Connect with us

বাংলাদেশ

মেজর সিনহা হত্যা মামলা: প্রদীপ, লিয়াকত ও সাফানুর হেফাজতে

জামিনের আবেদন নাকচ করে ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে দেওয়া হয় এবং বাকি ৪ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন আদালত।

Published

on

ঋদি হক: ঢাকা

ওসি প্রদীপ কুমার দাশ (Pradip Kumar Das), লিয়াকত আলী (Liaquat Ali) ও কনস্টেবল সাফানুরকে তিন দিনের হেফাজতে নিয়েছে তদন্ত সংস্থা র‌্যাব (RAB)। এর আগে তাঁদের কক্সবাজার (Cox’s Bazar) চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তোলা হয়। তাঁদের জামিনের আবেদন নাকচ করে ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে দেওয়া হয় এবং বাকি ৪ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন আদালত।

এটাকে ভাগ্যের নয়, কর্মের নির্মম পরিহাসই বলা যেতে পারে। এত দিন সরকারি উর্দি পরে মানুষকে যিনি শাসাতেন, পরাতেন হাতকড়া, সময়ের পিঠ বেয়ে আজ তাঁরই হাতে হাতকড়া। তিনি বাংলাদেশের সর্বদক্ষিণের টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ।

নাফ নদীর তীরে টেকনাফ একটি পর্যটন এলাকা। এখান থেকেই সমুদ্রের বুকে বাংলার একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্ট মার্টিনে হাজারো পর্যটক যাতায়াত করে থাকেন। সঙ্গে মায়ানমারের সীমান্ত। রয়েছে স্থলবন্দরও।

এখানের টেকনাফ মডেল থানার ওসির দায়িত্ব পালন করতেন প্রদীপ। মানুষের কাছে নিজেকে জাহির করতেন ওসি হিসেবে, মানুষ হিসেবে নয়। যার প্রমাণ, তাঁর নির্দেশেই অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মকর্তা সিনহা রশিদ খানকে গুলি করে হত্যা করে লিয়াকত আলী ও কনস্টেবল সাফানুর করিম।

আরও পড়ুন: রাশেদ খান হত্যা মামলা: ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে পরোয়ানা, ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ধৃত

বৃহস্পতিবার বিকেলে সাত অভিযুক্তকে কক্সবাজার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। বলা হয়েছে, তাঁরা আত্মসমর্পণ করেছেন। দুই জন পলাতক।

পুলিশের আশ্বাস পুনরাবৃত্তি ঘটবে না: আইএসপিআর

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান পুলিশের গুলিতে মারা যাওয়ার ঘটনায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পুলিশ অত্যন্ত মর্মাহত। পুলিশের পক্ষ থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছে, এটাই শেষ ঘটনা। ভবিষ্যতে এই ধরনের কোনো ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে না।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) দেওয়া ‘কক্সবাজারে সেনাবাহিনী প্রধান ও পুলিশ মহাপরিদর্শক কর্তৃক স্ব স্ব বাহিনীকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান’ শীর্ষক এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে ও এলাকার মানুষের মধ্যে আস্থা ফিরিয়ে আনতে ওই এলাকায় সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ টহল পরিচালনা করা হবে। এ ব্যাপারে সেনাপ্রধান ও পুলিশের আইজিপি উভয়ে রাজি হয়ে নিজ নিজ বাহিনীকে নির্দেশনা দিয়েছেন।

দেশ

অবশেষে তিস্তা সমস্যার সমাধান? ডিসেম্বরে হাসিনা-মোদী বৈঠক

দু’ দেশের যৌথ পরামর্শদাতা কমিশনের বৈঠকে সিদ্ধান্ত।

Published

on

Dr. A K Abdul Momen and Dr. S Jaishankar

ঋদি হক: ঢাকা

দীর্ঘ দিন পর হলেও তিস্তায় (River Teesta) বরফ গলতে শুরু করেছে। তিস্তার জলবণ্টনের বিষয়টি যেমন দীর্ঘ সময় ধরে ঝুলে রয়েছে, তেমনই এর সমাধানে আলোচনাও কম হয়নি। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। এ বার তিস্তা নিয়ে জট খুলতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার যৌথ পরামর্শদাতা কমিশনের (জেসিসি, JCC)) বৈঠক শেষে বাংলাদেশের (Bangladesh) বিদেশমন্ত্রী (Foreign Minister) ড. এ কে আবদুল মোমেন (Dr. A K Abdul Momen) সাংবাদিকদের জানান, তিস্তা-সহ ছয়টি নদীর জলবণ্টন সমস্যা সমাধানে আগ্রহ দেখিয়েছে ভারত। একই সঙ্গে সীমান্ত-হত্যা বন্ধেও একমত হয়েছে।

ডিসেম্বরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (Sheikh Hasina) ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী (Indian PM) নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) মধ্যে ভার্চুয়াল বৈঠক হবে। এ কথা জানিয়ে ড. মোমেন বলেন, “দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে বৈঠকে কী কথা হবে সেটি এখনও ঠিক হয়নি। দুই প্রধানমন্ত্রীর ভার্চুয়াল বৈঠকে আমরা সম্মত হয়েছিবে। এখন আমরা প্রস্তুতি নেব। আমাদের হাতে সময় রয়েছে। আমরা চাইব বৈঠকটি যাতে তাৎপর্যপূর্ণ হয়।”

যৌথ পরামর্শদাতা কমিশনের বৈঠক নিয়ে ড. মোমেন বলেন, নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে হত্যাকাণ্ডকে দুই দেশেরই লজ্জা বলে মন্তব্য করেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “বৈঠকে সীমান্ত-হত্যা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। দু’দেশের গভীর বন্ধুত্বের কথা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, বন্ধুত্ব থাকার পরেও সীমান্ত-হত্যা আমাদের জন্য যেমন লজ্জার, ভারতের জন্যও লজ্জার। আমরা চাই না সীমান্ত-হত্যা ঘটুক।”

বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে এ বারের ৬ষ্ঠ জেসিসি বৈঠকে তিস্তা-সহ অভিন্ন নদীর জলবণ্টন, সীমান্ত-হত্যা, ভারতের ক্রেডিট লাইন, প্রতিরক্ষা, কানেক্টিভিটি, নিরাপত্তা, সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধ, ব্যবসা-বাণিজ্য ইত্যাদি ছাড়াও পেঁয়াজের মতো বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

ড. মোমেন সাংবাদিকদের জানান, বৈঠকে ভারতকে বলা হয়েছে ভবিষ্যতে তারা ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করলে আগে থেকেই যেন বাংলাদেশকে অবহিত করে।

করোনা ভাইরাসের কারণে এই প্রথম জেসিসি বৈঠক ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হল।  ২০১৯ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জেসিসির ৫ম বৈঠক হয়েছিল দিল্লিতে। বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও ভারতের তৎকালীন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের নেতৃত্বে সেই বৈঠক হয়েছিল।

ড. মোমেন জানিয়েছেন, সীমান্তে যেখানেই সমস্যা হবে, দু’দেশের পক্ষ থেকে যৌথ ভাবে নজরদারি চালানো করা হবে।

এদিন বিকালে বৈঠক শুরু হয়ে প্রায় এক ঘণ্টা স্থায়ী হয়। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ড. এ কে আব্দুল মোমেন এবং ভারতের (India) পক্ষে নেতৃত্ব দেন বিদেশমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর (Dr. S Jaishankar)।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

হাসিনার জন্মদিনে ভারতের শুভেচ্ছা, মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্মরণ হাসিনার

Continue Reading

বাংলাদেশ

১১ ঘন্টায় ৪৩৩ মিলিমিটার! রেকর্ড গড়ে ডুবল উত্তর বাংলাদেশের জনপথ রংপুর

নগরীর বাবু খাঁ ও কামারপাড়া, জুম্মাপাড়া, কেরানিপাড়া, আলমনগর, হনুমানতলা, মুন্সিপাড়া, গণেশপুর ইত্যাদি এলাকার অন্তত ৫০/৬০টি মহল্লার প্রধান সড়ক তলিয়ে গেছে।

Published

on

flooded Rangpur
জলমগ্ন রংপুর।

ঋদি হক: ঢাকা

আবহাওয়া অফিসের খাতাপত্রে এমন টানা বৃষ্টির নজির টানা ৬০ বছরের মধ্যে নেই। আর ১১ ঘন্টায় ৪৩৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত! ও যে শ’ বছরের রেকর্ড ভেঙেছে।

রাস্তাঘাট, দোকানপাট, অফিস-আদালত, বাড়িঘর – রংপুরের (Rangpur) সর্বত্র জলে জলময়। রাস্তার অনেক স্থানে কোমরভাঙা জল। বাড়িঘরের ভেতরে হাঁটুজলে ময়লা-আবর্জনা ভাসছে। ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে হাঁটুজলে দাড়িয়ে লাল রঙা গাড়ি। এ সব দেখে রংপুরবাসী রীতিমতো বাকরুদ্ধ। শহরের চারিদিকে জল আর জল।

আবহাওয়া অফিসের তরফে বলা হয়েছে, একনাগাড়ে এমন বৃষ্টি গত শ’ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। রংপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, শনিবার রাত ১০টা থেকে রবিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ১১ ঘণ্টায় ৪৩৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। গত ৬০ বছরে এমন একটানা বৃষ্টিপাত দেখার কথা স্মরণ করতে পারেননি শহরের কোনো মানুষ।

রংপুর বিভাগীয় শহর হলেও রাস্তাঘাট বেশ উন্নত। এর জন্য কৃতিত্ব প্রাপ্য বাংলাদেশের (Bangladesh) প্রয়াত রাষ্ট্রপতি হুসেন মহম্মদ এরশাদের। কারণ, তিনিই রংপুরের রাস্তায় দামি বাতি লাগিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। যত দিন বেঁচেছিলেন, তত দিন রংপুরের মানুষও তাঁকে ফিরিয়ে দেয়নি। প্রতিদান হিসেবে তাঁর দলের মনোনয়ন নিয়ে যিনিই ভোটে দাঁড়িয়েছেন, তাঁকেই জিতিয়েছে রংপুর।

কী অবস্থা রংপুরের

সেই রংপুর ও তার আশপাশের এলাকায় স্মরণকালের মধ্যে ভয়াবহ বৃষ্টি হয়েছে। এ বৃষ্টিতে নগরীর অন্তত ৬০টি মহল্লা হাঁটু থেকে কোমরডোবা জলে তলিয়ে গেছে। বাড়ি-ঘর জলমগ্ন। এর ফলে অন্তত এক লাখ মানুষ জলবন্দি হয়ে পড়েছেন। তাঁরা এখন বাড়িঘর ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গেছেন। বেশির ভাগ রাস্তা-ঘাট দিয়ে গাড়ি চলাচল প্রায় বন্ধ। নগরবাসীর চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। 

নগরীর বাবু খাঁ ও কামারপাড়া, জুম্মাপাড়া, কেরানিপাড়া, আলমনগর, হনুমানতলা, মুন্সিপাড়া, গণেশপুর ইত্যাদি এলাকার অন্তত ৫০/৬০টি মহল্লার প্রধান সড়ক তলিয়ে গেছে। এ সব এলাকার বাড়িঘরে জল ঢুকে বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। জলবন্দি হাজার হাজার পরিবার বাড়ি-ঘর ছেড়ে পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছে। টানা বৃষ্টিতে গভীর রাতে ঘরের ভেতরে জল ঢুকে পড়ে বেশির ভাগ বাড়ির টিভি ফ্রিজ-সহ বিভিন্ন নিত্যসামগ্রী ও মূল্যবান আসবাবপত্র জলে তলিয়ে যায়।

শহরের বাসিন্দা আসমা বেগম জানান, রাত ৩টার দিকে তাঁর ঘুম ভেঙে যায়। তিনি বাথরুমে যাওয়ার জন্য বিছানা থেকে নেমে দেখেন ঘরের ভেতরে হাঁটুজল। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে জলও বাড়তে থাকে। সকাল ৭টার মধ্যে বাড়ির উঠানসহ ঘরের ভেতর কোমরডোবা জল। খাটবিছানা সব জলে ভাসতে থাকে।

সোমবারের অবস্থা ও পূর্বাভাস

দুর্ভোগের ক্ষত রেখে রংপুরের জল নামতে শুরু করেছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী দুই দিন অবস্থা ভালো থাকবে। মৌসুমী বায়ু সচল রয়েছে। যার অবস্থান বর্তমানে ভারতের বিহারে। দুদিনের মাথায় তা ফের বাংলাদেশের উত্তর জনপদ দিয়ে প্রবেশ করবে এবং মৌসুমের শেষ বৃষ্টি ঝরিয়ে বঙ্গোপসাগরে চলে যাবে।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

হাসিনার জন্মদিনে ভারতের শুভেচ্ছা, মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্মরণ হাসিনার

Continue Reading

দেশ

হাসিনার জন্মদিনে ভারতের শুভেচ্ছা, মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্মরণ হাসিনার

দুই দেশের সম্পর্কের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকা কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করেছেন নরেন্দ্র মোদী।

Published

on

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ফাইল চিত্র।

ঋদি হক: ঢাকা

“শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছে।” রবিবার বাংলাদেশের (Bangladesh) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার (Sheikh Hasina) জন্মদিনে বিশেষ শুভেচ্ছাবার্তায় এ কথা বলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী (Indian PM) নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। দুই দেশের সম্পর্কের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকা কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করেছেন নরেন্দ্র মোদী।

ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাশ রবিবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রী হাসিনার সঙ্গে বিদায়-সাক্ষাৎ করেন। সেই সময়েই তিনি প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর  পাঠানো বিশেষ শুভেচ্ছাবার্তাটি শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্মরণ করেন। এবং বলেন, ভারতের জনগণ ও রাজনৈতিক দল বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে অভূতপূর্ব সমর্থন জানিয়েছিল। একই ভাবে তারা বাংলাদেশের সঙ্গে ঐতিহাসিক স্থলসীমা চুক্তিকেও সমর্থন জানিয়েছে।

সাক্ষাৎকালে ভারতীয় হাই কমিশনার ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভারত-সফরের কিছু দুর্লভ ফুটেজ প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেন। শেখ হাসিনা ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক সুদৃঢ় করার ক্ষেত্রে অবদানের জন্য বিদায়ী হাই কমিশনারকে ধন্যবাদ জানান এবং বিদেশ মন্ত্রকের সচিব (পূর্ব) হিসেবে তাঁর পরবর্তী কর্মজীবনের জন্য শুভকামনা জানান।

মঙ্গলবার ভারত এবং বাংলাদেশের দুই বিদেশমন্ত্রীর যে ভার্চুয়াল বৈঠক হতে চলেছে, সে ব্যাপারেও শেখ হাসিনাকে অবহিত করেন ভারতের হাইকমিশনার। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা আরও জোরদার করা প্রয়োজন।

হাসিনা বলেন, “আমরা সব সময়ই মনে করি অঞ্চলিক উন্নয়নের জন্য প্রথমেই প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে আরও বেশি সহযোগিতামূলক সম্পর্ক প্রয়োজন। কারণ, বৈদেশিক নীতির মূল মন্ত্র হল সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব এবং কারও প্রতি বিদ্বেষ নয়।”

রিভা গাঙ্গুলি দাশ প্রতিবেশীদের সম্পর্কে ভারতের নীতিতে বাংলাদেশের গুরুত্বের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে দুই দেশের মধ্যে যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অগ্রগতি হয়েছে তা তুলে ধরেন। মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তী এবং পরের বছরে বাংলাদেশের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পঞ্চাশতম বার্ষিকী উদযাপন বিষয়েও প্রধানমন্ত্রী ও ভারতের বিদায়ী হাই কমিশনারের মধ্যে আলোচনা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের বিদায়ী হাই কমিশনারের মধ্যে সাক্ষাতের সময়ে  প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস এবং ঢাকায় ভারতের ডেপুটি হাইকমিশনার বিশ্বদীপ দে-ও উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী এবং ভারতের হাইকমিশনার সাক্ষাতে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়াবলি নিয়ে আলোচনা করেন। কোভিড-১৯ পরিস্থিতি এবং দীর্ঘায়িত রোহিঙ্গা সমস্যাও আলোচনায় উঠে আসে, বলেন প্রেস সচিব।

এ প্রসঙ্গে রিভা গাঙ্গুলী দাশ বলেন, এই ব্যাধির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দুই দেশই একসঙ্গে কাজ করছে। এই মহামারির বিস্তার রোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপগুলোর প্রশংসা করেন তিনি। হাইকমিশনার কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নেরও প্রশংসা করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, সকল স্তরের, শ্রেণি ও পেশার জনগণ এই সংকট মোকাবিলায় একযোগে কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী জানান, মুজিববর্ষ উপলক্ষে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছিল। তবে করোনভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে অনেক অনুষ্ঠানই উদযাপন করা যায়নি।

হাসিনাকে চিনের অভিনন্দন

জন্মদিন উপলক্ষে শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছে চিনা কমিউনিস্ট পার্টিও। রবিবার গণভবন সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। কমিউনিস্ট পার্টি বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেছে। সিপিসি ইন্টারন্যাশনাল বিভাগের মিনিস্টার সং তাও স্বাক্ষরিত এক বার্তায় আগামী দিনে চিনের কমিউনিস্ট পার্টি ও আওয়ামি লিগের সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ হবে বলে আশা প্রকাশ করা হয়।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

৫ অক্টোবর ঢাকায় আসছেন ভারতের নতুন হাই কমিশনার

Continue Reading
Advertisement
Kings XI Punjab vs MUmbai Indians
ক্রিকেট2 hours ago

রাজস্থানের পর এ বার মুম্বইয়ের কাছেও আটকে গেল পঞ্জাব

I2Cure
শরীরস্বাস্থ্য5 hours ago

আই2পিওর ভারতে এল আই2কিয়োর হিসাবে

Covid situation kolkata
রাজ্য5 hours ago

সুস্থতা বাড়লেও কলকাতা-সহ রাজ্যের ৮ জেলার কোভিড-পরিস্থিতিই এখন উদ্বেগের

শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

সরষের তেল থেকে এলপিজি হয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স, কাল থেকে যে ১০টি নিয়ম বদলে যাচ্ছে

Coronavirus durga puja
দেশ2 days ago

ওনামেই বিপদ বাড়ল কেরলের, পুজোর আগে শিক্ষা নিতে হবে পশ্চিমবঙ্গকে

Rapes in India
দেশ2 days ago

দৈনিক ৮৭টি ধর্ষণের ঘটনা ভারতে, চাঞ্চল্যকর তথ্য এনসিআরবির

Uttar Pradesh Police
দেশ2 days ago

আটকে রাখা হল পরিবারকে, ঘেঁষতে দেওয়া হল না সংবাদমাধ্যমকে, হাতরাসের তরুণীর শেষকৃত্য করল পুলিশ

corona
দেশ2 days ago

নতুন আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা বাড়লেও সুস্থ হলেন আরও বেশি মানুষ, সক্রিয় রোগী আরও কমল ভারতে

দেশ2 days ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮০৪৭২, সুস্থ ৮৬৪২৮

covid peak india
দেশ3 days ago

১৮ সেপ্টেম্বরের পর থেকে সক্রিয় রোগীর গ্রাফ নিম্নমুখী, কোভিডের চূড়া কি অবশেষে পেরোল ভারত?

coronavirus
দেশ3 days ago

দেশে নতুন কোভিড-আক্রান্তের সংখ্যা গত ২৮ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন, ব্যাপক পতন মৃত্যুর সংখ্যাতেও

দুর্গা পার্বণ3 days ago

করোনাকালে আড়ম্বর থাকবে না, তবুও থাকবে চমক তেলেঙ্গাবাগানের পুজোয়

Coronavirus west bengal
দেশ3 days ago

বুধবারের মধ্যেই জারি হবে আনলক ৫-এর নির্দেশিকা, কী কী ছাড় মিলতে পারে এ বার?

Mamata Banerjee
রাজ্য2 days ago

‘গুরুপদ সিনহার মৃত্যু পশ্চিমবঙ্গের আলু ব্যবসায়ীদের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি’, শোকপ্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর

প্রযুক্তি3 days ago

গাড়ির কাগজ থেকে ই-চালান, নয়া মোটর ভেহিকল আইনের পরিবর্তনগুলি আপনার জেনে রাখা উচিত

InSight
বিজ্ঞান3 days ago

মঙ্গলগ্রহের বুকে আরও তিনটে হ্রদের খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানীরা

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা3 days ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা6 days ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা1 week ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 week ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা2 weeks ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা2 weeks ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা3 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা4 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

নজরে