Connect with us

বাংলাদেশ

ঘরমুখো মানুষের ঢল ঢাকার সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে, স্বাস্থ্যবিধি চুলোয়

মাসের পনেরো তারিখ থেকে ফিরতি পালার চিত্র আরও ভয়ানক হবে। তখন এর থেকেও বেশি ভিড় থাকবে দক্ষিণ জনপদের সকল ঘাটে।

Published

on

ঋদি হক: ঢাকা

বর্তমানে অর্থনৈতিক ভাবে উন্নয়নশীল বাংলাদেশের (Bangladesh) চেহারা পালটে গেছে। ঈদ-পার্বণ নয়, সারা বছরই বাজারে ভিড় লেগে থাকে। ঈদের মরশুমে তো কথাই নেই। সেই সকাল থেকে বেচাকেনা শুরু হয়ে চলে গভীর রাত পর্যন্ত। আর ঈদ-পার্বণে (Eid festival) ঘর-যাত্রার বিষয়ে তো বলার কিছু নেই। করোনায় জনসমাগম থেকে দৈহিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি ধীরে ধীরে যেন উঠে যাচ্ছে বাংলাদেশে। 

গ্রামগঞ্জে সাধারণ সময়ের মতোই মানুষের চলাফেরা চলছে।হাটে-বাজারে ভিড় করে সওদা করা ইত্যাদি নিত্যকর্ম চলছেই। এ সব কাজ করতে গিয়ে সিংহভাগ মানুষ মাস্ক পরার প্রয়োজন বোধ করছেন না। অথচ করোনার বিস্তার থেমে নেই। 

বাংলাদেশের প্রধান নদী বন্দর ঢাকার সদরঘাট (Sadarghat)। ব্রিটিশ আমলেই বুড়িগঙ্গা তীরে স্টিমারঘাটের গোড়াপত্তন। কলকাতা থেকে চাঁদপুর হয়ে ঢাকায় পা রাখতেন সাহেবরা। সে কথা এখন অতীত।

ঈদের দ্বিতীয় দিনে সদরঘাট নদীবন্দরে গিয়ে বোঝা গেল এটা অন্য বাংলাদেশ।  নদীবন্দরের এক কিলোমিটার দূর থেকে যানজট। দীর্ঘ যানজট ঠেলে সদরঘাট টার্মিনালে পৌঁছোনোর আগে দেখা গেল বেসামাল পরিস্থিতি। লোকে লোকারণ্য।  মাস্কের বালাই নেই। দৈহিক দূরত্ব? এ কথা কাকে বলছেন মশাই। এ সব কি ভাবার সময় রয়েছে তাদের! কার আগে কে কোন লঞ্চে জায়গা নেবে সেই প্রতিযোগিতায় ব্যস্ত। এখানে মাস্কের কথা কেন?

তিন/চার তলা বিশাল লঞ্চ। সময়ের অনেক আগেই যাত্রী বোঝাই করে ঘাট ত্যাগ করছে দক্ষিণের পথে।

সদরঘাট থেকে দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের ৪৫টি নৌরুটে প্রতি দিন শতাধিক নৌযান যাতায়াত করে। এক একটি লঞ্চের কোনো কোনোটিতে শতাধিক কেবিন রয়েছে।  ভিআইপি কেবিনের ব্যবস্থা তো আছেই।

ঢাকা-বরিশাল নন এসি সিঙ্গেল কেবিন এক হাজার টাকা। তা-ও টিকিট মেলে না। সদরঘাটে কর্মরত বিআইডব্লিউটিএ-র (বাংলাদেশ ইনল্যান্ড ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট অথরিটি, BIWTA) কর্মকর্তারা ‘খবর অনলাইন’কে বলেন, চলতি সপ্তাহের পুরোটাই এমন চিত্র থাকবে।

দৈহিক দূরত্বের বিষয়টি না মানার বিষয়ে একজন জানালেন, মাইকিং করতে করতে তাঁদের গলার বারোটা বেজে যাচ্ছে। তার পরও এমন ভিড়ে কারও কোনো কথাই কেউ শুনছে না। তাঁরা আরও জানালেন, এটা কেবল যাওয়ার ছবিটা দেখছেন।  মাসের পনেরো তারিখ থেকে ফিরতি পালার চিত্র আরও ভয়ানক হবে। তখন এর থেকেও বেশি ভিড় থাকবে দক্ষিণ জনপদের সকল ঘাটে।

বাংলাদেশ

১১ ঘন্টায় ৪৩৩ মিলিমিটার! রেকর্ড গড়ে ডুবল উত্তর বাংলাদেশের জনপথ রংপুর

নগরীর বাবু খাঁ ও কামারপাড়া, জুম্মাপাড়া, কেরানিপাড়া, আলমনগর, হনুমানতলা, মুন্সিপাড়া, গণেশপুর ইত্যাদি এলাকার অন্তত ৫০/৬০টি মহল্লার প্রধান সড়ক তলিয়ে গেছে।

Published

on

flooded Rangpur
জলমগ্ন রংপুর।

ঋদি হক: ঢাকা

আবহাওয়া অফিসের খাতাপত্রে এমন টানা বৃষ্টির নজির টানা ৬০ বছরের মধ্যে নেই। আর ১১ ঘন্টায় ৪৩৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত! ও যে শ’ বছরের রেকর্ড ভেঙেছে।

রাস্তাঘাট, দোকানপাট, অফিস-আদালত, বাড়িঘর – রংপুরের (Rangpur) সর্বত্র জলে জলময়। রাস্তার অনেক স্থানে কোমরভাঙা জল। বাড়িঘরের ভেতরে হাঁটুজলে ময়লা-আবর্জনা ভাসছে। ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে হাঁটুজলে দাড়িয়ে লাল রঙা গাড়ি। এ সব দেখে রংপুরবাসী রীতিমতো বাকরুদ্ধ। শহরের চারিদিকে জল আর জল।

আবহাওয়া অফিসের তরফে বলা হয়েছে, একনাগাড়ে এমন বৃষ্টি গত শ’ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। রংপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, শনিবার রাত ১০টা থেকে রবিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ১১ ঘণ্টায় ৪৩৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। গত ৬০ বছরে এমন একটানা বৃষ্টিপাত দেখার কথা স্মরণ করতে পারেননি শহরের কোনো মানুষ।

রংপুর বিভাগীয় শহর হলেও রাস্তাঘাট বেশ উন্নত। এর জন্য কৃতিত্ব প্রাপ্য বাংলাদেশের (Bangladesh) প্রয়াত রাষ্ট্রপতি হুসেন মহম্মদ এরশাদের। কারণ, তিনিই রংপুরের রাস্তায় দামি বাতি লাগিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। যত দিন বেঁচেছিলেন, তত দিন রংপুরের মানুষও তাঁকে ফিরিয়ে দেয়নি। প্রতিদান হিসেবে তাঁর দলের মনোনয়ন নিয়ে যিনিই ভোটে দাঁড়িয়েছেন, তাঁকেই জিতিয়েছে রংপুর।

কী অবস্থা রংপুরের

সেই রংপুর ও তার আশপাশের এলাকায় স্মরণকালের মধ্যে ভয়াবহ বৃষ্টি হয়েছে। এ বৃষ্টিতে নগরীর অন্তত ৬০টি মহল্লা হাঁটু থেকে কোমরডোবা জলে তলিয়ে গেছে। বাড়ি-ঘর জলমগ্ন। এর ফলে অন্তত এক লাখ মানুষ জলবন্দি হয়ে পড়েছেন। তাঁরা এখন বাড়িঘর ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গেছেন। বেশির ভাগ রাস্তা-ঘাট দিয়ে গাড়ি চলাচল প্রায় বন্ধ। নগরবাসীর চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। 

নগরীর বাবু খাঁ ও কামারপাড়া, জুম্মাপাড়া, কেরানিপাড়া, আলমনগর, হনুমানতলা, মুন্সিপাড়া, গণেশপুর ইত্যাদি এলাকার অন্তত ৫০/৬০টি মহল্লার প্রধান সড়ক তলিয়ে গেছে। এ সব এলাকার বাড়িঘরে জল ঢুকে বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। জলবন্দি হাজার হাজার পরিবার বাড়ি-ঘর ছেড়ে পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছে। টানা বৃষ্টিতে গভীর রাতে ঘরের ভেতরে জল ঢুকে পড়ে বেশির ভাগ বাড়ির টিভি ফ্রিজ-সহ বিভিন্ন নিত্যসামগ্রী ও মূল্যবান আসবাবপত্র জলে তলিয়ে যায়।

শহরের বাসিন্দা আসমা বেগম জানান, রাত ৩টার দিকে তাঁর ঘুম ভেঙে যায়। তিনি বাথরুমে যাওয়ার জন্য বিছানা থেকে নেমে দেখেন ঘরের ভেতরে হাঁটুজল। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে জলও বাড়তে থাকে। সকাল ৭টার মধ্যে বাড়ির উঠানসহ ঘরের ভেতর কোমরডোবা জল। খাটবিছানা সব জলে ভাসতে থাকে।

সোমবারের অবস্থা ও পূর্বাভাস

দুর্ভোগের ক্ষত রেখে রংপুরের জল নামতে শুরু করেছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী দুই দিন অবস্থা ভালো থাকবে। মৌসুমী বায়ু সচল রয়েছে। যার অবস্থান বর্তমানে ভারতের বিহারে। দুদিনের মাথায় তা ফের বাংলাদেশের উত্তর জনপদ দিয়ে প্রবেশ করবে এবং মৌসুমের শেষ বৃষ্টি ঝরিয়ে বঙ্গোপসাগরে চলে যাবে।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

হাসিনার জন্মদিনে ভারতের শুভেচ্ছা, মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্মরণ হাসিনার

Continue Reading

দেশ

হাসিনার জন্মদিনে ভারতের শুভেচ্ছা, মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্মরণ হাসিনার

দুই দেশের সম্পর্কের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকা কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করেছেন নরেন্দ্র মোদী।

Published

on

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ফাইল চিত্র।

ঋদি হক: ঢাকা

“শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছে।” রবিবার বাংলাদেশের (Bangladesh) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার (Sheikh Hasina) জন্মদিনে বিশেষ শুভেচ্ছাবার্তায় এ কথা বলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী (Indian PM) নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। দুই দেশের সম্পর্কের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকা কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করেছেন নরেন্দ্র মোদী।

ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাশ রবিবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রী হাসিনার সঙ্গে বিদায়-সাক্ষাৎ করেন। সেই সময়েই তিনি প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর  পাঠানো বিশেষ শুভেচ্ছাবার্তাটি শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্মরণ করেন। এবং বলেন, ভারতের জনগণ ও রাজনৈতিক দল বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে অভূতপূর্ব সমর্থন জানিয়েছিল। একই ভাবে তারা বাংলাদেশের সঙ্গে ঐতিহাসিক স্থলসীমা চুক্তিকেও সমর্থন জানিয়েছে।

সাক্ষাৎকালে ভারতীয় হাই কমিশনার ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভারত-সফরের কিছু দুর্লভ ফুটেজ প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেন। শেখ হাসিনা ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক সুদৃঢ় করার ক্ষেত্রে অবদানের জন্য বিদায়ী হাই কমিশনারকে ধন্যবাদ জানান এবং বিদেশ মন্ত্রকের সচিব (পূর্ব) হিসেবে তাঁর পরবর্তী কর্মজীবনের জন্য শুভকামনা জানান।

মঙ্গলবার ভারত এবং বাংলাদেশের দুই বিদেশমন্ত্রীর যে ভার্চুয়াল বৈঠক হতে চলেছে, সে ব্যাপারেও শেখ হাসিনাকে অবহিত করেন ভারতের হাইকমিশনার। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা আরও জোরদার করা প্রয়োজন।

