হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা: ফায়ারিং স্কোয়াডে ১৪ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার নির্দেশ

0

ঋদি হক: ঢাকা

শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা (Attempt to murder Sheikh Hasina) মামলায় ১৪ জঙ্গিকে প্রকাশ্যে ফায়ারিং স্কোয়াডে দাঁড় করিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছে ঢাকার আদালত। মঙ্গলবার জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় দেন বিচারক।

গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়ায় ৭৬ কেজি ওজনের বোমা পুঁতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রের অভিযোগে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলায় ১৪ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা করেন ঢাকার ফাস্ট ট্র্যাক ট্রাইব্যুনাল-১-এর (Fast Track Tribunal 1) বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান।

এ সময় আদালত বলেন, ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে কোনো বিধিনিষেধ থাকলে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে প্রত্যেকের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হবে। আসামিদের ক্ষমার বিষয়ে আদালত বলেন, হুজি (Harkat ul Jihad) ও জেএমবির (JMB) মতো সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা দেওয়া প্রয়োজন। তাই তারা ক্ষমা পেতে পারে না। দণ্ডপ্রাপ্ত ১৪ আসামির মধ্যে ৯ জন কারাগারে, বাকি ৫ জন পলাতক।

২০০০ সালের ২১ জুলাই গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়ায় তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা শেখ হাসিনার সমাবেশস্থলের পাশ থেকে ৭৬ কেজি ওজনের একটি বোমা উদ্ধার করা হয়।

২০০১ সালের ১৫ নভেম্বর মুফতি হান্নান-সহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। সিআইডির তৎকালীন এএসপি আব্দুল কাহারের দাখিল করা অভিযোগপত্রের ভিত্তিতে ২০০৪ সালের ২১ নভেম্বর আদালতে আসামিদের বিরুদ্ধে বিচার শুরু হয়। অপর এক মামলায় হরকাতুল জেহাদ (হুজি) নেতা মুফতি হান্নানের ফাঁসি কার্যকর হয়। 

বিচার চলাকালীন বিভিন্ন সময়ে আদালত মোট ৫০ জন সাক্ষীর মধ্যে ৩৪ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন। হরকাতুল জিহাদের শীর্ষনেতা মুফতি আবদুল হান্নান এই মামলায় মূল আসামি ছিলেন। কিন্তু অন্য মামলায় তার ফাঁসি কার্যকর হওয়ায় তার নাম বাদ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: Indian PM’s Bangladesh Visit: নরেন্দ্র মোদীকে বরণের প্রস্তুতি হরিচাঁদ ঠাকুরের ওড়াকান্দিতে

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন