শুক্রবার রাত ১১.৫৯টার মধ্যে বকেয়া মেটানোর নোটিশ এয়ারটেল-ভোডাফোনকে

0
mobile tower
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: ভোডাফোন আইডিয়া এবং ভারতী এয়ারটেলের মতো সংস্থাগুলি ডিপার্টমেন্ট অব টেলিকমিউনিকেশন (ডট)-এর বকেয়া না মেটানোয় তীব্র ভর্ৎসনার মুখোমুখি হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে। শুক্রবারই শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, সংশ্লিষ্ট টেলি পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাগুলিকে নোটিশ পাঠাতে পারবে মন্ত্রক। নির্দেশ মিলতেই নড়েচড়ে বসল ডট।

গত ২৪ অক্টোবর বকেয়া মেটানোর নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। বলা হয়, ২৩ জানুয়ারির মধ্যে ওই বকেয়া টাকা মিটিয়ে দিতে হবে। তার পরেও সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যায় টেলি পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাগুলি। এ দিন সংস্থাগুলির উদ্দেশে সতর্কতাবার্তা দিয়ে সর্বোচ্চ আদালত জানিয়ে দেয়, এটাই শেষ এবং চরম সুযোগ। আগামী ১৭ মার্চের আগে যদি বকেয়া ৯২ হাজার কোটি টাকা না মেটানো হয়, তা হলে টেলিকম সংস্থাগুলির অধিকর্তাদের সশরীরে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয় বিচারপতি অরুণ মিশ্র, বিচারপতি আবদুল নাজির এবং বিচারপতি এম আর শাহের বেঞ্চ।

এর পরই ডট-এর বিভিন্ন সার্কেল সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলির কাছে প্রাপ্য চেয়ে নোটিশ ধরাতে শুরু করে। এ দিনই উত্তরপ্রদেশ (পশ্চিম) টেলিকম সার্কেল সমস্ত টেলি পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থার উদ্দেশে বিজ্ঞপ্তি জারি করে। সেখানে বলা হয়, ১৪ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতের মধ্যেই বকেয়া মিটিয়ে দিতে হবে।

ওই নোটিশে বলা হয়েছে, “উপরে উল্লিখিত বিষয়ের প্রসঙ্গে, আপনাকে ১৪.০২.২০২০, রাত ১১:৫৯টার মধ্যে, ইতিবাচক ভাবে লাইসেন্স ফি এবং স্পেকট্রাম ব্যবহারের চার্জের বকেয়া অর্থ প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে”।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি টেলি পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা ইকনোমিক্স টাইমস-এর কাছে স্বীকার করে নিয়েছে, তারা এ ধরনের নোটিশ পেয়েছে।

ডট কর্তৃপক্ষ আগেই জানিয়েছেন, ভারতী এয়ারটেলের প্রায় ২৩,০০০ কোটি টাকা, ভোডাফোন আইডিয়ার ১৯,৮২৩.৭১ কোটি এবং রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের কাছে ১৬,৪৫৬.৪৭ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন