বাংলাদেশে ছাত্র বিক্ষোভের স্লোগান। ছবি: ফেসবুক

ওয়েবডেস্ক : বাংলাদেশে বাস চাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যুর প্রতিবাদে ছাত্র আন্দোলন বৃহস্পতিবার চারদিন পড়ল। এ দিনও দেশের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলিতে নেমে বিক্ষোভে সামিল হয়েছে ছাত্ররা। তারাই গাড়ি দাঁড় করিয়ে নথি পরীক্ষা করছে। হাতেও ধরা রয়েছে পুলিশের বিরুদ্ধে লেখা স্লোগান ভরা প্ল্যাকার্ড। সেই প্ল্যাকার্ডে লেখা স্লোগানের ভাষায় অনেকেরই চোখ কপালে উঠেছে। পুলিশের বিরুদ্ধে লেখা স্লোগানে নির্দ্বিধায় ব্যবহার করা হয়েছে  ‘স্ল্যাং’ শব্দ। শাহবাগে স্লোগান উঠেছে, ‘‘আমার ভাইয়ের রক্ত লাল পুলিশ কোন…’’। ‘‘উই ওয়ান্টস জাস্টিস’’।

ছবি: ফেসবুক
ছবি: ফেসবুক
ছবি: ফেসবুক

 

ছবি: ফেসবুক

শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের উপরও। ঘটনার পর তিনি মন্তব্য করতে গিয়ে হেসেছিলেন। প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাইলে তাঁর পদত্যাগ দাবি করেছে ছাত্ররা।

https://www.facebook.com/dakhbhai/videos/1819882904746900/

আর সেই স্লোগান নিয়েই তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া। অনেকেই যেমন একে সমর্থন করছেন। কেউ কেউ আবার নাক সিঁটকেছেন। ছাত্রছাত্রীদের উপদেশ দিয়েছেন সংযত হওয়ার।

আমাদের সময় ডটকমে রবিন আকরাম লিখেছেন, ‘‘

“পুলিশ কোন চ্যাটের বাল” এই ভাষা মজলুমের, ক্ষমতাহীনের। এই ভাষার শ্লেষ সহ্য করার শক্তি ক্ষমতাবানের নাই।

বিপ্লবের “প্রথম খুন” বের হয় ভাষা দিয়ে। ছাত্রদের শ্লোগানের ভাষা এক নতুন বিপ্লবের জন্ম দিচ্ছে। এই ভাষা সুন্দর, এই ভাষা শৈল্পিক, অশ্লীল নয় মোটেই।”

কেউ আবার বলছেন, মুক্তি যুদ্ধের সময় শত্রুকে গালাগাল দিয়েই লড়াইয়ে নামতেন যোদ্ধারা। এ তো তারই প্রতিচ্ছবি।

সমাজতাত্ত্বিকদের একাংশের মতে, যেভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় আজকাল খোলামেলা গালাগাল দিয়ে পোস্ট বা মন্তব্য করা হয়। সেটাই প্রভাবিত হয়েছে স্লোগানে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন