Bangladesh Lockdown: ২৮ এপ্রিল লকডাউন শেষ, চালু হবে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ পদ্ধতি

0

ঋদি হক: ঢাকা

করোনার ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ রোধে ১৪ এপ্রিল থেকে সর্বাত্মক লকডাউনে রয়েছে বাংলাদেশ। রমজান মাস চলছে। তার পরই সব চেয়ে বড়ো ধর্মীয় উৎসব ঈদের কেনাকাটা। এ অবস্থায় রবিবার থেকে দোকান ও শপিংমল খুলে দেওয়া হচ্ছে। কেনাকাটায় ও যাতায়াতে মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ২৮ এপ্রিলের পর আর লকডাউন নয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহণ, ট্রেন ও নৌযান চলাচল করবে।

Loading videos...

অতিমারিতে কতটুকু স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কেট ও শপিংমলে ঈদের কেনাকাটা সম্ভব তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মার্কেট কমিটিকে পদক্ষেপ নিতে হবে। 

লকডাউন চলাকালীন পণ্যবাহী ট্রেন ও লরি চলাচল করছে। ২৮ এপ্রিল চলতি লকডাউন শেষ হয়ে গেলে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ পদ্ধতিতে যাচ্ছে প্রশাসন। গণপরিবহণ, যাত্রীট্রেন এবং নৌযান চলাচলে যে বিধিনিষেধ রয়েছে তা শিথিল করা হবে।

সংবাদমাধ্যমকে এমন তথ্য দিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তাঁর মতে, সাধারণ মানুষের জীবন-জীবিকার কথা চিন্তা করেই এমন ব্যবস্থা নিচ্ছে সরকার। 

ডিসেম্বর ও জানুয়ারি মাসে সংক্রমণ প্রায় দুই শতাংশের কাছাকাছি নেমে এসেছিল। এক দিকে সংক্রমণ হার নিম্নমুখী অন্য দিকে ফেব্রুয়ারি মাস থেকে টিকা কার্যক্রম চালু করা হয়। এর পর দেশের সকল পর্যটন ও বিনোদনকেন্দ্র খুলে দেওয়ার পর সেখানে মানুষের ঢল নামে।

সংক্রমণের হার কমছে

মার্চ মাসের প্রথম দিক থেকে সংক্রমণের হার ফের ঊর্ধ্বমুখী হয়। পরিস্থিতি যখন বেসামাল হয়ে পড়ে, ঠিক তখনই মানুষের জীবনরক্ষায় লকডাউনের পথে হাঁটে দেশ। এর সুফল মিলছে। শুক্রবার মৃতের সংখ্যা ৮৮ জনে নেমে আসে। আর ২৫ হাজার ৮৯৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তর সংখ্যা দাঁড়ায় ৩৬২৯ জন। আক্রান্তের হার ১৪.০১ শতাংশ। সুস্থতার হার ৮৭.৫৬ শতাংশ। মৃত্যুর হার ১.৪৭ শতাংশ।

প্রবাসী শ্রমিকদের ফেরাতে বাহরাইন ও কুয়েতে ফ্লাইট

দেশে আটকে পড়া প্রবাসী শ্রমিকদের কর্মস্থলে ফেরাতে ২৫ এপ্রিল থেকে কুয়েত ও বাহরাইন রুটে উড়ান চলাচলে অনুমতি দিয়েছে সরকার। বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সভাপতিত্বে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী এবং বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রীর বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার রাতে আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠকে বলা হয়, বাহরাইন ও কুয়েতে কর্মরত বিপুল সংখ্যক প্রবাসী কর্মী ছুটিতে এসে আটকা পড়েন। তাঁদের ভিসার মেয়াদও শেষের দিকে।

২৯ এপ্রিল থেকে বাস চালাতে চান মালিকরা

চলতি লকডাউন ২৮ এপ্রিল শেষ হয়ে যাওয়ার পরদিন থেকেই গণপরিবহণ চালাতে চান পরিবহণ-মালিকরা। দোকান-মালিকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সরকারের তরফে রবিবার থেকে লকডাউনে দোকান ও শপিংমল খোলার অনুমতি আসার পরই গণপরিবহণ চালুর বিষয়টি আলোচনায় উঠে আসে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, তাঁরা ২৯ এপ্রিল থেকে বাস চালুর বিষয়ে সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন। কিন্তু কোনো সিদ্ধান্ত পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: Covid Vaccine: শীঘ্রই কোভিডের টিকা পাবে বাংলাদেশ, জানালেন ভারতের হাইকমিশনার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.