কায়রো : গির্জায় রবিবারের প্রার্থনাসভা চলছিল। সেই সময়ে ঘটল বিস্ফোরণ। প্রাণ হারালেন অন্তত ২৬ জন, আহত ৩৫। ঘটনাস্থল মিশরের রাজধানী কায়রো।

একই চত্বরে দু’টি গির্জা, সেন্ট মার্কস ক্যাথিড্র্যাল আর সেন্ট পিটার্স চার্চ। সকাল ১০টায় বিস্ফোরণ ঘটল কপ্টিক খ্রিস্টানদের গির্জা সেন্ট পিটার্সে। বিকট আওয়াজ, ভেঙে পড়ল ছাদ, ভেঙে পড়ল জানলা। সমবেত জনতা রক্তাক্ত। এর মধ্যে ঘটনাস্থলে অনেকেই মৃত। চারিদিকে কান্না, আর্তনাদ, চিৎকার। কিন্তু কেন এই বিস্ফোরণ তা জানা যায়নি। এখনও কেউ দায় স্বীকারও করেনি। মিশরের জনসংখ্যার শতকরা ১০ ভাগ কপ্টিক খ্রিস্টান। মিশরে গত কয়েক বছরে খ্রিস্টানদের ওপর আক্রমণের সংখ্যা বেড়েছে। ২০১৩ সালেও সেন্ট মার্কস ক্যাথিড্র্যালে এক সশস্ত্র হামলায় কয়েক জনের মৃত্যু হয়।

মিশরের রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত টেলিভিশনকে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের কর্মকর্তারা বলছেন গির্জায় বিস্ফোরণের ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা অনেক বাড়তে পারে। দেশের প্রেসিডেন্ট আব্দুল ফাতা আল-সিসি এই ঘটনার নিন্দা করে তিন দিন রাষ্ট্রীয় শোক পালনের নির্দেশ দিয়েছে।

এর আগে শনিবার গিজা পিরামিডের দিকে যাওয়ার পথে একটি পুলিশ চেকপয়েন্টে এক বোমা বিস্ফোরণে ৬ জন পুলিশ নিহত হয়।হাসম নামে একটি নতুন জঙ্গী গোষ্ঠী ওই আক্রমণের দায়িত্ব স্বীকার করে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here