Connect with us

গাড়ি ও বাইক

২টি মাঝারি ওজনের মোটর বাইক নিয়ে এল বিএমডব্লিউ

ওয়েবডেস্ক: বিএমডব্লিউ মোটররাড ইন্ডিয়া (BMW Motorrad India) ভারতের বাজারে মাঝারি ওজনের দু’টি নতুন মোটর বাইক নিয়ে এসেছে। বৃহস্পতিবার থেকে সংস্থার ডিলারদের কাছে এই দু’টি নতুন বাইক কেনার জন্য বুকিং করা যাবে বলে জানানো হয়েছে।

নতুন দু’টি বাইক হল ‘এফ ৯০০ আর’ এবং ‘এফ ৯০০ এক্সআর’। সংস্থার তৈরি এস ১০০০ আর এবং এস ১০০০ এক্সআর মডেলের মতোই এই নতুন দু’টি বাইকও মাঝারি ওজনের।

বিএমডব্লিউ এফ ৯০০ আর

দাম: ৯.৯ লক্ষ টাকা (দিল্লিতে এক্স-শোরুম)

ইঞ্জিন: ৮৫৯ সিসি প্যারালাল-টুইন।

স্প্রিন্ট: মাত্র ৩.৭ সেকেন্ডে ০-১০০ কিমি/ঘণ্টা।

তুলনীয়: ট্রায়ম্ফ স্ট্রিট ট্রিপল আরএস, কেটিএম ৭৯০ ডিউক এবং দুকাতি মনস্টার ৮২১-এর সঙ্গে তুলনা করে যেতে পারে।

বিএমডব্লিউ এফ ৯০০ এক্সআর

দাম: ১১.৫ লক্ষ টাকা (দিল্লিতে এক্স-শোরুম)

ইঞ্জিন: ৮৫৯ সিসি প্যারালাল-টুইন।

স্প্রিন্ট: মাত্র ৩.৬ সেকেন্ডে ০-১০০ কিমি/ঘণ্টা।

তুলনীয়: দুকাতি মনস্টার ৯৫০ এবং ট্রায়ম্ফের আসন্ন বাইক টাইগার ৯০০ জিটি-র সঙ্গে তুলনা করে যেতে পারে।

গাড়ি ও বাইক

গাড়ির ওয়্যারেন্টি এবং সার্ভিসের সময়সীমা বাড়াল মারুতি সুজুকি

Maruti

ওয়েবডেস্ক: দেশের বৃহত্তম গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা মারুতি সুজুকি ইন্ডিয়া (Maruti Suzuki India) ওয়্যারেন্টি এবং সার্ভিস সময়সীমা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণা করল। শনিবার সংস্থা জানায়, এই দু’টি ক্ষেত্রে সময়সীমা এক মাস বাড়ানো হয়েছে।

একটি বিবৃতিতে মারুতি বলে, বর্তমান পরিস্থিতির দিকে তাকিয়েই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গ্রাহককে স্বস্তি দিতে গাড়ির ওয়্যারেন্টি (Warranty) এবং সার্ভিসের সময়সীমা (Service timeline) আরও এক মাস বাড়িয়ে জুন মাসের শেষ পর্যন্ত করা হয়েছে। অর্থাৎ, যে সমস্ত গাড়ির উপর ওয়্যারেন্টি এবং সার্ভিসের সময়সীমা মে মাসে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে, সেগুলি পরের মাসের শেষ দিন পর্যন্ত বৈধ থাকবে।

বলা হয়েছে, লকডাউনের (Lockdown) কারণে যে সমস্ত ক্রেতা নিজেদের গাড়ির উল্লেখিত পরিষেবাগুলি গ্রহণ করতে পারেননি, তাঁদের জন্য সুযোগ বাড়ানো হয়েছে।

আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের সঙ্গে মারুতির জোট

লকডাউনে সংকটে পড়া খুচরো ক্রেতার জন্য একাধিক সুযোগ দিয়ে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের (ICICI Bank) সঙ্গে জোট বাঁধল মারুতি সুজুকি।

মূলত ঋণ নিয়ে গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে একাধিক সুযোগের কথা ঘোষণা করেছে মারুতি। ক্রেতার জন্য কিস্তি অর্থাৎ ইএমআইয়ের (EMI) ক্ষেত্রে নিয়ম বহুবিধ ভাবে নমনীয় করার কথা জানানো হয়েছে।

গাড়ি ঋণের (Car Loan) ক্ষেত্রে ক্রেতার জন্য তিন ধরনের ইএমআইয়ের কথা জানানো হয়েছে। ফ্লেক্সি ইএমআই, বেলুন ইএমআই এবং স্টেপ আপ ইএমআই প্রকল্প চালু করা হচ্ছে।

Continue Reading

গাড়ি ও বাইক

আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের সঙ্গে জোট বাঁধল মারুতি সুজুকি

Maruti Suzuki

ওয়েবডেস্ক: খুচরো ক্রেতার জন্য একাধিক সুযোগ দিয়ে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের (ICICI Bank) সঙ্গে জোট বাঁধল মারুতি সুজুকি ইন্ডিয়া (Maruti Suzuki India)।

