Connect with us

বাংলাদেশ

উত্তর-পূর্ব ভারতের সঙ্গে দ্রুত সড়ক-রেল সংযোগ এবং দু’ দেশের মধ্যে বাণিজ্য সম্প্রসারণে উদ্যোগ

ভারতের নতুন হাই কমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ ও বিদেশ সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

Published

on

বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী সমীপে ভারতের হাই কমিশনার। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

ঋদি হক: ঢাকা

কাজে যোগ দিয়েই ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের নতুন হাই কমিশনার (Indian High Commissioner) বিক্রম দোরাইস্বামী (Vikram Doraiswami)। একের পর এক কর্মসূচিতে ব্যস্ত তিনি। সেই ব্যস্ততারই অঙ্গ ছিল বাংলাদেশের (Bangladesh) তথ্যমন্ত্রী (Information Minister) ড. হাসান মাহমুদ (Dr. Hasan Mahmud) ও বিদেশ সচিব (Foreign Secretary) মাসুদ বিন মোমেনের (Masud Bin Momen) সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ। মঙ্গলবার এই দু’টো গুরুত্বপূর্ণ কাজ সারলেন দোরাইস্বামী।

তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে নবনিযুক্ত হাই কমিশনার আশ্বাস দিয়েছেন বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে তিনি কাজ করবেন। আলোচনাকালে চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহার, দু’ দেশের মধ্যে রেল যোগাযোগের আরও প্রসার, গণমাধ্যমের পরিকাঠামোগত উন্নয়ন, চলচ্চিত্রের আমদানি-রফতানি, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে শ্যাম বেনেগালের বায়োপিক, মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ প্রভৃতি প্রসঙ্গে উঠে আসে।

একই দিনে বাংলাদেশের বিদেশ সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ভারতের হাইকমিশনার। সেই বৈঠকে দু’ দেশের মধ্যে বাণিজ্য সম্প্রসারণের বিষয়টি আলোচিত হয়।

ব্যস্ত সময় পার করছেন দোরাইস্বামী        

ভারতের নবনিযুক্ত হাই কমিশনার তাঁর কর্মস্থলে যোগদানের পর থেকেই ব্যস্ত সময় পার করছেন। কাজের ক্ষেত্রে তাঁর আন্তরিকতার কোনো কমতি নেই। ৪ অক্টোবর তিনি দিল্লি থেকে আগরতলায় পৌঁছোন। পরদিন ৫ অক্টোবর সাব্রুম-সহ বেশ কয়েকটি স্থান ভ্রমণ করেন এবং বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরও জোরদার করার বিষয়ে ত্রিপুরায় মত বিনিময় করেন। ৬ অক্টোবর সড়কপথে আখাউড়া হয়ে  ঢাকায় পৌঁছোন।

৮ অক্টোবর অপরাহ্নে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের কাছে তাঁর পরিচয়পত্র পেশ করেন। সেখান থেকে সরাসরি পৌঁছে যান গুলশানে ‘ইন্ডিয়া হাউজ’-এ। এখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন। দোরাইস্বামীকে সব সময় উৎফুল্ল মনে হয়েছে। বাংলাদেশে নবাগত এই কূটনীতিক বিরামহীন কাজের মানুষ।

প্রেস মিটের শুরুতেই বাংলায় বলেন, “আমি থোড়া থোড়া বাংলা বলতে পারি। এবং বুঝিও। খুব তাড়াতাড়ি বাংলাভাষা শিখে নেব, ইনসাল্লাহ।” এর পর তিনি বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত ধানমন্ডির জাদুঘরের কথা বলেন আবেগের সঙ্গে।

মঙ্গলবার এক দিনেই দু’টো গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি সম্পন্ন করেন তিনি। তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ এবং বিদেশসচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ সেরে নেন।

তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা

তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠককালে ভারতের হাই কমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেছেন, দু’দেশের মধ্যে মৈত্রীর সেতু আরও সুদৃঢ় করাই তাঁর লক্ষ্য। বৈঠককালে চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহারের কথাও ওঠে আসে। দোরাইস্বামী বলেনন, বন্দর দু’টি ব্যবহার করে উভয় দেশই লাভবান হতে পারে। এই প্রসঙ্গেই তিনি জানান, দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর সঙ্গে সড়ক ও রেলপথে বাংলাদেশের দ্রুত সংযোগ চায় ভারত। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কুলাউড়া-শাহবাজপুর থেকে অসমের করিমগঞ্জের মৈশাষন রেলপথে যুক্ত হবে।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলপথ চালু করতে এক ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করেছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর বাংলাদেশ রেলপথ মন্ত্রকের সঙ্গে ভারতীয় নির্মাণসংস্থা কালিন্দী রেল কনস্ট্রাকশনের চুক্তি হয়। প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৭৮ কোটি টাকা। তার মধ্যে ভারতের ঋণ হিসেবে পাওয়া যাবে ৫৫৬ কোটি টাকা এবং বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ১২২ কোটি টাকা জোগান দেওয়া হবে। দু’ বছরের মধ্যে ৫২.৫৪ কিলোমিটার দীর্ঘ রেলপথের নির্মাণকাজ শেষ হবে। পাশাপাশি নির্মাণ করা হবে ৫৯টি ছোটো-বড়ো সেতু ও ছ’টি স্টেশন (জুড়ী, দক্ষিণভাগ, কাঁঠালতলী, বড়লেখা, মুড়াউল ও শাহবাজপুর)। ১৯১০ সালে চালু হওয়া কুলাউড়া-শাহবাজপুর সেকশন ২০০২ সালে বিএনপি সরকারের সময় বন্ধ হয়ে যায়।

তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে এসে বিক্রম দোরাইস্বামী আরও বলেছেন, চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহার করলে উভয় দেশ উপকৃত হবে। বিশেষ করে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলো যাতে চট্টগ্রাম বন্দর সহজে ব্যবহার করতে পারে, সে বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

সাংস্কৃতিক সহযোগিতা

এ ছাড়া দু’ দেশের সাংবাদিকদের সফর ছাড়াও, বিশেষ করে নারী সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণ আদান-প্রদানসহ গণমাধ্যম ক্ষেত্রে পরিকাঠামোগত উন্নয়ন এবং চলচ্চিত্রের আমদানি-রফতানি আলোচনা হয়েছে।

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের বহুমাত্রিকতার কথা উল্লেখ করে ড. হাসান মাহমুদ বলেন, “ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক অকৃত্রিম ও অতুলনীয়। এর সঙ্গে অন্য কোনো দেশের সম্পর্কের তুলনা চলে না। আমাদের দু’দেশের সম্পর্ক রক্তের অক্ষরে লেখা। কারণ আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারতের সৈন্যরা রক্ত দিয়েছেন। এক কোটি মানুষকে ভারত আশ্রয় দিয়েছে। বাংলাদেশ যত দিন থাকবে, তত দিন এটি ইতিহাসের পাতায় লিপিবদ্ধ থাকবে।”

সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তথ্যসচিব কামরুন নাহার ও মন্ত্রীর দফতরের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রী বলেন, ভারতীয় চলচ্চিত্রকার শ্যাম বেনেগালের পরিচালনায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্রটি মুজিববর্ষের মধ্যেই সমাপ্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশি পরিচালক ও ভারতীয় সহ-পরিচালকের তত্ত্বাবধানে মুক্তিযুদ্ধের ওপরে যৌথ ভাবে প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। ভারতের ত্রিপুরা ও মেঘালয়ে বিটিভি এবং বাংলাদেশের প্রাইভেট টেলিভিশন চ্যানেলগুলো দেখা গেলেও পশ্চিমবাংলা-সহ সমগ্র ভারতে দেখার ব্যবস্থা করা নিয়েও আলোচনা হয়েছে। 

বিষয় দু’ দেশের বাণিজ্য সম্প্রসারণ

বাংলাদেশের বিদেশ সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে আলোচনার সময় ভারতের হাই কমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, বাংলাদেশ দু’ বছরে ভারতে ১০০ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি করেছে। বাংলাদেশ-ভারতের বাণিজ্য আরও সম্প্রসারণ করার ব্যাপারে তিনি উদ্যোগী হবেন বলে আশ্বাস দেন হাই কমিশনার।

এই সাক্ষাতের সময়ই বিদেশ সচিবকে হাই কমিশনার জানান, বাংলাদেশে কয়েক ধরনের পেঁয়াজ রফতানির ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিয়েছে ভারত। আগামী বছরের মার্চ মাসের মধ্যে ২০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ বাংলাদেশে রফতানি করা হবে বলে তিনি জানান। এ ব্যাপারে যে ভারতের আন্তরিকতার কোনো ঘাটতি নেই, সে কথা জানিয়ে বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, বেশ কয়েকটি স্থলবন্দর বন্ধ থাকায় চেন্নাই থেকে জাহাজে করে পেঁয়াজ রফতানি করবে ভারত।  বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য সমস্যা নিয়ে দুই দেশের কর্মকর্তা পর্যায়ে আলোচনায় বসার কথাও জানান ভারতীয় হাইকমিশনার।

অপর দিকে বাংলাদেশের বিদেশ সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেছেন, বাংলাদেশ-ভারত যৌথ নদী কমিশনের (জেআরসি) বৈঠক চলতি বছরেই অনুষ্ঠিত হবে।  দুই দেশের মধ্যে এয়ার বাবল চুক্তির জন্য কাজ চলছে বলেও জানালেন তিনি। নবনিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামীর সঙ্গে বৈঠক শেষে এ সব কথা জানান বিদেশ সচিব।

মাসুদ বিন মোমেন জানান, বাংলাদেশ-ভারত যৌথ নদী কমিশনের বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে দুই দেশের জলসচিব পর্যায়ে বৈঠক হবে। তিনি আরও বলেন, “আমরা এয়ার বাবল চালুর খুব কাছাকাছি পৌঁছে গেছি। সিভিল অ্যাভিয়েশন এ বিষয়ে কাজ করছে।”

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

সীমান্তে একটি মৃত্যুও কাঙ্ক্ষিত নয়, বললেন নবনিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তীতে চালু হয়ে যাচ্ছে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথ

আগামী বছর ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ঢাকা থেকে শিলিগুড়ি পর্যন্ত একটি যাত্রীবাহী ট্রেন চালানোরও পরিকল্পনা রয়েছে।

Published

on

বাংলাদেশের রেলপথমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে ভারতের হাই কমিশনার।

ঋদি হক: ঢাকা 

২০২১ সালে বাংলাদেশের (Bangladesh) সুবর্ণজয়ন্তীতে (Golden Jubilee) চালু হতে যাচ্ছে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি (Chilahati-Haldibari rail link) রেলপথ। বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে পঞ্চম রেলসংযোগের কাজ সম্প্রতি সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে। এই রেলপথ চালু হলে শিয়ালদা থেকে ভারতের উত্তরাঞ্চলের উদ্দেশে ট্রেন ছেড়ে বেনাপোল দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করবে এবং চিলাহাটি দিয়ে হলদিবাড়ি হয়ে গন্তব্যে পৌঁছোবে। এর ফলে বেশ কিছুটা দূরত্ব কমবে। এবং এই রেলপথ চালু হলে দু’ দেশের মধ্যে বাণিজ্যের নতুন দুয়ার খুলে যাবে।

বুধবার বাংলাদেশের রেলপথমন্ত্রী (Bangladesh Railway Minister) নূরুল ইসলাম সুজনের (Nurul Islam Sujan) সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ভারতের হাই কমিশনার (Indian High Commissioner) বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী (Vikram Doraiswami)। বৈঠককালে ভারতের অর্থায়নে বাংলাদেশ রেলে চলমান প্রকল্প-সহ উভয় দেশের রেল সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিল ‘চিলাহাটি-হলদিবাড়ি’ নতুন লাইন উদ্বোধন ও ট্রেন চলাচলের বিষয়টি।

রেলভবনে বৈঠককালে রেলপথমন্ত্রী জানান, ডিসেম্বরে বাংলাদেশের বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে উভয় দেশের প্রধানমন্ত্রী নতুন আন্তঃদেশীয় যোগাযোগের উদ্বোধন করবেন এবং শুরুতে পণ্যবাহী ট্রেন চলবে। এ ছাড়া আগামী বছর ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ঢাকা থেকে শিলিগুড়ি পর্যন্ত একটি যাত্রীবাহী ট্রেন চালানোরও পরিকল্পনা রয়েছে।

রেলপথমন্ত্রী আরও বলেছেন, বঙ্গবন্ধু রেলসেতুর কাজ আগামী মাসে শুরু হবে। এই সেতুটি নির্মিত হলে দেশের রেলযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হবে। পাশাপাশি মিটারগেজ লাইনকে পর্যায়ক্রমে ডুয়েল গেজে রূপান্তর করার প্রক্রিয়া চলছে।

রেলে বেশ কিছু প্রকল্প হাতে নেওয়া। যার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ। এই প্রকল্পটি চালু হওয়ার পর ভারতে যাতায়াতকারী ট্রেন যশোরের বেনাপোল থেকে সহজেই স্বল্প সময়ে পণ্য ও যাত্রী ঢাকায় নিয়ে আসতে পারবে।

অপর দিকে সিরাজগঞ্জে একটি কন্টেনার টার্মিনাল ডিপো নির্মাণে বিষয়েও দু’ জনের মধ্যে আলোচনা হয়। এটি তৈরি হয়ে গেলে পণ্য পরিবহন খুব সহজ হবে। সৈয়দপুরে নতুন কোচ তৈরির কারখানা নির্মাণ সম্পর্কেও বৈঠকে আলোচনা হয়।

রেলপথমন্ত্রী বলেন, ভারতের আদলে বাংলাদেশ রেলওয়েতে কনসালটেন্সি বিষয়ে একটি বিভাগ চালু করা হবে। ভারতীয় হাই কমিশনার বাংলাদেশ রেলওয়েতে ক্যাটারিং সার্ভিস এবং ট্রেনিং অ্যাকাডেমি উন্নয়নে তাঁর আগ্রহের কথা জানান। রেলপথমন্ত্রী বাংলাদেশের রেলের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ভারতে ট্রেনিং করার বিষয়ে সহযোগিতা কামনা করেন।

সাক্ষাৎকালে রেলপথ মন্ত্রকের সচিব মো সেলিম রেজা এবং মহাপরিচালক মোঃ শামসুজ্জামান-সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

বাংলাদেশের কৃষি ক্ষেত্রে যান্ত্রিকীকরণে সহায়তা দেবে ভারত

Continue Reading

দেশ

বাংলাদেশের কৃষি ক্ষেত্রে যান্ত্রিকীকরণে সহায়তা দেবে ভারত

হাই কমিশনার বলেছেন, তিনি ব্যক্তিগত ভাবে চেষ্টা করবেন যাতে ভালো কিছু কোম্পানি বাংলাদেশে বিনিয়োগ করে।

Published

on

ঋদি হক: ঢাকা

কৃষি ক্ষেত্রে (Agriculture sector) বাংলাদেশের (Bangladesh) চেয়ে ভারত (India) কিছু কিছু বিষয়ে এগিয়ে রয়েছে। বিশেষ করে পাট, তুলা, ভুট্টা ইত্যাদি বহু ফসলের বীজ ভারত থেকে আনার সুযোগ রয়েছে। বাংলাদেশ সরকার প্রতি বছর ৪ হাজার মেট্রিক টন পাটবীজ আমদানি করে থাকে। কৃষি ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে আগ্রহী ভারত।

বুধবার বাংলাদেশের কৃষিমন্ত্রী (Bangladesh Agriculture Minister) ড. আবদুর রাজ্জাকের (Dr. Abdur Razzaque) সঙ্গে সাক্ষাৎকারে এসে এ সব কথা বলেন ঢাকায় নবনিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার (Indian High Commissioner) বিক্রম দোরাইস্বামী (Vikram Doraiswami)।

বাংলাদেশের কৃষি ক্ষেত্রে যান্ত্রিকীকরণেও সহায়তা করতে চায় ভারত। ভারতের বেশ কিছু কোম্পানি রয়েছে যারা এ ক্ষেত্রে সফল। এ ব্যাপারে হাই কমিশনার বলেছেন, তিনি ব্যক্তিগত ভাবে চেষ্টা করবেন যাতে ভালো কিছু কোম্পানি  বাংলাদেশে বিনিয়োগ করে। বিশেষ করে মাহিন্দ্রাকে বাংলাদেশে নিয়ে আসার চেষ্টা করবেন তিনি।

কৃষিমন্ত্রী ড. রাজ্জাক বলেছেন, “কৃষিতে ভারত অনেক ক্ষেত্রেই আমাদের দিক থেকে এগিয়ে। আমরা সহযোগিতা নেব। আমাদের কৃষিখাতে সহযোগিতা নেওয়ার অনেক সুযোগ রয়েছে। তারা সেটা জানতে চেয়েছে।”

কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, “বর্তমানে আমাদের অর্থনীতিতে বা জিডিপিতে কৃষির গুরুত্ব কম থাকলেও খাদ্য নিরাপত্তার জন্য ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাঁচামাল জোগানোর জন্য কৃষি সব সময় গুরুত্বপূর্ণ। ভারত কোনো কোনো বিষয়ে টেকনোলজিতে আমাদের থেকে এগিয়ে আছে। যেমন বিটি কটনে তারা আমাদের থেকে এগিয়ে আছে। আমরা চাচ্ছি এই বিটি কটন আমাদের দেশে আনতে। এটা এদেশের আবহাওয়ার জন্য ভালো।”

কৃষিমন্ত্রী জানান, ভুট্টা-সহ অনেক ফসলের ভালো জাত ভারত থেকে আনার সুযোগ রয়েছে। পেঁয়াজ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। এখন আবহাওয়া ভালো হচ্ছে। ফের বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি শুরু করবে ভারত। আর বাংলাদেশের এলসি করা ২০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজের বিষয়টি ক্লিয়ার করেছে ভারত।

সব কিছু ঠিক থাকলে যে কোনো সময় ভারত পেঁয়াজ সরবরাহের চেষ্টা করবে বলে জানিয়েছেন হাই কমিশনার।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

দুর্গোৎসব বাংলাদেশে: বরদেশ্বরীতে বস্ত্র বিতরণে অভিনেত্রী শাহনূর, ঢাকেশ্বরীতে মাস্ক বিতরণ সমাজসেবী রাহা কাজীর

Continue Reading

দুর্গা পার্বণ

দুর্গোৎসব বাংলাদেশে: বরদেশ্বরীতে বস্ত্র বিতরণে অভিনেত্রী শাহনূর, ঢাকেশ্বরীতে মাস্ক বিতরণ সমাজসেবী রাহা কাজীর

পঞ্চমীতে ঘট বসার দিনেই লোকে লোকারণ্য ঢাকার বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দির।

Published

on

বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দিরে বস্ত্র বিতরণ।

ঋদি হক: ঢাকা

সনাতন ধর্মমতে এ বারে মা আসছেন দোলায় চড়ে। এতে দুর্যোগ বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। ফিরবেন হাতিতে। তাতে সুখশান্তি ফিরবে। ষষ্ঠীপূজার মধ্য দিয়ে দুর্গোৎসবের মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার।

করোনাভাইরাসকে সঙ্গী করে দুর্গোৎসবের আয়োজনটা ফিকে হয়ে গিয়েছে। করোনার  ছোবলে রাত ৯টার পরিবর্তে সন্ধ্যারতির পরই বন্ধ হয়ে যাবে মন্দিরের দরজা। আর ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে প্রবেশে এ বারেই বাঁশ দিয়ে ৬টি লাইনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতি বারে ৫০ জন করে দর্শনার্থী প্রবেশ করতে পারবেন। বুধবার মন্দির চত্বরে সাংবাদিক বৈঠকে এমনটিই জানালেন মহানগর সর্বজনীন পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি ও সাবেক সচিব শৈলেন্দ্রনাথ মজুমদার।

ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির চত্বরে সাংবাদিক বৈঠক।

শৈলেন্দ্রবাবু জানালেন, অঞ্জলির অনুষ্ঠান একাধিক টেলিভিশন সরাসরি সম্প্রচার করবে। বাড়িতে বসে অঞ্জলি দিতেই সবাইকে উৎসাহিত করছে পূজা কমিটি। দিন কয়েক আগেও রাত ৯টা পর্যন্ত মন্দির খোলা রাখার কথা বলা হয়েছিল, এ কথা জানিয়ে শৈলেন্দ্রবাবু বলেন, করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা সামলাতে আমাদের নতুন করে সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।

কিন্তু পঞ্চমীতে ঘট বসার দিনেই লোকে লোকারণ্য ঢাকার বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দির। সবার মুখে মাস্ক। দীর্ঘ লাইন। মূল মণ্ডপের সামনে বেশ কিছু সারিতে দুস্থ মানুষের দীর্ঘ লাইন। এখানে কোনো ধর্মের বিচার করা হয় না। মানবধর্মকে সামনে রেখেই দুস্থদের বস্ত্র বিতরণ করেন মন্দির কমিটির সভাপতি চিত্তরঞ্জন দাস।

দুপুরে মন্দিরের সদর দরজা পেরিয়ে ভেতরে প্রবেশ করতেই থমকে যেতে হল। এত মানুষ! মন্দিরের মঞ্চের সামনে বাংলাদেশের বিশিষ্ট অভিনেত্রী শাহনূর। তিনি পশ্চিমবাংলার বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করেছেন। তাঁর হাত থেকে বস্ত্র নিচ্ছে শ’ শ’ মানুষ। পাশে চিত্তরঞ্জনবাবু।

বিশিষ্ট অভিনেত্রী শাহনূর বস্ত্র বিতরণ করলেন বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দিরে।

শাহনূর বলেন, “ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। বাংলাদেশের মানুষ এই মন্ত্রেই দীক্ষিত। আমরা এতে বিশ্বাস করি। তাই বাংলাদেশে শারদীয় দুর্গোৎসব পালিত হয় সর্বজনীন উৎসব হিসেবে। এই উৎসবে মুসলিম ধর্মের মানুষরাই বেশি যোগদান করে থাকেন। আমরা প্রতি বছর পুজোয় সম্মিলিত ভাবে যোগ দিই। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও যথেষ্ট উদার। তিনি সব সময় বলে থাকেন, ধর্মের সঙ্গে উৎসবের কোনো মিল নেই। ধর্ম যার যার, উৎসবটা সবার। এ বারের পূজায়ও অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে মাস্ক বিতরণ করতে এসে বিশিষ্ট সমাজসেবী রাহা কাজী বলেন, “হিন্দু-মুসলিমের মিলন মেলা হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব। কিন্তু এ বারে তাদের কষ্ট, করোনায় উৎসবটা বাদ দিতে হয়েছে।” তিনি স্বাস্থ্যবিধি মেনে সবাইকে পুজোয় যোগ দিতে অনুরোধ জানান। তিনি এ-ও জানালেন, করোনা সত্ত্বেও অনেক ভক্ত মন্দিরে আসবেন। তাঁরা যাতে মাস্ক পরে মাকে দর্শন করতে পারেন, তার জন্য তাঁরা মাস্ক বিতরণ করছেন।

বিশিষ্ট সমাজসেবী রাহা কাজী মাস্ক বিতরণ করলেন ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে।

করোনার কারণে সাত্ত্বিক পূজার মধ্যেই দুর্গাপূজা সীমাবদ্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় পুজা উদযাপন কমিটি। সন্ধ্যারতির পর মন্দির বন্ধ করার বার্তা দেওয়া হয়েছে সারা দেশে। সবটাই করা হচ্ছে করোনার প্রাদুর্ভাব থেকে নিজেদের রক্ষার জন্য।

সভাপতি শৈলেন্দ্রনাথ মজুমদার জানান, জাতীয় মন্দির থেকে সপ্তমী, অষ্টমী ও নবমী পুজার দিন বেলা পৌনে ১১টায় মায়ের পুষ্পাঞ্জলি সরাসরি সম্প্রচার করবে একাধিক টেলিভিশন। সরাসরি মন্দিরে না এসে বাড়ি বসেই যাতে করে অঞ্জলি দেওয়া সম্ভব হয়, সে জন্য ফেসবুক লাইভের ব্যবস্থা থাকবে।

সনাতন বিশ্বাসে কৈলাসশিখর ছেড়ে পিতৃগৃহে আসা মা দুর্গার অকালবোধন। ভোরের শিউলি ছড়াচ্ছে মোহনীয় গন্ধ। এমন শারদীয় আবহেই শুরু হচ্ছে বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এ বারে বাংলাদেশে ৩০ হাজার ২১৩টি পূজা উদযাপন হচ্ছে। এর মধ্যে মহানগরীতে হচ্ছে ২৫৪টি। গত বছরের চেয়ে ৩টি কমেছে। আর সারা দেশে কমেছে প্রায় এক হাজারের মতো। এর মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক পুজা উদযাপন হচ্ছে চট্টগ্রাম ডিভিশনে ৪ হাজার ১৪২টি।

পঞ্চমী তিথিতে শারদীয় বৃষ্টিতে ভিজল রাজধানী ঢাকা। উৎসবের সঙ্গে বৃষ্টিযোগ নতুন নয়। তীব্র গরমে হাপিত্যেশ করা নগরবাসীর জন্য বিকেলের মুষলধারায় এক পশলা বৃষ্টি যেন আশীর্বাদ। 

সকাল থেকে আকাশ পরিষ্কার থাকলেও দুপুরের পর হঠাৎ  মেঘের আড়ালে মুখ লুকোয় সূর্য। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় নামে বৃষ্টি। হঠাৎ মেঘ কালো করে আসা এ বৃষ্টিতে সাধারণ মানুষ কিছুটা ভোগান্তিতে পড়লেও স্বস্তি ফিরেছে রাজধানী জুড়ে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

দুর্গোৎসব বাংলাদেশে: করোনা কেড়ে নিয়েছে বরদেশ্বরী কালীমন্দিরের দুর্গাপুজোর উৎসব

Continue Reading

Amazon

Advertisement
ক্রিকেট2 hours ago

অস্ট্রেলিয়ায় ৩২ জনের ভারতীয় দল পাঠাতে পারে বিসিসিআই

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৫৫৮৩৯, সুস্থ ৭৯৪১৫

coronavirus
দেশ2 hours ago

এক দিনে ২৪ হাজার সক্রিয় রোগী কমল ভারতে, দৈনিক সংক্রমণের হার চার শতাংশের নীচে

uddhav thackeray
দেশ3 hours ago

সংঘাত বাড়ল কেন্দ্রের সঙ্গে, সিবিআইকে তদন্তের জন্য সাধারণ সম্মতি প্রত্যাহার করল মহারাষ্ট্র সরকার

রাজ্য3 hours ago

‘সব বাঙালি বাংলাদেশি’, বাঙালি বিরোধী আন্দোলনে উত্তপ্ত মেঘালয়

বিদেশ3 hours ago

ব্রাজিলে মৃত স্বেচ্ছাসেবক টিকা নেয়নি, বন্ধ হচ্ছে না ট্রায়াল

রাজ্য4 hours ago

ষষ্ঠীর সকাল থেকে কলকাতায় ঝোড়ো হাওয়া, উপকূলে বৃষ্টি শুরু

Ekdalia Evergreen
কলকাতা10 hours ago

আজ ষষ্ঠী: পঞ্চমীর রাতে অচেনা কলকাতা, মাস্ক পরে প্রতিমাদর্শন

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৫৫৮৩৯, সুস্থ ৭৯৪১৫

দেশ2 days ago

আজ থেকে ৩৯২টি উৎসব স্পেশাল ট্রেন, দেখে নিন পূর্ণাঙ্গ তালিকা

দেশ2 days ago

কোভিড মহামারিতে বিহার ভোটে খরচের ঊর্ধ্বসীমা বাড়ল ১০ শতাংশ

দুর্গা পার্বণ3 days ago

পুজোয় রোজই বৃষ্টি, ষষ্ঠী থেকে অষ্টমী সম্ভাবনা ভারী বর্ষণের

durga
রাজ্য3 days ago

রাজ্যের সব পুজো প্যান্ডেল ‘নো এন্ট্রি জোন’, ঐতিহাসিক রায় কলকাতা হাইকোর্টের

রাজ্য14 hours ago

প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করেছেন নরেন্দ্র মোদী, আদর্শ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়: বিমল গুরুং

বিনোদন3 days ago

কয়েক দিনের মধ্যেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে হাঁটানোর চেষ্টা করা হবে, জানালেন ডাক্তার

প্রবন্ধ2 days ago

‘গায়কদের গায়ক’ অখিলবন্ধু ঘোষ: শতবর্ষে শ্রদ্ধাঞ্জলি

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 weeks ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা3 weeks ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা3 weeks ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা3 weeks ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা3 weeks ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা4 weeks ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা4 weeks ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা4 weeks ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 month ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা1 month ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

নজরে