সাত জেলা থেকে ঢাকা বিচ্ছিন্ন থাকছে ৩০ জুন পর্যন্ত

0
ঢাকা বিচ্ছিন্ন।

ঋদি হক: ঢাকা

করোনা প্রাদুর্ভাব রুখতে এ বারে পাশ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে বিচ্ছিন্ন রাখা হচ্ছে ঢাকাকে। ঢাকার পাশের জেলাগুলো হল মানিকগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, গাজীপুর, মাদারীপুর, রাজবাড়ী ও গোপালগঞ্জ। সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সাত জেলায় সার্বিক কার্যাবলি ও চলাচল (জনসাধারণের চলাচল-সহ) ৩০ জুন পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করে।

Loading videos...

মন্ত্রিপরিষদের আদেশে বলা হয়, এই সময়ে শুধুমাত্র আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিষেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহণ, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্য সেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস বা জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (নদীবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবা-সহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিস, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এবং পণ্যবাহী ট্রাক বা লরি এই নিষেধাজ্ঞার আওতার বাইরে থাকবে।

এ দিন সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, “কয়েক দিন ধরে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলেছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকাকে একটু কাট-অফ (বিচ্ছিন্ন) রাখতে চাই অন্য জেলার সঙ্গে। তাই এই সিদ্ধান্ত হয়েছে আজ।” 

লকডাউনের চেহারা।

মানিকগঞ্জের ওপর দিয়ে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোর যানবাহন চলাচল করে। নারায়ণগঞ্জের সীমানার ওপর দিয়ে চট্টগ্রাম ও সিলেট অঞ্চলের গাড়ি চলাচল করে। গাজীপুরের ওপর দিয়ে ময়মনসিংহ অঞ্চল এবং উত্তরাঞ্চলের গাড়ি চলাচল করে। আর মুন্সিগঞ্জের ওপর দিয়েও চলে বিভিন্ন জেলার গাড়ি। মাদারীপুর, রাজবাড়ী ও গোপালগঞ্জেও বিধিনিষেধ থাকবে।

ঢাকা থেকে কোনো দূরপাল্লার বাস নয়

এ সব জেলা থেকে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত অর্থাৎ মঙ্গলবার সকাল ছয়টা থেকে ৩০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত ঢাকা বিচ্ছিন্ন থাকবে। এই সময়ে ঢাকা থেকে দূরপাল্লার বাস না চলার কারণ হচ্ছে, ঢাকার আশপাশের যে সব জেলার ওপর দিয়েই অন্যান্য জেলায় দূরপাল্লার বাস চলাচল করে, সেই সব বাস চলাচলে বিধিনিষেধ রয়েছে।

রেল, আকাশ ও নৌপথের ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট বিধিনিষেধ না থাকায় এ সব যোগাযোগের মাধ্যমে ঢাকায় আসা যাবে। যে জেলাগুলোতে লকডাউন করা করেছে সেখানে রেল ও লঞ্চ বন্ধ থাকবে।

রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে। দূরপাল্লার ট্রেনগুলো চলাচল করবে। যে সব জেলা বিধিনিষেধের আওতায় রয়েছে, সেখানে ট্রেন চলাচল করবে না।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, যে সব জেলার ওপর দিয়ে গাড়ি চলবে না, মানুষও চলাচল করবে না। সে সব জেলা দিয়ে চলতে না পারা মানে ঢাকা ‘সিল’ করা।

আরও পড়ুন: করোনা-কামড়ে বাংলাদেশে বিপাকে আম-চাষিরা, ৫০০ কোটি টাকা লোকসানের আশঙ্কা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.