Connect with us

বাংলাদেশ

ঢাকার হাসপাতালে আগুন লেগে পাঁচ কোভিড রোগীর মৃত্যু

খবর অনলাইন ডেস্ক: বুধবার রাতে ঢাকার (Dhaka) ইউনাইটেড হাসপাতালের (United Hospital) আইসোলেশন ইউনিটে আগুন লেগে পাঁচ জন কোভিড ১৯ (Covid 19) রোগীর মৃত্যু হয়েছে। কোভিড ১৯-এর চিকিৎসার জন্য হাসপাতালের মূল ভবনের বাইরে অস্থায়ী ভাবে এই আইসোলেশন ইউনিট বানানো হয়েছিল।

গুলশন পুলিশের ওসি এসএম কামরুজ্জামান জানান, মৃতদের এখনও শনাক্ত করা যায়নি।

বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের ডিরেক্টর জেনারেল ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেন জানান, দমকল কর্মীরা অস্থায়ী আইসোলেশন ইউনিট থেকে পাঁচটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে।

কী করে আগুন লাগল, সে ব্যাপারে নিশ্চিত নন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল। তিনি বলেন, “তদন্তের পরে নিশ্চিত ভাবে বলা যাবে কী ভাবে আগুন লাগল।” তবে তিনি বলেন, আইসোলেশন ইউনিটে আগুন নেভানোর যথেষ্ট সরঞ্জাম ছিল না।

দমকল পরিষেবার ডিউটি অফিসার কামরুল ইসলাম জানান, রাত্রি ৯.৫৫ মিনিট নাগাদ আইসোলেশন ইউনিটে আগুন লাগে। দমকলের তিনটি ইনজিন ঘটনাস্থলে ছুটে যায় এবং সাড়ে ১০টা নাগাদ আগুন নেভায়।    

হাসপাতালের কমিউনিকেশন অ্যান্ড বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ইউনিটের প্রধান ডাঃ শাগুফা আনোয়ার বলেন, হাসপাতালের মূল ভবনের পাশে ব্যাডমিন্টন কোর্টে যে  করোনাভাইরাস আইসোলেশন ইউনিট বানানো হয়েছে, সেখানেই আগুন লাগে।

ক্রিকেট

করোনা পিছু ছাড়ছে না মাশরাফি বিন মুর্তজার

ঋদি হক: ঢাকা

বিপদটা কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না মাশরাফি! এ বারের পরীক্ষায়ও করোনা পজিটিভ এসেছে বাংলাদেশ (Bangladeesh) দলের সাবেক অধিনায়ক ও নড়াইল-২ (Narail 2) আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজার (Mashrafe Bin Mortaza)। এর আগে ২০ জুন পরীক্ষায় মাশরাফির করোনা শনাক্ত হয়। যথরীতি ১৪ দিন হোমকোয়ারান্টাইনে ছিলেন। দ্বিতীয় বার পরীক্ষায়ও ভাইরাস পজিটিভ মুর্তজার!

মুর্তজার ছোটো ভাই মোরসালিন বিন মাশরাফির করোনা (coronavirus) পজিটিভ আসে ২৩ জুন। তার আগে মাশরাফির শাশুড়িও করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। মাশরাফির চিকিৎসার দেখভাল করছেন প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক এ বি এম আবদুল্লাহ। মাশরাফির সর্বক্ষণ খোঁজখবর নিচ্ছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে (বিসিবি) মেডিক্যাল বিভাগ। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনই মাশরাফিকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবিএম আবদুল্লাহর সঙ্গে কথা বলে প্রেসক্রিপশনের ব্যবস্থা করেন।

বাংলাদেশে কোভিড ১৯

অপর দিকে বাংলাদেশে করোনা শনাক্তের ১১৯তম দিনে মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। বেড়েছে সুস্থতার হার। ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ২৯ জন, যা গতকালের চেয়ে ১৩ জন কম। এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৯৯৭ জন। শুক্রবারের চেয়ে শনিবার মৃত্যুহার কমেছে ০.০১ শতাংশ। শনিবার মৃত্যুর হার দাঁড়িয়েছে ১,২৫ শতাংশ। আগের দিন ছিল ১.২৬ শতাংশ। শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের তরফে জানানো হয়েছে, এ দিনে মৃত্যু হয়েছে ২৯ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৩,২৮৮ জন। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৬৭৯ জন।

৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা আক্রান্তর খবর আসে। এর ১০ দিনের মাথায় ১৮ মার্চ একজনের মৃত্যু হয়। এর পর ধীরে ধীরে আক্রান্তরের সংখ্যা বাড়লেও, মাত্রা এতটা জোরালো ছিলো না। কিন্তু ঈদের আগে পরে মানুষের বাধাহীন চলাচলের ফলে হু হু আক্রান্তর সংখ্যা বেড়ে যায়। আক্রান্তের সংখ্যা প্রতি দিন গড়ে ৪ হাজার ছাড়িয়ে যায়।

কোরবানির পশুর হাট

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কোরবানির পশুর হাট হচ্ছে একটা জনবিস্ফোরণের জায়গা। আক্রান্তের সংখ্যা যতটুকু কমার দিকে রয়েছে, অবাধ যাতায়তের ফলে তা আবার ভয়াবহ রূপ নিতে পারে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের এর্মাজেন্সি কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়েশা আক্তার বলেন, গেল ঈদে মানুষের অবাধ চলাচলই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার কারণ বলা হয়েছিল। কোরবানির পশুর হাটে সব সময়ই জনসমাগম হয়ে থাকে। তাতে সংক্রমণের ঘটনা বাড়াটাই স্বাভাবিক। আর বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রবিউল আলম বলেন, কোরবানির হাট মানেই জনসমাগম। এটা রোধ করা সম্ভব নয়।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৬৭৩ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৭০ হাজার ৭২১ জন। দেশে সুস্থতার হার এখন ৪৪.২৯ শতাংশ।

Continue Reading

দেশ

এক মাসে ভারত-বাংলাদেশ পণ্যবাহী শতাধিক ট্রেন চলেছে

ঋদি হক: ঢাকা

করোনা-প্রার্দুভাব ও লকডাউনের কারণে ভারত-বাংলাদেশ স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। ইদানীং সেই বাণিজ্য অবশ্য চালু হয়েছে। তবে এরই মধ্যে রেলপথে পণ্য পরিবহনের প্রস্তাব দেয় ভারত। ভারতের সেই প্রস্তাবকে স্বাগত জানায় বাংলাদেশ।

এর পর জুন মাসের গোড়া থেকেই দু’ দেশের মধ্যে রেলপথে পণ্য পরিবহণ শুরু হয়। বাংলাদেশ রেলওয়ে ও ভারতীয় রেলের ব্যবস্থাপনায় পণ্যবাহী ট্রেনগুলো চলাচল করেছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন সূত্র জানায়, এক মাসে ভারতীয় রেলের  ১০৩টি পণ্যবাহী ট্রেন পেঁয়াজ, আদা, মরিচ, ভুট্টা, হলুদ, ধানের বীজ, চিনি ইত্যাদি নিত্যপণ্য বাংলাদেশে সরবরাহ করেছে। করোনা মহামারিজনিত পরিস্থিতিতে লকডাউনের মধ্যেও দুই দেশের মধ্যে ট্রেনে পণ্য আনা-নেওয়া বেড়েছে। দুই দেশের রেলপথে এক মাসে শতাধিক পণ্যবাহী ট্রেন চলা একটা রেকর্ড।

ট্রেনে পণ্য সরবরাহের সাফল্য দেখে বাংলাদেশ রেলওয়ে দু’ দেশের মধ্যে পণ্যবাহী ট্রেন অর্থাৎ পার্সেল ট্রেন সেবা চালুর অনুমতি দিয়েছে। এর ফলে মালগাড়িপ্রতি ২৩৮ মেট্রিক টন পণ্য পরিবাহিত হবে।

আরও পড়ুন: চ্যাংরাবান্ধা দিয়ে শুরু হল ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্য

সম্প্রতি ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ একাধিক ভিডিও কনফারেন্সে বাংলাদেশের রেল মন্ত্রক, এনবিআর (ন্যাশনাল বোর্ড অব রেভেনিউ) ও বাণিজ্য মন্ত্রককে দুই দেশের মধ্যে ট্রেনে পণ্য আনা-নেওয়া সহজীকরণের ব্যাপারে অনুরোধ জানান। আলোচনার পরে এখন এনবিআর ও বাংলাদেশ রেলওয়ে বেনাপোল-পেট্রাপোল দিয়ে কনটেনার ট্রেন সেবা সহজ করার বিষয়ে একমত হয়েছে।

Continue Reading

দেশ

চ্যাংরাবান্ধা দিয়ে শুরু হল ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্য

ঋদি হক: ঢাকা

প্রায় সাড়ে তিন মাস পর ভারতের (India) চ্যাংরাবান্ধা স্থলবন্দর (Changrabandha Land Port) দিয়ে শুরু হল বৈদেশিক বাণিজ্য। মঙ্গলবার নবান্ন থেকে স্বয়ং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় চ্যাংরাবান্ধা দিয়ে বৈদেশিক বাণিজ্য চালু করার কথা ঘোষণা করতেই আশা ছিল হয়তো বুধবার থেকেই চালু হয়ে যাবে বাণিজ্য। তা অবশ্য হয়নি। এক দিন দেরিতে, বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হল দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য।

করোনার বিস্তার রুখতে চ্যাংরাবান্ধা দিয়ে বন্ধ রাখা হয়েছিল এই বাণিজ্য। বৃহস্পতিবার বিকালে স্থলবন্দরে উপস্থিত হন পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মন, এমএলএ ড. সৌরভ চক্রবর্তী, এমএলএ অর্ঘ রায় প্রধান, চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন কমিটির চেয়ারম্যান পরেশ অধিকারী এবং ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মন্ত্রী-এমএলএ’র হাত ধরেই বৈদেশিক বাণিজ্যের দুয়ার খোলে। একের পর এক পণ্যবোঝাই ট্রাক ঢুকতে থাকে বাংলাদেশে (Bangladesh)।

চ্যাংরাবান্ধা দিয়ে ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্য (Indo-Bangla Trade) শুরু হওয়ায় দু’ দেশের ব্যবসায়ীদেরই স্বস্তি ফিরেছে। বুড়িমারি (Burimari) স্থলবন্দরে ফের দেখা দিয়েছে কর্মচাঞ্চল্য।

আরও পড়ুন: বুধবার চ্যাংরাবান্ধা দিয়ে শুরু হচ্ছে ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্য

এখানকার ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, দু’ দেশের বাণিজ্য এত দিন বন্ধ থাকায় তাঁদের অনেক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে। সময়মতো পণ্য ডেলিভারি করা সম্ভব হয়নি। এ কারণে বহু বিলও আটকে রয়েছে। সবাই ঋণী। ও দিকে ব্যাঙ্কের তরফেও তাগাদা আসছে। তবু এত দিন পরে বাণিজ্য শুরু হওয়ায় তাঁরা খুশি। 

বৈদেশিক বাণিজ্য বন্ধ থাকায় ক্ষতির মুখে পড়েন বাংলাদেশের প্রায় সাড়ে তিনশো ব্যবসায়ী। ব্যবসায়ী নুরুজ্জামান জানান, আমদানিকৃত বিভিন্ন পণ্য দীর্ঘদিন ট্রাকে ছিল। ফলে তার কিছুটা তো নষ্ট হয়েছে। আবার কোনো কোনো পণ্যের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যাওয়ার সময় এসেছে।

তবে দীর্ঘ দিন পরও যে বন্দর চালু হয়েছে, তাতেই একটা আশার আলো দেখতে পাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা।

বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য পুনরায় চালু হওয়ায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ডুয়ার্স ইউনাইটেড ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক এবং যৌথ ব্যবসায়ী কমিটির অন্যতম নেতা উৎপল কুমার রায়। পাশাপাশি বৈদেশিক বাণিজ্য চালু করার ব্যাপারে স্থানীয় রাজনীতিক, মন্ত্রী, সকলেরই আন্তরিক প্রচেষ্টার উল্লেখ করেন তিনি।

উৎপলবাবু জানালেন, দীর্ঘদিন পরে হলেও ব্যবসায়ীরা একটা স্বস্তিদায়ক অবস্থায় ফিরেছেন।

Continue Reading
Advertisement
কলকাতা10 hours ago

শর্ট সার্কিট থেকে আগুন, বেহালায় পুড়ে মৃত্যু মা-মেয়ের

দেশ10 hours ago

করোনা মহামারিতে ‘ফুচকা’র জন্য গলা শুকোচ্ছে? এসে গেল ‘এটিএম’

দেশ11 hours ago

‘আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জ’ চালু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

রাজ্য11 hours ago

দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় নতুন রেকর্ড রাজ্যে, সুস্থতাতেও রেকর্ড

দেশ11 hours ago

১৫ আগস্ট? করোনা ভ্যাকসিনের দিনক্ষণ বেঁধে দেওয়া নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করল আইসিএমআর

ক্রিকেট12 hours ago

করোনা পিছু ছাড়ছে না মাশরাফি বিন মুর্তজার

দেশ12 hours ago

পাশের আসনে বসা নেতা করোনা আক্রান্ত! বিহারের মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে উদ্বেগ

LPG
প্রযুক্তি13 hours ago

রান্নার গ্যাসের ভরতুকির টাকা অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে কি না, কী ভাবে দেখবেন?

দেশ21 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২২,৭৭১, সুস্থ ১৪,৩৩৫

দেশ2 days ago

দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় নতুন রেকর্ড, সুস্থতাতেও রেকর্ড

ক্রিকেট3 days ago

চলে গেলেন ‘থ্রি ডব্লু’-এর শেষ জন স্যার এভার্টন উইকস, শেষ হল একটা অধ্যায়

কলকাতা19 hours ago

কলকাতায় অতিসংক্রমিত ১৬টি অঞ্চলকে পুরোপুরি সিল করে দেওয়ার প্রস্তুতি

ক্রিকেট3 days ago

২০১১ বিশ্বকাপ কাণ্ড: জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হল কুমার সঙ্গকারা, মাহেলা জয়বর্ধনকে

SBI ATM
শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল

দেশ2 days ago

‘সবার টিকা লাগবে না, আর পাঁচটা রোগের মতোই চলে যাবে করোনা’, আশ্বাস অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীর

wfh
ঘরদোর1 day ago

ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছেন? কাজের গুণমান বাড়াতে এই পরামর্শ মেনে চলুন

নজরে