মূলত ঋণ নিয়ে গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে একাধিক সুযোগের কথা ঘোষণা করেছে মারুতি। ক্রেতার জন্য কিস্তি অর্থাৎ ইএমআইয়ের (EMI) ক্ষেত্রে নিয়ম বহুবিধ ভাবে নমনীয় করার কথা জানানো হয়েছে।

গাড়ি ঋণের (Car Loan) ক্ষেত্রে ক্রেতার জন্য তিন ধরনের ইএমআইয়ের কথা জানানো হয়েছে। ফ্লেক্সি ইএমআই, বেলুন ইএমআই এবং স্টেপ আপ ইএমআই প্রকল্প চালু করা হচ্ছে। চলতি মাসে চোলামন্ডলম ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড ফিনান্স কোম্পানির সঙ্গে যৌথ ভাবে ক্রেতার জন্য বিশেষ পরিকল্পনা ঘোষণা করে মারুতি। একই সঙ্গে যুক্ত হল আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক।

সংস্থা জানিয়েছে, কোভিড-১৯ মহামারির (Covid-19 pandemic) কারণে আর্থিক সংকটে পড়া ক্রেতা যাতে নিজের পছন্দের গাড়িটি বাড়ি নিয়ে যেতে অতিরিক্ত সুবিধা পেতে পারেন, সে দিকে লক্ষ্য রেখেই এই উদ্যোগ।

সংস্থা কী বলছে?

মারুতি সুজুকি ইন্ডিয়ার এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর (মার্কেটিং অ্যান্ড সেলস) শশাঙ্ক শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, “কোভিড-১৯ সংকটের সঙ্গে লড়াইয়ের আবহে আমরা খুচরো গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে চাই। স্বল্প ডাউন পেমেন্ট, একই সঙ্গে কিস্তির টাকা পরিশোধেও একাধিক সমাধান এগিয়ে দিতে চাই। আমরা মনে করি, আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের সঙ্গে এই যৌথ উদ্যোগ ক্রেতাকে নিশ্চিত ভাবে সাহায্য করবে”।

Continue Reading

গাড়ি ও বাইক

দেশের বৃহত্তম দুই বাণিজ্যিক গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা ফের কাজ শুরু করল

মুম্বই: ভারতের বৃহত্তম দুই বাণিজ্যিক গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা ফের কাজ শুরু করেছে বলে বুধবার জানাল। টাটা মোটরস এবং অশোক লেল্যান্ড জানিয়েছে, কোভিড-১৯ (Covid-19) প্রতিরোধে যাবতীয় পদক্ষেপ নিয়েই ফের নিজেদের প্রকল্পগুলিতে কাজ শুরু করেছে।

উত্তরাখণ্ডের পন্তনগর এবং গুজরাতের সানন্দে উৎপাদন শুরু করেছে টাটা মোটরস (Tata Motors)। সংস্থার সর্বাধিক বিক্রিত মিনি-ট্রাক এবং মাঝারি ও ভারী বাণিজ্যিক গাড়িগুলির উৎপাদন ফের শুরু হয়েছে। সানন্দ প্রকল্পে ছোটো যাত্রীবাহী গাড়ি টিয়াগো এবং টিগোর-সহ অন্যান্য বৈদ্যুতিন গাড়ির কাজও শুরু হয়েছে।

অন্য দিকে অশোক লেল্যান্ড (Ashok Leyland) দেশের সব ক’টি প্রকল্পের কাজ শুরু করেছে।

সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর বিপিন সন্ধি বলেন, “আমরা লক-ডাউন ঘোষণার সময়ে যে ওয়ার্ক ইন প্রোগ্রেস (ডব্লিউআইপি) স্থগিত রেখেছিলাম, খোলার পরে সেগুলির উপরই জোর দেওয়া হচ্ছে। সর্বাগ্রে আনুষঙ্গিক ইউনিটগুলির প্রস্তুতির বিষয়টিও ধীরে ধীরে আমরা বাড়াব। উৎপাদন এবং সরবরাহের সামঞ্জস্য রাখার বিষয়টিও আমাদের মাথায় রয়েছে”।

টাটা মোটরসের আরও বেশ কয়েকটি প্রকল্প পুনরায় চালু করার চূড়ান্ত প্রস্তুতি চলছে। সংস্থা জানিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের লখনউ, কর্নাটকের ধারওয়াদ, ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুর এবং পুনে (শুধুমাত্র অ্যাম্বুলেন্স উৎপাদন) প্রকল্প আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই চালু হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: ক্ষুদ্র শিল্প থেকে পিএফ, আর্থিক ‘স্বস্তি’ ঘোষণা কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর

টাটা মোটরসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর গুয়েন্টার বাতসশেক বলেন, “সরবরাহকারী, বিক্রেতা, ডিলার এবং ক্রেতার চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই উৎপাদনের গতি বাড়বে। আমরা এই চাহিদা শীঘ্রই বেড়ে যাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী”।

Continue Reading

ট্রেন্ড্রিং