ঋদি হক: ঢাকা

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে ঐতিহাসিক বিজয় লাভ করায় তাঁকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন (Dr. A K Abdul Momen)। বুধবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Bandyopadhyay) লেখা এক পত্রে অভিনন্দন জানান ড. মোমেন। বিদেশমন্ত্রক এই তথ্য জানিয়েছে।

Loading videos...

অভিনন্দন-বার্তায় ড. মোমেন উল্লেখ করেন, তৃণমূল কংগ্রেস ধারাবাহিক ভাবে তৃতীয় বারের মতো সরকার গঠনে জনগণের সমর্থন লাভ করেছে, যা আপনার নেতৃত্বের প্রতি পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) জনগণের অব্যাহত আস্থা ও বিশ্বাসের প্রতিফলন।

ড. মোমেন বলেন, “আমরা আপনার প্রতি কৃতজ্ঞ, কারণ আপনি বাঙালির দীর্ঘ লালিত মূল্যবোধ ‘ধর্মীয় সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধ’ ধারণ করেছেন এবং এ ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধু সারা জীবন অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।”

ড. মোমেন আরও বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে চমৎকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিদ্যমান এবং সাম্প্রতিক বছরে দু’দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার সম্ভাব্য ক্ষেত্রগুলো আরও প্রসারিত হয়েছে।

তাঁর কথায়, “অবিভক্ত ইতিহাস, সংস্কৃতি, ভাষা, মূল্যবোধ এবং বংশানুক্রমিক সংযোগ দু’ দেশের জনগণের সম্পর্ককে অনন্য ও শক্তিশালী করেছে। বিশেষ করে, পশ্চিমবঙ্গের জনগণ বাংলদেশিদের হৃদয়ে বিশেষ স্থান দখল করে রেখেছে।”

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, মুজিববর্ষ এবং বাংলাদেশ ও ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর উদযাপনের বিশেষ বছরে পশ্চিমবঙ্গের জনগণ-সহ ভারতের জনগণ এবং রাজনৈতিক নেতৃত্বের সমর্থন ও আত্মত্যাগকে কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন ড. মোমেন।

আরও পড়ুন: Bengal Polls 2021: ধর্মীয় ফ্যাসিবাদকে পরাস্ত করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভূয়সী প্রশংসা কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়ের

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশে বিদেশমন্ত্রী (Bangladesh foreign minister) বলেন, “আপনার অঙ্গীকার ও সহযোগিতার মাধ্যমে দু’ দেশের সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে এবং অনিষ্পন্ন বিষয়গুলোর সমাধান হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।”

ড. মোমেন তাঁর অভিনন্দন-বার্তায় আরও বলেন, অজানা শত্রু করোনাভাইরাসের কারণে সারা বিশ্ব নজিরবিহীন চ্যালেঞ্জের সস্মূখীন হচ্ছে। এ প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ দু’ দেশের পারস্পারিক সম্পদ ও অভিজ্ঞতা বিনিময় এবং জনগণের কল্যাণে কাজ করে যেতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

ড, মোমেন বলেন, “আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, সকলে সম্মিলিত ভাবে এ মহাবিপদ থেকে মুক্ত হয়ে শীঘ্রই স্বাভাবিক জীবন ও জীবিকায় ফিরতে পারব।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.