UNDP

ওয়েবডেস্ক:  রাষ্ট্রসঙ্ঘের উন্নয়ন কর্মসূচি ইউএনডিপি-র সদ্য প্রকাশিত ‘মানব উন্নয়ন প্রতিবেদন-২০১৮’-য় বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে ভারতকে পিছনে ফেলে দিল প্রতিবেশী বাংলাদেশ। গতবার ভারত এই তালিকায় ছিল ১৩১তম স্থানে। এ বার মাত্র এক ধাপ এগিয়ে দখল করছে ১৩০তম স্থান। কিন্তু অন্য দিকে গতবার ১৩৯তম স্থানে থাকা বাংলাদেশ তিন কদম এগিয়ে চলে এসেছে ১৩৬তম স্থানে। ফলে এগনোর দিক থেকে ভারতকে পিছনে ফেলেছে বাংলাদেশ। এমনকী নির্দিষ্ট কয়েকটি বিষয়ে রীতিমতো তাক লাগানো স্থান অধিকার করে ভারতের থেকে সংখ্যাগত ভাবে এগিয়ে গিয়েছে বাংলাদেশ।

দেখে নেওয়া যাক ক্ষেত্রগুলি-

নাগরিকের প্রত্যাশিত আয়ুষ্কাল
ইউএনডিপির প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ভারতীয় নাগিরকদের গড় আয়ু ৬৮ বছর ৮ মাস। সেই জায়গায় বাংলাদেশের নাগরিকদের প্রত্যাশিত আয়ুষ্কাল ৭২ বছর ৮ মাস। আবার ভারতে নারীদের গড় আয়ু ৭০ বছর ৪ মাস এবং পুরুষদের ৬৭ বছর ৩ মাস। বাংলাদেশে এই আয়ু যথাক্রমে ৭৪ বছর ৬ মাস এবং ৭১ বছর ১ মাস। প্রত্যাশিত আয়ুষ্কালের দিক থেকে বাংলাদেশের প্রাপ্ত মান .৮১২। যা ভারতের ক্ষেত্রে .৭৫১।

শিশু মৃত্যু
মানব উন্নয়ন সূচক ২০১৮ অনুযায়ী, বাংলাদেশে সদ্যজাত শিশু মৃত্যুর হার ২৮ দশমিক ২। অন্যদিকে ভারতে এই হার ৩৪ দশমিক ৬। বাংলাদেশে ৫ বছরের কম বয়সী শিশু মৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ৩৪ দশমিক ২ জন। ভারতে এই হার ৪৩ জন।

টিকাদান কর্মসূচি
ভারতে শতকরা ৯টি সদ্যোজাত শিশু প্রয়োজনীয় ডিপিটি টিকা থেকে বঞ্চিত হয়। বাংলাদেশে এই সংখ্যা মাত্র ১ জন। ভারতে হামের টিকা থেকে বঞ্চিত হয় শতকরা ১২ জন সদ্যজাত শিশু। বাংলাদেশে এই সংখ্যা মাত্র ৬ জন।

শিশু অপুষ্টি
ভারতে ৫ বছরের কম বয়সি শিশুদের অপুষ্টির হার ৩৭.৯। বাংলাদেশে এই হার ৩৬.২।

এড্‌স আক্রান্ত
ভারতে প্রতি ১০০ জনে এইচআইভি আক্রান্তের হার .৩। অন্যদিকে বাংলাদেশে .১ জন।

ম্যালেরিয়ার মৃত্যু
বাংলাদেশে ম্যালেরিয়া আক্রান্তের হার প্রতি হাজারে মাত্র .৬ জন। ভারতে এই হার ১৮.৮ জন।

লিঙ্গভিত্তিক উন্নয়ন
জেন্ডার ডেভেলপমেন্ট ইনডেক্স (জিডিআই) এ ভারতের স্কোর মান .৮৪১। এই সুচকেও ভারতের থেকে এগিয়ে বাংলাদেশ। সে দেশের প্রাপ্ত মান .৮৮১। ভারতীয় সংসদে নারীর আসন ১১.৬ শতাংশ। অন্যদিকে বাংলাদেশে এই হার ২০.৩ শতাংশ।

কর্মসংস্থান
ভারতে মোট জনসংখ্যার ৫১.৯ শতাংশ কর্মসংস্থানের সুযোগ পায়। বাংলাদেশে এই হার ৫৪ শতাংশ।

সামাজিক নিরাপত্তা
ভারতে প্রতি এক লক্ষে হত্যার শিকার হন ৩.২ জন। বাংলাদেশে এই সংখ্যা ২.৫ জন। ভারতে মহিলাদের মধ্যে আত্মহত্যার হার প্রতি এক লক্ষে ১৪.২ জন। পুরুষদের ক্ষেত্রে এই হার ১৭.৯ জন। বাংলাদেশে এই হার যথাক্রমে ৬.৬ এবং  ৫.৩ জন।

বায়ু দূষণে মৃত্যু
কার্বন ডাই অক্সাইড নিঃসণের ক্ষেত্রে ভারতের হার ১.৭ আর বাংলাদেশের ০.৫। বায়ু দূষণের প্রভাবে ভারতে মৃত্যুর হার প্রতি এক লক্ষে ১৮৪.৩ জন।

আর্থ-সামাজিক অবস্থা
বাংলাদেশে দক্ষ শ্রমিক শতকরা ২৭.২ জন। অন্য দিকে ভারতে এই সংখ্যা ১৮.৫ জন। বাংলাদেশে মোট জাতীয় আয়ের বিপরীতে সঞ্চয়ের হার ২৬ শতাংশ। ভারতে এই হার ১৫. ৫ শতাংশ।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন