Connect with us

বাংলাদেশ

জাল করোনা-শংসাপত্র চক্রের অন্যতম পাণ্ডা ধৃত ও চাকরি থেকে বরখাস্ত

ঢাকার হৃদরোগ হাসপাতালে কর্মরত থেকেও জোবেদা খাতুন সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবার (জেকেজি হেলথকেয়ার) চেয়ারম্যান ছিলেন সাবরিনা।

ঋদি হক: ঢাকা

বাংলাদেশে করোনার জাল সার্টিফিকেট চক্রের অন্যতম পাণ্ডা ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারের পরই তাঁকে সরকারি চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

এর আগে ২৩ জুন সাবরিনার স্বামী আরিফ চৌধুরী-সহ ৬ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। স্বামীকে গ্রেফতারের পরই গা ঢাকা দেন সাবরিনা। ঢাকার হৃদরোগ হাসপাতালে কর্মরত থেকেও জোবেদা খাতুন সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবার (জেকেজি হেলথকেয়ার) চেয়ারম্যান ছিলেন সাবরিনা, যার সিইও ছিলেন স্বামী আরিফ চৌধুরী। স্বাস্থ্য অধিদফতরের সঙ্গে বিনামূল্যে করোনা-নমুনা সংগ্রহ সংক্রান্ত চুক্তির পর প্রতিটি নমুনা পরীক্ষায় কমপক্ষে ৫ হাজার টাকা এবং বিদেশি নাগরিকের বেলায় ১০০ ডলার নিচ্ছিল জেকেজি হেলথকেয়ার। 

পুলিশ জানায়, জেকেজি হেলথকেয়ার থেকে ২৭ হাজার করোনা-নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদফতরের আইইডিসিআরের (ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিওলজি, ডিজিজ কনট্রোল অ্যান্ড রিসার্চ; IEDCR) মাধ্যমে আসা ১১ হাজার ৫৪০ জনের করোনা-নমুনার সঠিক পরীক্ষা করানো হয়েছিল। বাকি ১৫ হাজার ৪৬০টি নমুনা নিজেরাই তৈরি করে জেকেজি। একজন ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ জেকেজি হেলথকেয়ারের সিইও আরিফ চৌধুরী-সহ ৬ জনকে গ্রেফতার করে। প্রতিষ্ঠানটিতে অভিযান চালিয়ে ল্যাপটপ-সহ অন্যান্য নথিপত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়। ল্যাপটপে ১৫ হাজার ৪৬০টি নমুনার জাল সার্টিফিকেট তৈরির প্রমাণ পায় পুলিশ। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আরিফ চৌধুরী নিজেই স্বীকার করেছেন, জেকেজির ৭-৮ জন কর্মী জাল সার্টিফিকেট তৈরি করতেন।

জানা গেছে, হাজারো চেষ্টা করেও শেষ রক্ষা হয়নি ডা. সাবরিনার। অবশেষে রবিবার  তাঁকে আটকের পর পুলিশের দীর্ঘ জেরায় করোনার জাল শংসাপত্র তৈরির কথা স্বীকার করেন তিনি। তেজগাঁও থানা পুলিশ জানিয়েছে, স্বামী-স্ত্রী দু’ জনে মিলে করোনা টেস্টের ভুয়া শংসাপত্র বিক্রির কারবারটি বেশ জাঁকিয়ে ফেঁদেছিলেন।

আরও পড়ুন: করোনার জাল সার্টিফিকেট নিয়ে ইতালিতে ফিরে বিপাকে প্রবাসী বাংলাদেশিরা

এর আগে গ্রেফতার হওয়া ২ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তাদের দেওয়া জাল শংসাপত্র নিয়ে ইতালি গিয়ে হাজারো বাংলাদেশি নাগরিক আজ চরম বিপাকে পড়েছেন।

করোনা পরীক্ষার জাল শংসাপত্র তৈরির আরেক পালের গোদা রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে শিগগিরই গ্রেফতার করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, “সাহেদের বিদেশ যাওয়ার সুযোগ নেই। পুলিশ তাঁকে খুঁজছে। শিগগির তাঁকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হব।”

ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে দেশের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা, কোরবানির পশুর হাটের নিরাপত্তা ও চামড়া পাচার রোধকরণ এবং শিল্পাঞ্চলে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ-সহ বিভিন্ন প্রাসঙ্গিক বিষয়ে সরকারের অবস্থান নির্ধারণের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।

দেশ

বাংলাদেশের উন্নয়ন মানেই ভারতের উন্নয়ন, বললেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন

মেহেরপুরে ‘মুজিবনগর স্মৃতিসৌধ’ পরিদর্শন শেষে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

ঋদি হক: ঢাকা

“‘ভারত-বাংলাদেশে সম্পর্ক রক্তের ঋণ’, এ কথা নতুন করে বলার প্রয়োজন পড়ে না। আমরা বলতে চাই, বাংলাদেশের (Bangladesh) বিজয় মানে ভারতের (India) বিজয়। আর বাংলাদেশের উন্নয়ন মানেই ভারতের উন্নয়ন।” মেহেরপুরে (Meherpur) ‘মুজিবনগর স্মৃতিসৌধ’ পরিদর্শন শেষে এমন মন্তব্য করেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন (Dr. A K Abdul Momen)।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময়ে মেহেরপুরের আম্রকাননে ‘বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকার গঠিত’ হয়েছিল। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে এটিকে মুজিবনগর নাম দেওয়া হয়। স্বাধীনতার সূর্য-সন্তানদের শ্রদ্ধার নির্দশন হিসেবে মুজিবনগরে স্মৃতিসৌধ নির্মাণ করা হয়। শনিবার সেই স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী (Bangladesh foreign minister)।

“মুক্তিযুদ্ধকালীন সময় থেকেই ভারতের সঙ্গে নাড়ির সম্পর্ক আমাদের। এই সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার নয়”, এ কথা উল্লেখ করে বিদেশমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার রজতজয়ন্তী। ভারতকে নিয়েই বাংলাদেশ এই উৎসব পালন করবে, কেননা বাংলাদেশের বিজয় মানে ভারতের বিজয়। আবার ভারতের বিজয় মানে বাংলাদেশের বিজয়।

বিদেশমন্ত্রী ড. মোমেন উল্লেখ করেন, “ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের রক্তের সম্পর্ক। আর চিনের সঙ্গে অর্থনৈতিক। ভারত-চিনের মধ্যে গণ্ডগোল নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন নই।”

বিদেশমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশকে প্রায় এক হাজারের বেশি পণ্য শুল্কমুক্ত করার সুবিধা দিয়েছে চিন। তাতে কিন্তু ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কে কোনো বিতর্ক তৈরি হয়নি। কেউ কেউ এটাকে নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করছেন।

ড. মোমেন বলেন, “ভারতের সঙ্গে সমুদ্র, সীমান্ত, নিরাপত্তা-সহ আমাদের বড়ো ধরনের সব সমস্যা মিটে গেছে। ছোটখাটো কিছু সমস্যা ঝুলে রয়েছে। তা-ও ঠিক হয়ে যাবে।”

করোনা-টিকা আবিষ্কারে বাংলাদেশ যুক্ত হতে পারেনি, এমন মন্তব্য করে বিদেশমন্ত্রী বলেছেন, টিকা আবিষ্কারে ভারত এবং পাকিস্তান, দু’টি দেশই অন্য দেশের সঙ্গে যৌথ ভাবে গবেষণামূলক কাজ শুরু করেছে। সেখানে কারও সঙ্গে কাজে যুক্ত হতে না পারাকে দু:খজনক বলে উল্লেখ করেন ড. এ কে আবদুল মোমেন। তিনি জানান, টিকা পেতে ইউরোপকে অনেক টাকা দিয়ে রাখা হয়েছে।

বিদেশমন্ত্রী বলেন, মুজিববর্ষে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের মুখোমুখি করার কথা থাকলেও তা সম্ভব হয়নি। পাঁচ খুনি এখনও জীবিত। তার মধ্যে দু’ জনের সন্ধান পাওয়া গেছে। তারা আমেরিকা এবং কানাডায় রয়েছে। তবে দুই খুনির একজনকে অন্তত দেশে আনার জোর প্রক্রিয়া চলছে। যাদের আনা সম্ভব হচ্ছে না, তাদের বাসার সামনে মাসে অন্তত  এক বার হলেও লোকজন নিয়ে অবস্থান করতে  দূতাবাসগুলোকে বলে দেওয়া হয়েছে, যাতে খুনিরা তাদের কৃতকর্মের জন্য জনগণের কাছে ধিকৃত হয়।

বিদেশমন্ত্রী ড. মোমেন সস্ত্রীক শুক্রবার রাতে মেহেরপুরে পৌঁছোন। শনিবার ‘মুজিবনগর (Mujibnagar) স্মৃতিসৌধ’ পরিদর্শন শেষে ঢাকা রওনা হয়ে যান তাঁরা।

Continue Reading

কলকাতা

ঢাকায় পথদুর্ঘটনায় নিহত পর্বতারোহী, শোকস্তব্ধ কলকাতার পাহাড়প্রেমীরা

শুক্রবার সকাল ৯টা নাগাদ ঢাকায় সংসদ ভবন এলাকার চন্দ্রিমা উদ্যান সংলগ্ন লেক রোড দিয়ে সাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় একটি গাড়ি তাঁকে চাপা দিয়ে চলে যায়।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: স্বপ্ন ছিল এভারেস্ট জয় করার। কিন্তু সে স্বপ্ন অধরা রেখেই অকালে চলে গেলেন বাংলাদেশের পর্বতারোহী রেশমা নাহার রত্না। ৩৩ বছর বয়সি রত্নার অকালমৃত্যুতে শোকস্তব্ধ কলকাতার পর্বতারোহীমহলও।

শুক্রবার সকাল ৯টা নাগাদ ঢাকায় সংসদ ভবন এলাকার চন্দ্রিমা উদ্যান সংলগ্ন লেক রোড দিয়ে সাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় একটি গাড়ি তাঁকে চাপা দিয়ে চলে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় রত্নাকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। 

ঘাতক গাড়িটিকে এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

পেশায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ছিলেন রত্না। শিক্ষকতার পাশাপাশি পর্বতারোহণ ছিল তাঁর নেশা। গত বছর, উত্তরাকাশীতে নেহরু ইনস্টিটিউট অব মাউন্টেনিয়ারিং থেকে উচ্চতর পর্বতারোহণ কোর্স সম্পন্ন করেন।

২০১৬ সালে রত্নার অ্যাডভেঞ্চারের সূচনা হয় বাংলাদেশের কেওক্র্যাডং পাহাড় চূড়া (৩,২৩৫ ফুট) আরোহণ করে। এর পর তিনি পাড়ি জমান আফ্রিকায়। ২০১৮-এ আফ্রিকার সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো আরোহণ করেন তিনি। এর ঠিক পরেই আফ্রিকা মহাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট কেনিয়াও আরোহণ করেন তিনি।

গত বছর লাদাখে অবস্থিত স্টক কাঙরি (৬১৫৩ মিটার) এবং কাং ইয়াতসে-২ (৬২৫০ মিটার) সফল ভাবে আরোহণ করেন তিনি। তাঁর এ বার স্বপ্ন ছিল এভারেস্টের চূড়ায় পৌঁছোনো। কিন্তু সেই স্বপ্ন যে অধরা থেকে গেল, সেটাই ভেবে বিহ্বল হয়ে পড়ছেন কলকাতার পর্বতারোহীরা।

বাংলার প্রবীণা পর্বতারোহী দীপালি সিনহা তাঁর ফেসবুক পোস্টে লেখেন, “মেয়েটির সঙ্গে আমার খুব অল্প দিনের পরিচয়। সাক্ষাৎ হয়নি, কিন্তু বহু বহুক্ষণ ধরে ফোনে কথা হত, চ্যাট চলত। ওর টক-শো তে আমি অংশগ্রহণ করেছি, আমার টক-শো তে ও অংশগ্রহণ করেছে। সম্ভাবনাময় একটি প্রাণের মর্মান্তিক এই পরিণতি মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে। ওর আত্মার শান্তি কামনা করি।”

অন্য দিকে, পর্বতারোহী পিয়ালি বসাক তাঁর ফেসবুক পোস্টে লেখেন, “ভারতের পর্বতারোহীদের নিয়ে ওর (রত্না) খুব উৎসাহ ছিল, তাদের নিয়ে লাইভ প্রোগ্রামও করছিল। ভারতের মেয়ে পর্বতারোহীদের প্রতি বিশেষ উৎসাহ নিয়ে লাইভ প্রোগ্রাম শুরু করে, আমারও করেছিল, আরও করবে বলে বারে বারে বলত, আরও অন্যান্য পর্বতারোহীদেরও খোঁজ করত। মাত্র কয়েক দিনের পরিচয়ে ভীষণ আপন হয়ে গিয়েছিল, প্রথম দিন থেকেই আমার সাথে এমন ভাবে কথা বলছিল যেন কত দিনের চেনা।”

তিনি আরও লেখেন, “এত কম বয়সে কত কাজ কত স্বপ্ন অসম্পূর্ণ রেখে চলে গেলে। কিন্তু এত মানুষের ভালোবাসা তুমি পেয়েছ তাতে আমি সত্যিই অভিভূত। তাই বিশ্বাস আছে তোমার স্বপ্নগুলো পূরণ হবে, সবার ভালো বাসার মাঝেই তুমি বেঁচে থাকবে। এই ক’দিনের মাত্র পরিচয়, কিন্তু এই ঘটনার প্রভাব আমার জীবনটাকেও সারা জীবনের জন্য বদলে দিল।”

Continue Reading

বাংলাদেশ

মেজর সিনহা হত্যা মামলা: প্রদীপ, লিয়াকত ও সাফানুর হেফাজতে

জামিনের আবেদন নাকচ করে ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে দেওয়া হয় এবং বাকি ৪ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন আদালত।

ঋদি হক: ঢাকা

ওসি প্রদীপ কুমার দাশ (Pradip Kumar Das), লিয়াকত আলী (Liaquat Ali) ও কনস্টেবল সাফানুরকে তিন দিনের হেফাজতে নিয়েছে তদন্ত সংস্থা র‌্যাব (RAB)। এর আগে তাঁদের কক্সবাজার (Cox’s Bazar) চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তোলা হয়। তাঁদের জামিনের আবেদন নাকচ করে ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে দেওয়া হয় এবং বাকি ৪ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন আদালত।

এটাকে ভাগ্যের নয়, কর্মের নির্মম পরিহাসই বলা যেতে পারে। এত দিন সরকারি উর্দি পরে মানুষকে যিনি শাসাতেন, পরাতেন হাতকড়া, সময়ের পিঠ বেয়ে আজ তাঁরই হাতে হাতকড়া। তিনি বাংলাদেশের সর্বদক্ষিণের টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ।

নাফ নদীর তীরে টেকনাফ একটি পর্যটন এলাকা। এখান থেকেই সমুদ্রের বুকে বাংলার একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্ট মার্টিনে হাজারো পর্যটক যাতায়াত করে থাকেন। সঙ্গে মায়ানমারের সীমান্ত। রয়েছে স্থলবন্দরও।

এখানের টেকনাফ মডেল থানার ওসির দায়িত্ব পালন করতেন প্রদীপ। মানুষের কাছে নিজেকে জাহির করতেন ওসি হিসেবে, মানুষ হিসেবে নয়। যার প্রমাণ, তাঁর নির্দেশেই অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মকর্তা সিনহা রশিদ খানকে গুলি করে হত্যা করে লিয়াকত আলী ও কনস্টেবল সাফানুর করিম।

আরও পড়ুন: রাশেদ খান হত্যা মামলা: ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে পরোয়ানা, ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ধৃত

বৃহস্পতিবার বিকেলে সাত অভিযুক্তকে কক্সবাজার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। বলা হয়েছে, তাঁরা আত্মসমর্পণ করেছেন। দুই জন পলাতক।

পুলিশের আশ্বাস পুনরাবৃত্তি ঘটবে না: আইএসপিআর

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান পুলিশের গুলিতে মারা যাওয়ার ঘটনায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পুলিশ অত্যন্ত মর্মাহত। পুলিশের পক্ষ থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছে, এটাই শেষ ঘটনা। ভবিষ্যতে এই ধরনের কোনো ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে না।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) দেওয়া ‘কক্সবাজারে সেনাবাহিনী প্রধান ও পুলিশ মহাপরিদর্শক কর্তৃক স্ব স্ব বাহিনীকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান’ শীর্ষক এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে ও এলাকার মানুষের মধ্যে আস্থা ফিরিয়ে আনতে ওই এলাকায় সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ টহল পরিচালনা করা হবে। এ ব্যাপারে সেনাপ্রধান ও পুলিশের আইজিপি উভয়ে রাজি হয়ে নিজ নিজ বাহিনীকে নির্দেশনা দিয়েছেন।

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
শিল্প-বাণিজ্য21 mins ago

করোনায় প্রভাবিত পোশাক শিল্প, হাতে কাজ নেই সেলাই দিদিমণিদের

দেশ2 hours ago

প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা! রাজনাথের কাছে ‘গুরুত্বপূর্ণ’, চিদাম্বরম বলছেন ‘অর্থহীন’

দঃ ২৪ পরগনা3 hours ago

বারুইপুরে সাড়ে চারশোর বেশি বিজেপি কর্মী যোগ দিলেন তৃণমূলে

দেশ4 hours ago

বিজয়ওয়াড়া কোভিড কেয়ার সেন্টারে আগুন: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১

দেশ4 hours ago

পরীক্ষাই হয়নি! অমিত শাহের কোভিড রিপোর্ট নিয়ে জল্পনা ওড়াল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

দেশ5 hours ago

রাজস্থানে উদ্ধার ১১ জন পাক অভিবাসীর মৃতদেহ

দেশ6 hours ago

সাড়ে আট কোটি কৃষকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১৭,১০০ কোটি টাকা পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

দেশ9 hours ago

করোনাভাইরাস: ২১ লক্ষ ছাড়াল আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ল সুস্থতার হার

দেশ9 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৬৪৩৯৯, সুস্থ ৫৩৮৭৯

দেশ1 day ago

বিমান দুর্ঘটনা লাইভ: উদ্ধার ব্ল্যাক বক্স, উদ্ধারকারীদের কোয়ারান্টাইনে যাওয়ার নির্দেশ শৈলজার

দেশ2 days ago

১ সেপ্টেম্বর থেকেই স্কুলের ঘণ্টা বাজানোর কেন্দ্রীয় প্রস্তুতি

কলকাতা1 day ago

ঢাকায় পথদুর্ঘটনায় নিহত পর্বতারোহী, শোকস্তব্ধ কলকাতার পাহাড়প্রেমীরা

রাজ্য3 days ago

রাজ্যে প্রথম বার এক দিনে ২৫ হাজার টেস্ট, আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড হলেও সুস্থতার হারে স্বস্তি

প্রযুক্তি3 days ago

হ্যাকার এবং সাইবার অপরাধীরা করোনার সুযোগ নিচ্ছে : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

খেলাধুলো2 days ago

জাতীয় দলের অধিনায়ক-সহ পাঁচ ভারতীয় হকি খেলোয়াড় করোনা পজিটিভ

দেশ1 day ago

“দুর্ঘটনা নয়, পরিকল্পিত খুন”, কোড়িকোড়ের ঘটনা নিয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ এয়ার সেফটি এক্সপার্টের

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 days ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা3 days ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা4 days ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা1 week ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা3 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা4 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

নজরে

Click To Expand