ১৩ জন জঙ্গি নিহত হয়েছে। 

জেএমবি প্রতিষ্ঠার নেপথ্যে

জেএমবি-র প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান শায়খ আবদুর রহমান ছিলেন লা মাজহাবি (আহলে হাদিস) ঘরানার আলেম। বাংলাদেশে মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে কামিল পাশ করার করে সৌদি আরবের মদিনা ইউনিভার্সিটিতে পড়তে যান। সেখান থেকেই জিহাদি ভাবাদর্শে উজ্জীবিত হন। ২০০৬ সালের ২ মার্চ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর নিজের যাবতীয় কর্মতৎপরতা সম্পর্কে জবানবন্দি দিয়েছিলেন শায়খ আবদুর রহমান।

তাঁর সেই জবানবন্দি থেকে জানা যায়, দেশে ফিরে তিনি ইসলামি হুকুমত প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেন। কিন্তু বাংলাদেশে প্রচলিত কোনো ইসলামি সংগঠনের সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করতে পারছিলেন না তিনি। ফলে দীর্ঘ প্রস্তুতি ও পরিকল্পনার পর ১৯৯৮ সালের এপ্রিল মাসে প্রতিষ্ঠা করেন জামাআতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)।

শায়খ আবদুর রহমান ছাড়া বাকি সদস্যরা ছিলেন খালেদ সাইফুল্লাহ, হাফেজ মাহমুদ, সালাউদ্দিন, নাসরুল্লাহ, শাহেদ বিন হাফিজ ও টাঙ্গাইলের রানা। ২০০১ সালে শুরা কমিটিতে যুক্ত হন ফারুক হোসেন ওরফে খালেদ সাইফুল্লাহ, আসাদুজ্জামান হাজারী, আতাউর রহমান সানি (শায়খ রহমানের ভাই), আবদুল আউয়াল (জামাতা) ও সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাই।

এঁদের মধ্যে ২০০২ সালে নাসরুল্লাহ রাঙামাটিতে বোমা বিস্ফোরণে মারা যান। অন্যদের মধ্যে এখন সালাউদ্দিন ছাড়া আর কেউ বেঁচে নেই। সালাউদ্দিনকে ২০১৪ সালে ময়মনসিংহের ত্রিশালে প্রিজনভ্যানে হামলা করে ছিনিয়ে নেন জেএমবি-সদস্যরা। আর আবদুর রহমান ও বাংলা ভাই-সহ অন্যান্য ছয় নেতার ফাঁসি কার্যকর করা হয় ২০০৭ সালের ৩ মার্চ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

বঙ্গবন্ধু বিশ্বে শান্তির পায়রা উড়িয়ে ছিলেন, শেখ হাসিনা তা সংস্কৃতিতে পরিণত করেছেন

বাংলাদেশ

Covid Vaccination Programme: বিশ্বব্যাঙ্কের সঙ্গে বাংলাদেশের ৪৩৩০ কোটি টাকার ঋণচুক্তি

এই ঋণ নেওয়ার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে টিকা কেনা ও সরবরাহ করা।

Published

on

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: করোনা টিকাকরণ (Covid vaccination) কার্যক্রম জোরকদমে চলছে। দেশের কমপক্ষে ৩১ শতাংশ মানুষকে টিকার আওতায় আনার পরিকল্পনা নিয়ে কার্যক্রম এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে সরকার। তারই ধারাবাহিকতায় টিকা কিনতে বিশ্বব্যাঙ্কের (World Bank) সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হল বাংলাদেশ।

কোভিড-১৯ ইমার্জেন্সি রেসপন্স অ্যান্ড প্যানডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস প্রকল্পের আওতায় অতিরিক্ত ঋণ সহায়তা হিসেবে ৫০ কোটি ডলার দিতে সম্মত হয়েছে বিশ্বব্যাঙ্ক। প্রতি ডলার সমান ৮৬ টাকা ধরে বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ৪ হাজার ৩৩০ কোটি টাকা। এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার ও বিশ্বব্যাংকের মধ্যে একটি ঋণচুক্তি সই হয়েছে।

Loading videos...

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন ও বিশ্বব্যাঙ্কের পক্ষে বাংলাদেশ অফিসের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি টেম্বন চুক্তিতে সই করেন। সোমবার ইআরডি থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে প্রকল্পের আওতায় ২০২০ সালের ১০ এপ্রিল ১০ কোটি ডলার ঋণ সহায়তা দিয়েছে সংস্থাটি। এশীয় পরিকাঠামো বিনিয়োগ ব্যাংকের (Asian Infrastructure Investment Bank, AIIB) কাছ থেকেও ১০ কোটি ডলার ঋণ পাওয়া গিয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় টিকা কেনার জন্য চলমান প্রকল্পের আওতায় অতিরিক্ত ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাঙ্ক। চলতি সময় থেকে ২০২৩ সালের ডিসেম্বর মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। 

প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে টিকা কেনা ও সরবরাহ করা। এ ছাড়া কোভ্যাক্স থেকে অগ্রিম টিকা কেনার মাধ্যমে দেশের মোট জনসংখ্যার ৩১ শতাংশকে টিকা দেওয়া, ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের ভ্যাকসিন টেস্টিং ল্যাব স্থাপনের মাধ্যমে সক্ষমতা বাড়ানো এবং টিকা সংরক্ষণ ও বিতরণে কোল্ড চেন সিস্টেম অক্ষুণ্ণ রাখার মাধ্যমে টিকার গুণগত মান নিশ্চিত করা।

বিশ্বব্যাঙ্কের এই অতিরিক্ত অর্থায়নের ক্ষেত্রে বিশ্বব্যাংকের অঙ্গভুক্ত প্রতিষ্ঠান আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার (International Development Agency, IDA) তহবিলের রেগুলার টার্ম প্রযোজ্য হবে। ঋণটি ৫ বছরের গ্রেস পিরিয়ড-সহ ৩০ বছরের পরিশোধযোগ্য এবং সুদের হার হবে ১.২৫ শতাংশ, সার্ভিস চার্জ হবে ০.৭৫ শতাংশ। অনুত্তোলিত অর্থের ওপর কমিটমেন্ট চার্জ হবে ০.৫০ শতাংশ।

আরও পড়ুন: Bangladesh Lockdown: বুধবার থেকে কঠোর লকডাউন, রাস্তায় চলাচলে লাগবে ‘মুভমেন্ট পাস’

Continue Reading

বাংলাদেশ

Bangladesh Lockdown: বুধবার থেকে কঠোর লকডাউন, রাস্তায় চলাচলে লাগবে ‘মুভমেন্ট পাস’

এ সময় শুধু রফতানিমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে।

Published

on

ঋদি হক: ঢাকা

মঙ্গলবার বাংলাদেশে (Bangladesh) করোনা (coronavirus) ছড়ানোর ৪০১তম দিনে মৃত্যুর সংখ্যা সর্বোচ্চ হল – মারা গেলেন ৮৭ জন। এই দিনেই কঠোর লকডাউনের নির্দেশনা জারি করল মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ। পয়লা বৈশাখ জাঁকজমকের সঙ্গে পালনের পরিবর্তে বাঙালি আবদ্ধ হবে ঘরের চার দেওয়ালে। পয়লা বৈশাখ, বসন্ত আর নবান্ন হারিয়ে গেছে করোনাভাইরাসের ছোবলে।

Loading videos...

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে এ বার বুধবার ১৪ এপ্রিল থেকে সরকারি ও বেসরকারি অফিস, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান, গণপরিবহণ এবং মানুষের চলাচল বন্ধ রেখে আট দিনের কঠোর লকডাউনে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এ সময় শুধু রফতানিমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে। মালিকপক্ষ শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিল্পপ্রতিষ্ঠান চালু রাখার দায়িত্ব পালন করবেন।

বাংলাদেশে করোনার লাগামহীন আক্রমণ চলছে। এর আগে করোনা রুখতে ৫ থেকে ১১ এপ্রিল সাত দিনের লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। কিন্তু তা সফল হয়নি। তখন থেকেই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বারবার বলে আসছিলেন, করোনার ভাইরাস মানবদেহে ১৪ দিন পর্যন্ত লুকিয়ে থেকে সংক্রমণ ঘটাতে পারে। করোনার লাগাম টানতে কমপক্ষে ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন প্রয়োজন।

লকডাউনে কড়াকড়ি  

লকডাউনে বন্ধ থাকবে আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ উড়ান। করোনা সংক্রমণ রুখতে ৩ এপ্রিল থেকে যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের বাকি সকল দেশের সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। পাশাপাশি আর্জেন্তিনা, বাহরাইন, ব্রাজিল, চিলি, জর্ডান, কুয়েত, লেবানন, পেরু, কাতার, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ক ও উরুগুয়ের সঙ্গেও আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ রেখেছে সরকার।

ঢাকা ছেড়ে যেতে ফেরিঘাটে ভিড়।

এমন পরিস্থিতিতে সোমবার ঘোষিত ১৪ থেকে ২১ এপ্রিলের কঠোর লকডাউনে বিধি-নিষেধ মানাতে মাঠ পর্যায়ে প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

সোমবার এক ভিডিও বার্তায় এই নির্দেশনা দেওয়ার কথা জানান তিনি। এরই মধ্যে বিধিনিষেধ আরোপ করে মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ প্রজ্ঞাপন জারি করেছে, যেখানে রয়েছে ১৩টি নির্দেশনা। এ বার লকডাউন কার্যকর করতে আটঘাট বেঁধে মাঠে নামার প্রস্ততি নিয়েছে সরকার। যে কোনো মূল্যে লকডাউন বাস্তবায়ন করতে চায় হাসিনা সরকার। এ বারের লকডাউনে সাধারণ মানুষের চলাচলে প্রয়োজন হবে মুভমেন্ট পাস।

‘মুভমেন্ট পাস’

মঙ্গলবার বাংলাদেশ পুলিশের তরফে এই সংক্রান্ত একটি অ্যাপের উদ্বোধন করার কথা পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদের। লকডাউন চলাকালে সবাইকে ঘরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। করোনা ভ্যাকসিন নেওয়ার ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হলেও জরুরি প্রয়োজনে বাসা থেকে বের হয়ে কোথাও যেতে হলে লাগবে ‘মুভমেন্ট পাস’।

যুক্তিসংগত কারণ দেখিয়ে অ্যাপে আবেদনের পর মিলবে ‘মুভমেন্ট পাস’। মুদি দোকানে কেনাকাটা, কাঁচা বাজার, ওষুধপত্র, চিকিৎসা, চাকরি, কৃষিকাজ, পণ্য পরিবহণ ও সরবরাহ, ত্রাণ বিতরণ, পাইকারি/খুচরা ক্রয়, পর্যটন, মরদেহ সৎকার, ব্যবসা ও অন্যান্য ক্যাটাগরিতে দেওয়া হবে এ পাস। যাদের বাইরে চলাফেরা প্রয়োজন কিন্তু কোনো ক্যাটাগরিতেই পড়েন না তাদের ‘অন্যান্য’ ক্যাটাগরিতে পাস দেওয়ার বিষয়ে বিবেচনা করা হবে।

পুলিশ সদর দফতরের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা সংবাদমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রাথমিক ভাবে বুধবার থেকে সাত দিনের কঠোর লকডাউনের কারণে ঢাকা ছেড়ে যাচ্ছেন বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ। দূরপাল্লার পরিবহণ বন্ধ থাকার ফলে বিকল্প উপায়ে ছুটে চলেছেন ঘরমুখো মানুষ। এ কারণে ফেরিঘাটে প্রচন্ড ভিড় লক্ষ করা যাচ্ছে।

তারাবিহ ও ওয়াক্তের নামাজে ২০ জনের বেশি নয় 

তারাবিহ ও ওয়াক্তের নামাজে খতিব, ইমাম, হাফেজ, মুয়াজ্জিন ও খাদেম-সহ ২০ জনের বেশি মুসল্লি যোগ দিতে পারবেন না। ১৪ এপ্রিল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত মসজিদে নামাজ আদায়ে চার দফা নির্দেশনা জারি করেছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রক।

জুমার নামাজে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে যোগ দিতে হবে। মসজিদগুলোয় পবিত্র রমজানে তিলাওয়াত ও জিকিরের মাধ্যমে আল্লাহর রহমত ও বিপদ মুক্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনারও অনুরোধ রয়েছে নির্দেশনায়।

আরও পড়ুন: Ekushe Boimela: পাঠক-প্রকাশকের অতৃপ্তির মধ্যেই নিভৃতে শেষ হল অমর একুশে বইমেলা

Continue Reading

বাংলাদেশ

Ekushe Boimela: পাঠক-প্রকাশকের অতৃপ্তির মধ্যেই নিভৃতে শেষ হল অমর একুশে বইমেলা

সরকারের লকডাউনের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে অমর একুশে বইমেলা প্রতি দিন বেলা ১২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

Published

on

ঋদি হক: ঢাকা

নির্ধারিত দিনের দু’ দিন আগেই সোমবার শেষ হয়ে গেল অমর একুশে বইমেলা। অনেকটাই নিভৃতে, পাঠক-লেখকের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ ঘটিয়ে।

Loading videos...

এটা দুর্ভাগ্য ছাড়া আর কিছুই বলা যাবে না। প্রাণের বইমেলা বাঙালির শাশ্বত আবাহনের একটি। রক্ত দিয়ে কেনা ভাষার প্রতি অবনত শ্রদ্ধা জানিয়ে শুরু হওয়া বইমেলা অহংকারের। দুনিয়ার একটা বিশাল পাঠক এর ভক্ত। প্রতিবেশী দেশের মানুষের প্রাণবন্ত উপস্থিতি গর্বিত করে বাংলা ভাষা তথা বাঙালির রক্তের ঋণকে।

এরই ধারাবহিকতায় দীর্ঘ পথ হেঁটেছে বাঙলা একাডেমির অমর একুশে বইমেলা। তৈরি করেছে পাঠক-প্রকাশকদের সেতুবন্ধন। সারাটি বছর বাংলার অগুনতি মানুষ প্রাণের মেলার অপেক্ষায় থাকেন। যেমনটি পয়লা বৈশাখ আর বসন্ত-নবান্ন উৎসবে খুঁজে পায় মানুষ। এটাই বাঙালির আত্মার খোরাক।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর মেলা থাকবে জাঁকজমকপূর্ণ। বিকেল গড়িয়ে আড্ডা চলবে রাত ন’টা অবদি। তথ্যকেন্দ্রের মাইকে ভেসে আসবে নতুন বইয়ের ঘোষণা। ভক্তদের স্বনামধন্য লেখকরা অটোগ্রাফ দিতে ব্যস্ত সময় পার করবেন। অনেক পুরাতন বন্ধুর দেখা মিলবে বইমেলায়। স্টল থেকে স্টলে থাকবে বইপাগল বাঙালির ব্যস্ত অনাগোনা। কিন্তু না, সব কিছুই কেড়ে নিয়েছে করোনা।

ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে, ভাষা-মাস ফ্রেব্রুয়ারির পরিবর্তে মেলা শুরু হয় ১৮ মার্চ থেকে। ৩১ মার্চের আগে পর্যন্ত প্রতি দিন বেলা ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা চলত। শুক্র ও শনিবার ছুটির দিনে মেলার পর্দা উঠত বেলা ১১টায়। এর পর ৪ এপ্রিল ফের পরিবর্তন করা হয় বইমেলার সময়সূচি। সরকারের লকডাউনের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে অমর একুশে বইমেলা প্রতি দিন বেলা ১২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত দিনের দু’ দিন আগেই শেষ হয়ে গেল বইমেলা।   

এ বারের বইমেলায় বাংলাদেশের পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা-সহ ৪৪৩টি প্রকাশনা সংস্থা বিনিয়োগ করে ৯০ কোটি টাকা। বিক্রি হয়েছে ৩ কোটি ১১ লাখ ৯১ হাজার ৯২৮ টাকার বই। এমন পরিস্থিতিতে ক্ষতিপূরণে অন্তত ১০ কোটি বরাদ্দের দাবি করেছেন প্রকাশকরা।

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
রাজ্য14 mins ago

নির্বাচনে জেতার জন্য তৃণমূল, বামফ্রন্ট বহিরাগতদের উপর নির্ভরশীল: অমিত শাহ

রাজ্য51 mins ago

Bengal Polls 2021: এ বার অনুব্রত মণ্ডলকে শোকজ নোটিশ নির্বাচন কমিশনের

দেশ1 hour ago

অভিবাসী শিশুদের অবস্থা জানাতে রাজ্যগুলিকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

রাজ্য2 hours ago

Bengal Polls 2021: শুভেন্দু অধিকারীকে সতর্ক করল নির্বাচন কমিশন

রাজ্য3 hours ago

নজরে বিধানসভা/বরানগর: দেখে নিন ইতিহাস এবং সাম্প্রতিক তথ্য

দার্জিলিং3 hours ago

Bengal Polls 2021: এনআরসি নিয়ে বড়ো ঘোষণা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের

হাওড়া4 hours ago

বালিতে প্রচণ্ড শব্দে ভাঙল বাসের কাচ, পাথর না গুলি? চলছে তদন্ত

রাজ্য4 hours ago

Bengal Polls 2021: মুখে কালো মাস্ক, সঙ্গী রঙ-তুলি, গান্ধী মূর্তির পাদদেশে সাড়ে তিন ঘণ্টার ধরনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

ধর্মকর্ম2 days ago

অন্নপূর্ণাপুজো: উত্তর কলকাতার পালবাড়ি ও বালিগঞ্জের ঘোষবাড়িতে চলছে জোর প্রস্তুতি

ভিডিও2 days ago

Bengal Polls 2021: বিধাননগরে মুখোমুখি টক্কর সুজিত বসু-সব্যসাচী দত্তর, ময়দানে জোট প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রবন্ধ1 day ago

First Man In Space: ইউরি গাগারিনের মহাকাশ বিজয়ের ৬০ বছর আজ, জেনে নিন কিছু আকর্ষণীয় তথ্য

রাজ্য3 days ago

Bengal Polls 2021: কোচবিহারে ৩ দিনের জন্য রাজনীতিবিদদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করল নির্বাচন কমিশন

ক্রিকেট20 hours ago

IPL 2021: কাজে এল না সঞ্জু স্যামসনের মহাকাব্যিক শতরান, পঞ্জাবের কাছে হারল রাজস্থান

দেশ1 day ago

Kumbh Mela 2021: করোনাবিধিকে শিকেয় তুলে এক লক্ষ মানুষের সমাগম, আজ কুম্ভের প্রথম শাহি স্নান হরিদ্বারে

Rahul Gandhi at Maldah rally
রাজ্য2 days ago

Bengal Polls 2021: পঞ্চম দফার ভোটের আগে রাজ্যে আসছেন রাহুল গান্ধী

রাজ্য2 days ago

Bengal Corona Update: নমুনা পরীক্ষার সঙ্গেই তাল মিলিয়ে বাড়ল বাংলার দৈনিক করোনা সংক্রমণ

ভোটকাহন

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 weeks ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা3 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা3 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা3 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা3 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা3 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে