পুজো উদ্যোক্তাদের সঙ্গে বৈঠকে পুলিশের আধিকারিকরা। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

ঢাকা: বাংলাদেশে বসবাসকারী হিন্দুদের সব থেকে বড়ো উৎসব দুর্গাপুজো। এই উৎসব উপলক্ষ্যে নিরপত্তার বেষ্টনীতে মুড়ে ফেলা হচ্ছে ঢাকা শহরকে। নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে মঙ্গলবার বিশেষ বৈঠক ডাকেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আসাদউজ্জামান মিয়া।

এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন পুজো কমিটির প্রতিনিধিরা। পুজোর সময়ে নিরাপত্তার ব্যাপারে পুজো উদ্যোক্তারা যাতে দুশ্চিন্তা না করেন সে ব্যাপারে আশ্বাস দেন কমিশনার। তিনি বলেন, “সোশ্যাল মিডিয়ায় বা অন্য কোথাও ছড়িয়ে পড়া গুজবে একদম কান দেবেন না। কোনো দুশ্চিন্তা ছাড়াই পুজোয় মেতে উঠুন। পুলিশ আপনাদের সবাইকে নিরাপত্তা দেবে।”

এ বছর ঢাকা শহরে ২৩০টা পুজোমণ্ডপ তৈরি হয়েছে। সব মণ্ডপেই পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে বলে জানিয়েছেন মিয়া। তাঁর আরও আশ্বাস, “আনন্দের দিনগুলিতে যারা অশান্তির সৃষ্টি করবে, তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ কড়া ব্যবস্থা নেবে।”

আরও পড়ুন একঘেয়ে থিমের বাইরে বেরিয়ে ‘আলোর পথযাত্রী’দের শ্রদ্ধার্ঘ তেলেঙ্গাবাগানে

তবে পুজোমণ্ডপগুলি নিয়ে বেশ কিছু প্রস্তাব দিয়েছে পুলিশ। মণ্ডপে প্রবেশ এবং প্রস্থানের আলাদা রাস্তা, সিসিটিভি এবং জেনারেটরের ব্যবস্থা করার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি প্রবেশপথের সামনে মেটাল ডিটেক্টরের গেট রাখারও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

সব মিলিয়ে পুজোয় ঢাকায় কোনো রকম অশান্তি এড়াতে তৎপর পুলিশ প্রশাসন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন