প্রিয়া সাহার বক্তব্যের দায় নিল না সংগঠন

মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা করে প্রিয়া অভিযোগ করেন, বাংলাদেশ থেকে ৩ কোটি ৭০লক্ষ হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান নিখোঁজ গিয়েছেন।

0
ছবি : সৌজন্যে দ্য ডেইলি স্টার

ওয়েবডেস্ক : সংখ্যালঘু নিখোঁজ নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের প্রিয়া সাহা। তাঁর এই বক্তব্য একান্ত নিজস্ব বলে জানিয়ে দিল প্রিয়ার সংগঠন।

বৃহস্পতিবার ঢাকার প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলন করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত।  তিনি বলেন,‘‘ প্রিয়া সাহা সংগঠনের অন্যতম সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। তবে তিনি সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করতে যাননি। তিনি যা করছেন, নিজ দায়িত্বে করেছেন।’’

মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা করে প্রিয়া অভিযোগ করেন, বাংলাদেশ থেকে ৩ কোটি ৭০লক্ষ হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান নিখোঁজ গিয়েছেন। তাঁর এই বক্তব্যের জেরে তোলপাড় শুরু হয় বাংলাদেশে। তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক রাষ্ট্রদ্রোহীতার মামলাও হয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে রানা দাশগুপ্ত বলে, তাঁর এই বক্তব্যের পর প্রিয়াকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তিনি আরও জানান,‘‘ আমন্ত্রিত হয়ে সংগঠনের তিন সদস্যবিশিষ্ট প্রতিনিধিদল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যান। এঁদের মধ্যে ছিলেন উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য অশোক বড়ুয়া, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নির্মল রোজারিও প্রিয়া সাহা। এর মধ্যে প্রিয়া ছাড়া বাকিরা দেশে ফিরে আসেন।

রানা দাশগুপ্ত বলেন, ‘‘ প্রিয়া সাহা ‘ডিজঅ্যাপিয়ার’ বলতে কী বোঝাতে চেয়েছেন তা তিনি নিজেই জানেন। এটা যদি স্বাধীন বাংলাদেশে নিখোঁজ বা গুম অর্থে ব্যবহার করে থাকেন তবে তা ঠিক নয়।’’

তিনি বলেন, ‘‘ বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার আগের তুলনায় এখন অনেকটা কম, তবে অত্যাচার বন্ধ হয়নি।’’ পাকিস্তান আমল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত সরকারের প্রকাশিত তথ্য দেখিয়ে বলেন, দেশে হিন্দু জনগোষ্ঠীর সংখ্যা কমছে।

পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘‘দেশের স্বার্থে সংখ্যালঘুর সমস্যাকে পাশ না কাটিয়ে উচিত ইতিবাচক ভাবে তার মোকাবিলা করা। প্রিয়া সাহার বক্তব্যকে নিয়ে কেউ যাতে ঘোলা জলে মাছ না ধরতে যায় সেদিকে সবাইকে সর্তক থাকতে হবে।’’

আরও পড়ুন : ভয়াবহ বন্যার কবলে বাংলাদেশ, এখনই রেহাই পাওয়ার কোনো আশা নেই

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.