Dhaka City
শুনশান ঢাকা শহর।

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা: দূষণ ও যানজটের নগরী রাজধানী ঢাকা এখন ফাঁকা। ঈদের ছুটিতে বিপুল সংখ্যক মানুষ ঢাকা ছেড়ে যাওয়ায় এই পরিস্থিতি।  

রাতের ঢাকার রাস্তায় চলাচল করতে ভয় হচ্ছে। এটাই স্বাভাবিক। রাত ৯টার পর বিভিন্ন স্থান ঘুরে এমনটিই মনে হয়েছে। সিটি বাস পরিষেবা ফাঁকা। অথচ এ সব বাসে চড়তে গিয়ে রীতিমতো যুদ্ধ করতে হয়।

নাম না জানানোর শর্তে একজন ট্রাফিক পুলিশ বললেন, দেখুন দুই ঈদে এমন দৃশ্য ঢাকায় দেখে নিজের চোখ বিশ্বাস করতে চায় না। যানজট, শব্দ ও পরিবেশ দূষণের ক্ষেত্রে বিশ্বের অন্যতম মেগানগরী ঢাকা! এই ঢাকায় সন্ধ্যার পর থেকে নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে না বলে অভিজ্ঞতা এই ট্রাফিক পুলিশের।

একাধিক নাগরিক জানান, ঢাকায় বসবাস করেন এমন একটা বড়ো অংশ ঈদে ঢাকা ছেড়ে যান। তখন ডাকা হয়ে যায় শব্দহীন। কালো ধোঁয়া নেই, ধুলোবালি উড়ছে না। মানুষ নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট পায় না। দিন সাতেক এমন দৃশ্য বিরাজমান থাকবে ঢাকায়। তার পর ফের পুরানো চেহারায় ফিরবে মেগাসিটি।

ফাঁকা রাস্তায় সিটি বাস স্বল্প সময়ে গন্তব্যে পৌঁছোতে পারছে। ১২ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে যেখানে সময় লাগে আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা, সেখানে শনিবার লেগেছে সর্বোচ্চ ৪০ মিনিট। এ বারের ঈদ ঘিরে কমপক্ষে কোটি মানুষ ঢাকা ছেড়ে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কেউ কেউ বলছেন, এই সংখ্যা আরও বেশি হতে পারে।

আরও পড়তে পারেন

ঈদের বাংলাদেশ: এক দিনে ৩৫ লক্ষ মোবাইল সিম ব্যবহারকারী ঢাকা ছেড়ে গেছেন

বিক্ষোভকারীদের দখলে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্টের প্রাসাদ, রান্নাঘরে রান্না করছেন, সুইমিং পুলে সাঁতার কাটছেন বিক্ষুব্ধরা

মেঘভাঙা বৃষ্টি কী? সাধারণ বৃষ্টিপাতের সঙ্গে তার পার্থক্য কোথায়?

অমরনাথে আটকে পড়া পশ্চিমবঙ্গের পুণ্যার্থীদের জন্য হেল্পলাইন নম্বর চালু করল নবান্ন

উদ্ধার ১৫ হাজার তীর্থযাত্রী, অমরানাথে এখনও নিখোঁজ ৪০

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জিততে পারলে কেন্দ্রকে প্রথম যে কাজ করতে বলবেন যশবন্ত সিনহা

বাসভবন ঘিরে ফেলল বিক্ষোভকারীরা, পালালেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন