Connect with us

বাংলাদেশ

ফের ভয়াবহ আগুন ঢাকায়, পুড়ে ছাই দু’শোর বেশি ঘর

ওয়েবডেস্ক: ঢাকার মিরপুরের রূপনগর বস্তিতে বুধবার সকাল পৌনে ১০টা নাগাদ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। বেলা গড়িয়ে বিকেল হতে চললেও সেই আগুন পুরোপুরি নেভেনি বলেই স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর।

জানা গিয়েছে, অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে আসে দমকলের ১৬টি ইউনিট। কিন্তু সেগুলি পর্যাপ্ত নয় বুঝে আরও ছ’টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। আগুন লাগার পর কয়েক ঘণ্টা পার হলেও আগুন এখনও সম্পূর্ণ নেভেনি। ভয়াবহ আগুনে একের পর এক পুড়ে গিয়েছে নতুন নতুন ঘর। ক্ষতি হয়েছে লক্ষ লক্ষ টাকার সম্পত্তি। দমকল বিভাগ জানিয়েছেন, আগুন বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

বস্তির কয়েকজন সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, বস্তিটিতে দেড়-দু’হাজার পরিবার থাকে। সব মিলিয়ে প্রায় ১০ হাজার মানুষের বাস। আগুন লাগার খবর ছড়িয়ে পড়তে কেউ কেউ সামান্য কিছু জিনিসপত্র সরিয়ে নিলেও বেশিরভাগটাই পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে। তবে আগুনে ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত তথ্য এখনও পাওয়া যায়নি।

বাংলাদেশের ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স দফতরের কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার রাসেল শিকদার জানান, “সকাল পৌনে ১০টায় ঢাকার মিরপুরের রূপনগরের ব্লকের বস্তিতে আগুন লাগে। খবর পেয়ে প্রথমে আমাদের ১১ ইউনিট পরে পর্যায়ক্রমে ১৬, ২২ ও ২৫ ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেছে”।

প্রাথমিক ভাবে আগুনের উৎস সম্পর্কে এখনও কোনো সূত্রে খুঁজে পায়নি প্রশাসন।

আরও পড়ুন বাংলাদেশের জাতীয় স্লোগান হল ‘জয় বাংলা’

বাংলাদেশ

ঢাকার হাসপাতালে আগুন লেগে পাঁচ কোভিড রোগীর মৃত্যু

খবর অনলাইন ডেস্ক: বুধবার রাতে ঢাকার (Dhaka) ইউনাইটেড হাসপাতালের (United Hospital) আইসোলেশন ইউনিটে আগুন লেগে পাঁচ জন কোভিড ১৯ (Covid 19) রোগীর মৃত্যু হয়েছে। কোভিড ১৯-এর চিকিৎসার জন্য হাসপাতালের মূল ভবনের বাইরে অস্থায়ী ভাবে এই আইসোলেশন ইউনিট বানানো হয়েছিল।

গুলশন পুলিশের ওসি এসএম কামরুজ্জামান জানান, মৃতদের এখনও শনাক্ত করা যায়নি।

বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের ডিরেক্টর জেনারেল ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেন জানান, দমকল কর্মীরা অস্থায়ী আইসোলেশন ইউনিট থেকে পাঁচটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে।

কী করে আগুন লাগল, সে ব্যাপারে নিশ্চিত নন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল। তিনি বলেন, “তদন্তের পরে নিশ্চিত ভাবে বলা যাবে কী ভাবে আগুন লাগল।” তবে তিনি বলেন, আইসোলেশন ইউনিটে আগুন নেভানোর যথেষ্ট সরঞ্জাম ছিল না।

দমকল পরিষেবার ডিউটি অফিসার কামরুল ইসলাম জানান, রাত্রি ৯.৫৫ মিনিট নাগাদ আইসোলেশন ইউনিটে আগুন লাগে। দমকলের তিনটি ইনজিন ঘটনাস্থলে ছুটে যায় এবং সাড়ে ১০টা নাগাদ আগুন নেভায়।    

হাসপাতালের কমিউনিকেশন অ্যান্ড বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ইউনিটের প্রধান ডাঃ শাগুফা আনোয়ার বলেন, হাসপাতালের মূল ভবনের পাশে ব্যাডমিন্টন কোর্টে যে  করোনাভাইরাস আইসোলেশন ইউনিট বানানো হয়েছে, সেখানেই আগুন লাগে।

Continue Reading

বাংলাদেশ

বাংলাদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৫ হাজার পার

ওয়েবডেস্ক: এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশে মোট করনোভাইরাস (Coronavirus) আক্রান্তের সংখ্যা ২৫ হাজার ১২১ জন বলে জানাল দেশের স্বাস্থ্য বিভাগ। একই সঙ্গে জানানো হয়েছে, গত চব্বিশ ঘণ্টায় নতুন করে ১ হাজার ২৫১ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে মৃত্য়ু হয়েছে ৩৭০ জনের। অন্য দিকে শেষ চব্বিশ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের।

যদিও গত সোমবারের তুলনায় করোনা পরিস্থিতি কিছুটা হলে আশাব্যঞ্জক বলে দাবি করা হয়েছে। বলা হয়েছে, সোমবার সারা দেশে শনাক্ত হন ১ হাজার ৬০২ জন করোনা আক্রান্ত। মৃত্য়ু হয় ২১ জনের।

সংবাদ মাধ্যমের কাছে এই তথ্য পেশ করে বাংলাদেশ (Bangladesh) স্বাস্থ্য অধি দফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা জানিয়েছেন, শেষ চব্বিশ ঘণ্টায় দেশের ৪২টি ল্যাবরেটরিতে করোনা নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে ৮ হাজার ৪৪৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার সোমবার রাতে জেনেভাতে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড হেলথ অ্যাসেম্বলিতে ভিডিও বৈঠকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, বহুপাক্ষিক ব্যবস্থার উপর আস্থা রেখে সবার সঙ্গে করোনাভাইরাস মহামারি প্রতিরোধে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ।

এরই মধ্যে বাংলাদেশ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের একদল চিকিৎসক দাবি করেছেন, তাঁরা করোনাভাইরাসের সঙ্গে মোকাবিলার ওষুধ পেয়ে গিয়েছেন। একটি অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ ডক্সিসাইক্লিনের সঙ্গে সিঙ্গল ডোজ ইবরমেক্টিন নামের অ্যান্টিপ্রোটোজল ব্যবহার করে আশাপ্রদ ফল পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি করেছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: খোলা জায়গায় জীবাণুনাশক স্প্রে করলে করোনাভাইরাস মরবে না: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)

হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. মহম্মদ তারেক আলম দাবি করেছেন, এই পদ্ধতি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন এভং রেমডিসিভিরের থেকে অনেক ভালো।

Continue Reading

বাংলাদেশ

ফিরছে ‘সিডার’-এর স্মৃতি, ‘উম্পুন’ নিয়ে ত্রস্ত বাংলাদেশও

খবর অনলাইনডেস্ক: ১৫ নভেম্বর, ২০০৭। এই দিনটা আজও ভুলতে পারেন না বাংলাদেশের মানুষ। বিশেষত সুন্দরবন লাগোয়া জায়গাগুলির বাসিন্দাদের কাছে এখনও টাটকা ওই দিনের স্মৃতি।

ভয়াল ঘূর্ণিঝড় ‘সিডর’ (Cyclone Sidr) এর দাপটে পুরো তছনছ হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ উপকূলের বিস্তীর্ণ অঞ্চল। ঘণ্টায় ২১৫ কিমি বেগে ঝোড়ো হাওয়ায় বেসামাল হয়ে পড়েছিল সুন্দরবন লাগোয়া গ্রামগুলি। বরিশাল (Barisal), খুলনার (Khulna) মতো শহরেও ব্যাপক প্রভাব পড়েছিল। সরকারি হিসেবেই মারা গিয়েছিলেন সাড়ে তিন হাজার মানুষ।

১৩ বছর পর আবারও এক ভয়াল ঘূর্ণিঝড় অপেক্ষা করছে বাংলাদেশের জন্য। এই মধ্যবর্তী সময়ে আয়লা, বুলবুল, ফণীর মতো ঝড়ও বাংলাদেশ দেখেছে। কিন্তু উম্পুনের শক্তির কাছে সবই তুচ্ছ।

কোভিড-১৯ (Covid 19) মহামারির মধ্যেও মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা হিসেবে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘উম্পুন।’ এই সঙ্কটকালে ঝড় মোকাবেলার প্রস্তুতিও নিতে হচ্ছে সরকারকে।

ইতিমধ্যেই বাংলাদেশে (Bangladesh) কোভিড আক্রান্ত ২২ হাজারের বেশি। এর পর ঘূর্ণিঝড় এলে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ত্রাণশিবিরে সাধারণ মানুষকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ায় বড়ো চ্যালেঞ্জ প্রশাসনের কাছে।

শারীরিক দূরত্ব যাতে বজায় থাকে সে জন্য আশ্রয়কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়াতে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মহম্মদ এনামুর রহমান।

বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর ইতিমধ্যেই চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে ০৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলেছে।

আরও পড়ুন ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক লক্ষের কাছে পৌঁছোলেও সুস্থতার হার আরও বাড়ল

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, “আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে যাতে মানুষজনকে ঠাঁই দেওয়া যায় তার জন্য এ বার কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানোর প্রয়োজন। সেই মর্মে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপকূলীয় জেলাগুলোর জেলা প্রশাসকদের ইতিমধ্যেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।”

আশ্রয়কেন্দ্রে থাকার সময়ে যাতে কারও খাবারের কোনো অভাব না হয় সে জন্য প্রয়োজনীয় শুকনো খাবার এবং দুধের ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী। তবে করোনার কারণে বর্তমানে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সেই বাড়িগুলোতেও ঘূর্ণিঝড়ের আশ্রয়স্থল করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সোমবার সকাল ১১টায় ঘূর্ণিঝড়টি বরিশাল থেকে ১১৪৭ কিমি দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিম আর খেপুপাড়া থেকে ১০৬০ কিমি দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে রয়েছে। বুধবার দুপুর থেকে রাতের মধ্যে এটি পশ্চিমবঙ্গের দিঘা এবং বাংলাদেশের হাতিয়া দ্বীপের মধ্যেবর্তী কোনো অঞ্চল দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করতে পারে। তবে সাগরদ্বীপ দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের ঢুকে উত্তর ২৪ পরগনা হয়ে বাংলাদেশে ঘূর্ণিঝড়টির চলে যাওয়ার সম্ভাবনাই সব থেকে বেশি।

আগামী বারো ঘণ্টার মধ্যে ঘূর্ণিঝড়টি সুপার সাইক্লোনের রূপ নিতে চলেছে। তবে কিছুটা স্বস্তির খবর এই যে আছড়ে পড়ার ঠিক আগে শক্তি বেশ অনেকটাই কমিয়ে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে সে।

ফলে পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড় ‘উম্পুন’-এর দাপটের অপেক্ষা করছে বাংলাদেশও।

Continue Reading

ট্রেন্ড্রিং