Connect with us

দেশ

২০২১ সালেই বাংলাদেশ থেকে অসমের মহিসাশনে প্রবেশ করবে পণ্যবাহী ট্রেন

৫২.৫৪ কিলোমিটারের এই রেলপথটি ১৮৮৫ সালে অসম-বেঙ্গল রেলওয়ের অংশ হিসেবে কুলাউড়া-শাহবাজপুরের মধ্যে চালু হয়।

Published

on

আসলাম নামের এক যুবক বললেন, ওই তো মহিসাশন।

ঋদি হক: কালিকাবাড়ি-মহিষাশন সীমান্ত ঘুরে

করোনায় টানা ছ’ মাস বন্ধ থাকার পর ফের জোরকদমে এগোচ্ছে কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলপথের (Kulaura-Shahbazpur railway) কাজ। এই রেলপথটি বাংলাদেশের (Bangladesh) কালিকাবাড়ি (Kalikabari) সীমান্ত দিয়ে অসমের (Assam) মহিসাশন (Mahisashan) প্রবেশ করবে।

ভারতের ‘লাইন অব ক্রেডিট’-এর আওতায় ৪৪.৭৭ কিলোমিটার মেন লাইন এবং ৭.৭৭ কিলোমিটার লুপ লাইন নির্মাণ প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৪৪ কোটি ৮৬ লক্ষ ৭৭ হাজার ৬৩৯ টাকা। চুক্তির শর্ত অনুযায়ী ২৪ মাসে কাজ সম্পন্ন হওয়ার কথা ছিল। ভারতীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কালিন্দী রেলনির্মাণের সঙ্গে ২০১৭ সালের মে মাসে চুক্তি সম্পাদন করে বাংলাদেশ রেলমন্ত্রক। ওই বছরের ৬ জুন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলাদেশ সফরকালে প্রকল্পটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এর পর ২০১৮ সালের মে মাসে রেলপথ নির্মাণকাজে হাত লাগানো হয়। এই কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালের মে মাসে। কিন্তু নানা কারণে তা পিছিয়ে যায়। সরেজমিন ঘুরে তেমনটিই জানা গেল।

Loading videos...

‘লাতুর ট্রেন’

সময়ের পিঠ বেয়ে ইতিহাস পালটায়। প্রয়োজনের তাগিদে যেখানে শেষ, সেখান থেকেই ফের ইতিহাস শুরু করা হয়। এই রেলপথটির ইতিহাস অনেক পুরোনো। ৫২.৫৪ কিলোমিটারের এই রেলপথটি ১৮৮৫ সালে অসম-বেঙ্গল রেলওয়ের অংশ হিসেবে কুলাউড়া-শাহবাজপুরের মধ্যে চালু হয়। সিলেটের বড়লেখা উপজেলার লাতু সীমান্ত দিয়ে কুলাউড়া রেল জংশন হয়ে অসম রেলের ট্রেন যাতায়াত করত।

স্তূপীকৃত রেল।

স্বাধীনতা-পরবর্তী সময়ে কুলাউড়া-শাহবাজপুর চলাচলকারী একমাত্র ট্রেনটি ‘লাতুর ট্রেন’ নামে পরিচিত ছিল স্থানীয় সাধারণের কাছে, যা অযত্ন-অবহেলায় ২০০২ সালের ৭ জুলাই বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৫ সালের ২৬ মে ৬৭৮ কোটি টাকা ব্যয়ে কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলপথ পুনঃস্থাপন প্রকল্প অনুমোদন করে হাসিনা সরকার। যার মধ্যে ১২২ কোটি ৫২ লাখ টাকা বাংলাদেশ এবং ৫৫৫ কোটি ৯৯ লাখ টাকা দেবে ভারত।

১৯৭১ সালে তদানীন্তন পূর্ববঙ্গের আমজনতার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছিল পাক হানাদার বাহিনী। তাদের ‘বর্বর নৃশংসতম অত্যাচার’ এখন ইতিহাস। ’৭১ সালে প্রায় কোটি মানুষ আশ্রয় নিয়েছিল ভারতের বিভিন্ন স্থানে। অসমও দুই হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল। ন’ মাসের মুক্তিযুদ্ধের অবসান ঘটে লালসবুজে খচিত পতাকা অর্জনের মধ্য দিয়ে। ’৭১ সালেও অসমের মহিসাশন পর্যন্ত রেলসংযোগ সচল ছিল।

১৯ বছর পরে জেগে ওঠবে কালের সাক্ষী

মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলপ্রকল্পের অধীনে এবং ভারতের অর্থায়নে ফের জেগে ওঠবে কালের সাক্ষী রেলপথটি। এটি বড়লেখা থানার শেষ প্রান্ত কালিকাবাড়ির বুক চিরে প্রবেশ করবে অসমের মহিসাশনে। মাইল তিনেক আগে রাস্তায় স্তূপীকৃত অবস্থায় রেল দেখতে পেয়ে গাড়ি থামিয়ে নামতেই নজরে এল একজন প্রকৌশলী কংক্রিট তৈরির মেশিন বসানোর কাজ তদারকি করছেন। নাম বললেন আনওয়াতুল। পাশ দিয়ে সবুজ গাছগাছালির মধ্যে দিয়ে সরীসৃপের মতো এগিয়ে যাওয়া রাস্তাটি দেখিয়ে বললেন, মাত্র তিন কিলোমিটার পথ। তার পরই মহিসাশন।

চলছে নির্মাণকাজ।

গাড়ি গিয়ে থামল কালিকাবাড়ি চা বাগানের পাশে। অনতিদূরে মহিসাশন। সীমান্ত এলাকা। তাই সামনে এগোতে বারন করলেন এলাকার এক বৃদ্ধ। আসলাম নামের এক যুবক বললেন, ওই তো মহিসাশন। রেলপথের দিকে তাকিয়ে আবেগ আপ্লুত আসলাম। মনে হল তিনি দেখতে পাচ্ছেন, ভারী হুইসেল বাজিয়ে অসম থেকে ‘লাতুর ট্রেন’ আসছে। ফের রেলপথ চালু হলে এলাকার উন্নয়ন হবে, এমন প্রত্যাশা বুকে পুষে আছেন এই যুবক। 

কাঙ্ক্ষিত পথে হুইসেল বাজবে না ডিসেম্বরে

আসছে ডিসেম্বরে কাঙ্ক্ষিত পথে ট্রেনের হুইসেল বাজবে না, সরেজমিন তাই দেখা গেল। বেশ কয়েকটি ব্রিজের আংশিক কাজ বাকি। ইয়ার্ডের নির্মাণকাজে হাত দেওয়া হয়েছে। নির্ধারিত সময়ে কাজ সম্পন্ন না হওয়ার আরও একটি বড়ো কারণ করোনা। প্রকল্প শুরুর পর এটিই সব চেয়ে বড়ো ধাক্কা। দীর্ঘ ছয় মাস কাজ বন্ধ থাকার পর ফের শুরু হয়েছে। ফলে অনেক পিছিয়েছে নির্মাণকাজ।

বাংলাদেশের চট্টগ্রাম ও মোংলা বন্দর থেকে রেলযোগে সরাসরি পণ্য আসবে অসম-সহ উত্তরপূর্বের রাজ্যগুলোতে। কলকাতা থেকেও আসবে পণ্যবাহী ট্রেন। সম্ভাবনাময় এই রেলপথটি ঘিরে উভয় দেশের অর্থনীতির চাকা সচল হবে। বিশেষ করে উত্তরপূর্ব ভারতে পণ্যপরিবহন সহজ হবে।

শাহবাজপুর রেলস্টেশনের নতুন ভবন

সরেজমিনে কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলওয়ে প্রকল্প পরিদর্শনকালে দেখা গিয়েছে, শাহবাজপুর রেলস্টেশনটিতে নতুন ভবন নির্মাণ ইতিমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে। এখানে প্রকল্পের লোকজন রয়েছেন, রাখা আছে নির্মাণের নানা সামগ্রী।

শাহবাজপুর রেলস্টেশনের নতুন ভবন তৈরি হচ্ছে।

একজন জানালেন, করোনার প্রাদুর্ভাব কমে আসায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন ফিরেছেন। বর্তমানে জোরকদমে কাজ এগিয়ে চলছে। তাঁর মতে, এই গতিতে কাজ এগোলে ২০২১ সালের মাঝামাঝি পণ্যবাহী ট্রেন হুইসেল বাজিয়ে প্রবেশ করবে অসমের মহিসাশনে। সে দিনের অপেক্ষায় দিন গুনছেন হাজারো মানুষ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

করোনায় স্থবির শেওলা-সূতারকান্দি স্থলবন্দরের অর্থনীতির চাকা

দেশ

মাত্র ১৮ শতাংশ ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার চালিয়ে যেতে পারেন, ৩৬ শতাংশ কমিয়ে দেবেন ব্যবহার: সমীক্ষা

জনপ্রিয়তা বাড়ছে টেলিগ্রামের।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি পলিসি বদল নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই গোটা বিশ্ব তোলপাড়। চাপে পড়ে অনলাইন মেসেজিং অ্যাপের কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দিয়েছে এখনই নীতিতে বদল তারা আনছে না। কিন্তু এরই মধ্যে চমকপ্রদ একটি তথ্য ধরা দিল সমীক্ষায়। দেখা গিয়েছে, এই বিতর্কের জেরে বিশাল সংখ্যক ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার বন্ধ বা কমিয়ে দিতে পারেন।

সামাজিক গণমাধ্যমের একটি প্ল্যাটফর্ম LocalCircles এই সমীক্ষাটি চালিয়েছে। এই সমীক্ষায় অংশ নিয়েছিল ৮ হাজার ৯৭৭ জন ভারতীয়। এর মধ্যে মাত্র ১৮ শতাংশ অংশগ্রহণকারী জানিয়েছেন যে তাঁরা হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার আগের মতো চালিয়ে যেতে পারেন।

এ ছাড়া, ৩৬ শতাংশ জানিয়েছেন যে তাঁরা হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করলেও তা আগের থেকে অনেকটাই কমিয়ে দেবেন। ১৫ শতাংশ জানিয়েছেন যে তাঁরা হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করা এক্কেবারেই বন্ধ করে দেবেন।

Loading videos...

২৪ শতাংশ অংশগ্রহণকারী জানিয়েছেন যে তাঁরা হোয়াটসঅ্যাপের বদলে টেলিগ্রাম (Telegram) বা সিগন্যাল (Signal) ব্যবহার শুরু করতে পারেন। ৯১ শতাংশ জানিয়েছেন যে তাঁরা হোয়াটসঅ্যাপের আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত ফিচারটি ব্যবহার করবেন না।

জানা গিয়েছে, জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে দ্বিতীয় সপ্তাহে ভারতে হোয়াটসঅ্যাপের ডাউনলোড ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত কমে গিয়েছে। অন্য দিকে টেলিগ্রামের ডাউনলোড বেড়েছে অনেকটাই।

হোয়াটসঅ্যাপের সাফাই

প্রাইভেসি পলিসির বদল হোক আর না হোক, গ্রাহকদের তথ্য যে সুরক্ষিত এই কথাটা প্রমাণ করতে নানা পন্থার অবলম্বন করতে হচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপকে। চলতি সপ্তাহের প্রথমেই ভারতের নামজাদা একাধিক সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দিয়েছিল এই ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম।

রবিবার, ১৭ জানুয়ারি বিশ্বব্যাপী ইউজারদের মোবাইলে হোয়াটসঅ্যাপের স্ট্যাটাস এল। সেখানে ছবি দিয়ে হোয়াটসঅ্যাপের বার্তা, গ্রাহকের গোপনীয়তা রক্ষা করতে তারা এক প্রকার দায়বদ্ধ।

সেই স্ট্যাটাসে হোয়াটসঅ্যাপ বলে, ‘আপনার গোপনীয়তা রক্ষা করতে আমরা দায়বদ্ধ’, ‘হোয়াটসঅ্যাপ আপনার ব্যক্তিগত কথোপকথন শুনতে বা পড়তে পারে না, কারণ এতে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন রয়েছে’, ‘আপনার শেয়ার করা লোকেশন দেখতে পায় না হোয়াটসঅ্যাপ।’

এ দিকে শনিবারই সকালেই হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়ে দেয় যে, প্রাইভেসি পলিসি এখনই বদলাচ্ছে না। অর্থাৎ ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে হোয়াটসঅ্যাপের গোপনীয়তার নয়া নীতি ও শর্তাবলি না মানলে ইউজারদের অ্যাকাউন্ট ডিলিট হওয়ার ভয় এই মুহূর্তে থাকছে না। তবে তারা জানিয়েছে যে ‘নয়া নীতি সম্পর্কে গ্রাহকেরা স্বেচ্ছায় রিভিউ জানানোর পরই আমরা ১৫ মে থেকে নতুন প্রাইভেসি পলিসি লাগু করব’।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

মহারাষ্ট্র-কেরলে সংক্রমিত ৮০৮৬ বাকি দেশে মাত্র ৫০৭২, ২৩ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক মৃত্যু ভারতে

Continue Reading

দেশ

মহারাষ্ট্র-কেরলে সংক্রমিত ৮০৮৬ বাকি দেশে মাত্র ৫০৭২, ২৩ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক মৃত্যু ভারতে

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে মাত্র ১৪৫ জনের।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: যত দিন যাচ্ছে ভারতে করোনার গ্রাফটা আরও বেশি করে নিম্নমুখী হচ্ছে। আর ততই একটি বিভাজনও প্রকট হয়ে যাচ্ছে। ভারতে বর্তমানে করোনার যা চিত্র তাতে দেখা যাচ্ছে যে দৈনিক সংক্রমিতের সংখ্যার ৬০ শতাংশই রেকর্ড করা হচ্ছে মাত্র দু’টি রাজ্যে।

এ দিকে মৃতের সংখ্যা এবং সংক্রমণের হারও ক্রমশ কমছে ভারতে। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি যে ভালো হচ্ছে তাতে কোনো সন্দেহই নেই।

নতুন আক্রান্ত ১৩ হাজারের একটু বেশি

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) তথ্য অনুযায়ী সোমবার ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ৫ লক্ষ ৭১ হাজার ৭৭৩। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৩ হাজার ৭৮৮ জন।

Loading videos...

এ দিন ভারতে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৮ হাজার ১২। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে সক্রিয় রোগী কমেছে ৮১৪ জন। বর্তমানে দেশে মাত্র ১.৯৬ শতাংশ কোভিডরোগী বর্তমানে চিকিৎসাধীন।

কী ভাবে লাগাম পড়ছে সংক্রমণে

সংক্রমণ কী ভাবে কমছে, সেটা সংক্রমণের হারটা দেখে বুঝতে হয়। বর্তমানে দেশে দৈনিক সংক্রমণের হার ২ শতাংশের আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে। অর্থাৎ এখন দেশে প্রতি ১০০ টেস্টে দৈনিক আক্রান্ত হচ্ছেন গড়ে ২ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ লক্ষ ৪৮ হাজার ১৬৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। ফলে এ দিন দৈনিক সংক্রমণের হার ছিল ২.৫১ শতাংশ।

এ দিকে সামগ্রিক সংক্রমণের হার আরও কমছে। ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত ভারতে মোট ১৮ কোটি ৭০ লক্ষ ৯৩ হাজার ৩৬টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর বিপরীতে এখন মাত্র ৫.৬৫ শতাংশ মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। এই সংক্রমণের হার আগামী দিনে আরও কমবে এই আশা করাই যায়।

সংক্রমণ কোথায় কেমন?

দেশের বর্তমানে দু’টি রাজ্যে সংক্রমণ থাকছে চার সংখ্যায়। সে গুলি হল কেরল (৫,০০৫), মহারাষ্ট্র (৩,০৮১) । মহারাষ্ট্রে সংক্রমণে অনেকটাই লাগাম পড়লেও কেরল এখনও চিন্তায় রাখছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রককে।

তিন অঙ্কের সংক্রমণে যে যে জায়গায় সংক্রমণ গত ২৪ ঘণ্টায় তুলনামূলক বেশি ছিল সেগুলি হল কর্নাটক (৭৪৫), তামিলনাড়ু (৫৮৯), পশ্চিমবঙ্গ (৫৬৫), গুজরাত (৫১৮),

সুস্থ হলেন ১৪ হাজারের কিছু বেশি

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে সুস্থতার সংখ্যাটি ১৪ হাজারের বেশি রেকর্ড করা হয়েছে। ১৪ হাজার ৫৫৭ জনের সুস্থতার ফলে ভারতে এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হলেন ১ কোটি ২ লক্ষ ১১ হাজার ৩৪২ জন। দেশে সুস্থতার হার বেড়ে হল ৯৬.৫৯ শতাংশ।

মৃতের সংখ্যা ২৪০ দিনে সর্বনিম্ন

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে কোভিডের কারণে মৃত্যু হয়েছে ১৪৫ জনের। এটা ২৪০ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন সংখ্যা, কারণ শেষ বার এত কম সংখ্যক মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছিল গত ২৩ মে।

এখনও পর্যন্ত ভারত ১ লক্ষ ৫২ হাজার ৪১৯ জনের মৃত্যু কোভিডের কারণে হয়েছে। দেশে মৃত্যুহার রয়েছে ১.৪৪ শতাংশে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

দক্ষিণবঙ্গে দু’দিনের জন্য তাপমাত্রা বাড়লেও ফের ফিরবে শীত, উত্তরের পাহাড়ে তুষারপাতের সম্ভাবনা

Continue Reading

দেশ

রবিবার ভারতে ১৭ হাজার জনকে টিকা, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা কম, জানাল স্বাস্থ্য মন্ত্রক

রবিবার দেশের মাত্র ছ’টি রাজ্যে টিকাকরণ প্রক্রিয়া চলেছে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: শনিবার ১৬ জানুয়ারি অর্থাৎ কোভিডের টিকাকরণের প্রথম দিন ভারতে ১ লক্ষ ৯১ হাজার মানুষের ওপরে কোভিডের টিকা প্রয়োগ করা হয়েছিল। রবিবার সেটা এক লাফে অনেকটাই কমে গেল। ওই দিন টিকা দেওয়া হয়েছে ১৭ হাজার জনকে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে এমনই জানানো হয়েছে। সেই সঙ্গে আরও বলা হয়েছে যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা অনেক কম রেকর্ড করা হয়েছে।

রবিবার কেন কম মানুষকে টিকা?

শনিবার দেশের ৩,০০৬টি কেন্দ্রে ১ লক্ষ ৯১ হাজার মানুষের ওপরে টিকা প্রয়োগ করা হয়েছিল। রবিবার কিন্তু ৫৫৩টি কেন্দ্রে এই টিকাকরণ প্রক্রিয়া হয়েছে। টিকা দেওয়া হয়েছে দেশের মাত্র ছ’টি রাজ্য– অন্ধ্রপ্রদেশ, অরুণাচল প্রদেশ, কেরল, কর্নাটক, তামিলনাড়ু এবং মণিপুরে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রের খবর, প্রথম দিনের তুলনায় দ্বিতীয় দিন টিকাকরণ কম হওয়াটা আসলে সরকারের পরিকল্পনারই অংশ। কেন্দ্র এমন ভাবে টিকাকরণ করতে চাইছে, যাতে অন্যান্য রোগের টিকাকরণে কোনো সমস্যা না হয়।

Loading videos...

কেন্দ্র জানিয়েছে, বেশির ভাগ রাজ্যই সপ্তাহে চার দিন টিকাকরণ প্রক্রিয়া করবে বলেছে। তবে উত্তরপ্রদেশ এবং গোয়া সপ্তাহের মাত্র দুটো দিন, মিজোরাম পাঁচ এবং অন্ধ্রপ্রদেশ ছ’টি দিন এই প্রক্রিয়া চালাতে চায়।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা কম

রবিবার ক’ জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে, সেই সংখ্যাটা বিস্তারিত না বললেও কেন্দ্র জানিয়েছে যে প্রথম দু’ দিনের টিকাকরণের পর গোটা দেশে ৪৪৭ জন গ্রহীতার শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে মাত্র ৩ জনকে হাসপাতালে ভরতি করতে হয়েছে। যদিও তাঁরা প্রত্যেকেই বিপন্মুক্ত।

ইনজেকশন নেওয়ার জায়গাটা ফুলে যাওয়া, হালকা গা-বমি ভাব ছিল এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ধরন। ভারতে এই মুহূর্তে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি তথা সেরাম ইন্সটিটিউটের প্রস্তুত করা টিকা কোভিশিল্ড এবং ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন দিয়ে এই টিকাকরণ প্রক্রিয়া চলছে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

রাজ্যে ছ’শোর নীচে নামল দৈনিক কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
দেশ15 mins ago

মাত্র ১৮ শতাংশ ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার চালিয়ে যেতে পারেন, ৩৬ শতাংশ কমিয়ে দেবেন ব্যবহার: সমীক্ষা

কেনাকাটা25 mins ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

দেশ57 mins ago

মহারাষ্ট্র-কেরলে সংক্রমিত ৮০৮৬ বাকি দেশে মাত্র ৫০৭২, ২৩ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক মৃত্যু ভারতে

রাজ্য1 hour ago

দক্ষিণবঙ্গে দু’ দিনের জন্য তাপমাত্রা বাড়লেও ফের ফিরবে শীত, উত্তরের পাহাড়ে তুষারপাতের সম্ভাবনা

কলকাতা2 hours ago

আজ থেকে আর প্রয়োজন নেই ই–পাসের, খুলছে বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনের একাধিক গেটও

antonio lopez habas
ফুটবল2 hours ago

জিততে না পারলেও হতাশ নন আন্তোনিও লোপেজ আবাস

দেশ2 hours ago

রবিবার ভারতে ১৭ হাজার জনকে টিকা, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা কম, জানাল স্বাস্থ্য মন্ত্রক

ফুটবল10 hours ago

এগিয়ে থেকেও ড্র করে পয়েন্ট খোয়াল এটিকে মোহনবাগান

রাজ্য2 days ago

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করতে সিপিএমের লাইনেই খেলছেন শুভেন্দু অধিকারী

দেশ3 days ago

নবম দফার বৈঠকেও কাটল না জট, ফের কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসবে কেন্দ্র

প্রযুক্তি3 days ago

হোয়াটসঅ্যাপে এ ভাবে সেটিং করলে আপনার আলাপচারিতা কেউ দেখতে পাবে না এবং তথ্যও থাকবে নিরাপদে

ক্রিকেট3 days ago

অভিষেকে লড়াকু নটরাজন, সুন্দর, অস্ট্রেলিয়া ২৭৪

রাজ্য3 days ago

দিল্লি যাচ্ছেন শতাব্দী রায়, জিইয়ে রাখলেন অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাতের সম্ভাবনা

রাজ্য3 days ago

রোজভ্যালি-কাণ্ডে শুভ্রা কুণ্ডুকে গ্রেফতার করল সিবিআই

শরীরস্বাস্থ্য3 days ago

কেন খাবেন মেথি?

election commission of india
রাজ্য3 days ago

ভোট প্রস্তুতি তুঙ্গে! রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

কেনাকাটা

কেনাকাটা25 mins ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা6 days ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা1 week ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 weeks ago

ম্যাক্সিড্রেসের নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুন্দর ম্যাক্সিড্রেসের চাহিদা এখন তুঙ্গে। সামনেই কোনো আনন্দ অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ থাকলে ম্যাক্সি পরতে পারেন। বাছাই করা কয়েকটি ড্রেসের...

কেনাকাটা2 weeks ago

রকমারি ডিজাইনের ৯টি পুঁটলি ব্যাগের কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুমে নিমন্ত্রণে যেতে সাজের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগ নেওয়ার চল রয়েছে। অনেকেই ডিজাইনার ব্যাগ পছন্দ করেন। তেমনই কয়েকটি...

কেনাকাটা2 weeks ago

কস্টিউম জুয়েলারির দারুণ কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুম আসছে। নিমন্ত্রণবাড়ি তো লেগেই থাকে। সেখানে আজকাল সোনার গয়নার থেকে কস্টিউম বা জাঙ্ক জুয়েলারি পরে যাওয়ার...

কেনাকাটা3 weeks ago

রুম হিটারের কালেকশন, ৬৫০ থেকে শুরু

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভালোই শীত চলছে। এই সময় রুম হিটারের প্রয়োজনীয়তা খুবই। তা সে ঘরের জন্যই হোক বা অফিস, বা কোথাও...

কেনাকাটা3 weeks ago

চোখের যত্ন নিতে কিনুন এগুলি, খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনেকেই আছেন সারা দিনের ব্যস্ততার মাঝে যদিও বা পা, হাত বা মুখের টুকটাক যত্ন নেন, কিন্তু চোখের বিশেষ...

কেনাকাটা4 weeks ago

ফিলগুড প্রোডাক্ট! পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দিনের মধ্যে কিছু সময় যদি নিজের মতো করে নিজের জন্য দেওয়া যায় তা হলে মন যেমন ভালো থাকে...

নজরে