হাসিনা বলেন, “আমরা সব সময়ই মনে করি অঞ্চলিক উন্নয়নের জন্য প্রথমেই প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে আরও বেশি সহযোগিতামূলক সম্পর্ক প্রয়োজন। কারণ, বৈদেশিক নীতির মূল মন্ত্র হল সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব এবং কারও প্রতি বিদ্বেষ নয়।”

রিভা গাঙ্গুলি দাশ প্রতিবেশীদের সম্পর্কে ভারতের নীতিতে বাংলাদেশের গুরুত্বের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে দুই দেশের মধ্যে যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অগ্রগতি হয়েছে তা তুলে ধরেন। মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তী এবং পরের বছরে বাংলাদেশের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পঞ্চাশতম বার্ষিকী উদযাপন বিষয়েও প্রধানমন্ত্রী ও ভারতের বিদায়ী হাই কমিশনারের মধ্যে আলোচনা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের বিদায়ী হাই কমিশনারের মধ্যে সাক্ষাতের সময়ে  প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস এবং ঢাকায় ভারতের ডেপুটি হাইকমিশনার বিশ্বদীপ দে-ও উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী এবং ভারতের হাইকমিশনার সাক্ষাতে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়াবলি নিয়ে আলোচনা করেন। কোভিড-১৯ পরিস্থিতি এবং দীর্ঘায়িত রোহিঙ্গা সমস্যাও আলোচনায় উঠে আসে, বলেন প্রেস সচিব।

এ প্রসঙ্গে রিভা গাঙ্গুলী দাশ বলেন, এই ব্যাধির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দুই দেশই একসঙ্গে কাজ করছে। এই মহামারির বিস্তার রোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপগুলোর প্রশংসা করেন তিনি। হাইকমিশনার কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নেরও প্রশংসা করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, সকল স্তরের, শ্রেণি ও পেশার জনগণ এই সংকট মোকাবিলায় একযোগে কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী জানান, মুজিববর্ষ উপলক্ষে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছিল। তবে করোনভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে অনেক অনুষ্ঠানই উদযাপন করা যায়নি।

হাসিনাকে চিনের অভিনন্দন

জন্মদিন উপলক্ষে শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছে চিনা কমিউনিস্ট পার্টিও। রবিবার গণভবন সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। কমিউনিস্ট পার্টি বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেছে। সিপিসি ইন্টারন্যাশনাল বিভাগের মিনিস্টার সং তাও স্বাক্ষরিত এক বার্তায় আগামী দিনে চিনের কমিউনিস্ট পার্টি ও আওয়ামি লিগের সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ হবে বলে আশা প্রকাশ করা হয়।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

৫ অক্টোবর ঢাকায় আসছেন ভারতের নতুন হাই কমিশনার

Continue Reading

দেশ

৫ অক্টোবর ঢাকায় আসছেন ভারতের নতুন হাই কমিশনার

৩ অক্টোবর দিল্লি থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা দেবেন বিক্রম দোরাইস্বামী। এর পর ত্রিপুরা হয়ে আগামী ৫ অক্টোবর ঢাকায় পৌঁছোবেন তিনি।

Published

on

Vikram Doraiswami
বিক্রম দোরাইস্বামী। ফাইল চিত্র।

ঋদি হক: ঢাকা

বাংলাদেশে (Bangladesh) ভারতের নতুন হাই কমিশনার (India’s High Commissioner) হচ্ছেন কূটনীতিক বিক্রম দোরাইস্বামী (Vikram Doraiswami)। তিনি আগামী ৫ অক্টোবর ঢাকায় আসছেন। ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, আগামী ৩ অক্টোবর দিল্লি থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা দেবেন বিক্রম দোরাইস্বামী। এর পর ত্রিপুরা হয়ে আগামী ৫ অক্টোবর ঢাকায় পৌঁছোবেন তিনি। আগামী ৮ অক্টোবর বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো আব্দুল হামিদের কাছে তিনি পরিচয়পত্র পেশ করবেন।

ঢাকায় ভারতের হাই কমিশনার হওয়ার আগে ১৯৯২ ব্যাচের আইএফএস বিক্রম দোরাইস্বামী ভারতের বিদেশ মন্ত্রকে অতিরিক্ত সচিব হিসেবে আন্তর্জাতিক সংগঠন ও সম্মেলন বিভাগের ইনচার্জের দায়িত্ব পালন করেছেন।

বিক্রম দোরাইস্বামীর জন্ম ভারতের তামিলনাডুতে। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন বিক্রম দোরাইস্বামীর বাবা বিমানবাহিনীতে কর্মরত ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি মিত্রবাহিনীর পাশাপাশি থেকে তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তান সীমান্তে যুদ্ধ করেছেন।

বিদেশ মন্ত্রকে যোগ দেওয়ার আগে বিক্রম দোরাইস্বামী কিছু সময় সাংবাদিকতাও করেছেন। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাস নিয়ে পড়েছেন এই কূটনীতিক।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

অবৈধ পথে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে নৌকাডুবি, বাংলাদেশি-সহ উদ্ধার ২২

Continue Reading
Advertisement
দেশ28 mins ago

কৃষি বিলের প্রতিবাদে ‘দিল্লি চলো’র ডাক কৃষক সংগঠনের

coronavirus
রাজ্য29 mins ago

রাজ্যের কোভিড-পরিস্থিতি স্থিতিশীল, চিন্তায় রাখছে কলকাতা-উত্তর ২৪ পরগণা

রাজ্য1 hour ago

করোনার মৃদু উপসর্গ থাকলে বাড়িতে থেকে চিকিৎসা করাতে বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বিনোদন1 hour ago

দুর্গার বেশে ধরা দিয়ে খুনের হুমকি পাচ্ছেন নুসরত জাহান, দ্বারস্থ প্রশাসনের

রাজ্য2 hours ago

বদলি প্রক্রিয়া শুরুর দাবিতে বিকাশ ভবন যাচ্ছে শিক্ষক সংগঠন

জলপাইগুড়ি4 hours ago

‘একশো শতাংশ কাজ চাই, ঢিলেমি নয়’, উত্তরকন্যার প্রশাসনিক বৈঠকে স্পষ্ট বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

দেশ4 hours ago

ভারত এবং বিশ্বের স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশগুলির জন্য বাড়তি ১০ কোটি ডোজ করোনা ভ্যাকসিন তৈরি করবে সেরাম

Mukesh Ambani
শিল্প-বাণিজ্য5 hours ago

লকডাউনের পর থেকে প্রতি ঘণ্টায় মুকেশ অম্বানির আয় ৯০ কোটি টাকা!

দেশ11 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৭০৫৮৯, সুস্থ ৮৪৮৭৭

দেশ2 days ago

জল্পনার অবসান! নীতীশ কুমারের দলে যোগ দিলেন বিহারের প্রাক্তন ডিজি

Mamata Banerjee
রাজ্য3 days ago

১ অক্টোবর থেকে শর্তসাপেক্ষে খুলছে সিনেমা হল, চালু খেলাধুলো-সহ অন্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

north bengal rain
রাজ্য1 day ago

অতিবৃষ্টির হাত থেকে অবশেষে রেহাই পেল উত্তরবঙ্গ, আপাতত স্বস্তি

দেশ2 days ago

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা জসবন্ত সিংহ প্রয়াত

বাংলাদেশ3 days ago

অবৈধ পথে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে নৌকাডুবি, বাংলাদেশি-সহ উদ্ধার ২২

রাজ্য3 days ago

বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদকপদ খুইয়ে হুঁশিয়ারি রাহুল সিনহার!

shubhman gill
ক্রিকেট3 days ago

শুভমান গিলের ব্যাটে ভর করে আইপিএলে খাতা খুলল কেকেআর

কেনাকাটা

কেনাকাটা21 hours ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা4 days ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা5 days ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 week ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 week ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা2 weeks ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা3 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা1 month ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

নজরে