নয়াদিল্লি: এ বার থেকে সপ্তাহে চার দিন কাজ আর তিন ছুটি পেতে পারেন কর্মীরা। নতুন শ্রমবিধির খসড়া প্রস্তাবে তেমনটাই স্থির করেছে কেন্দ্রীয় শ্রম ও নিয়োগ মন্ত্রক।

সোমবার নতুন শ্রমবিধির ঘোষণা করে মন্ত্রক। খসড়ায় বলা হয়েছে, এ বার থেকে সপ্তাহে মাত্র চার দিন কাজ করাতে পারে সংস্থাগুলি। তবে এ ব্যাপারে মেনে চলতে হবে নির্দিষ্ট কিছু শর্ত। সূত্রের খবর, এই খসড়া প্রস্তাব এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই তা কার্যকর হতে পারে।

শ্রম বিভাগের সচিব অপূর্ব চন্দ্র জানিয়েছেন, নতুন নিয়ম নিয়ম লাগু হয়ে গেলে কর্মীদের সপ্তাহে চার বা পাঁচ দিন কাজ করানোর জন্য সংস্থাগুলিকে আর সরকারের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে না ৷ তবে এ ব্যাপারে যেমন কোনো সংস্থাকে চাপ দেওয়া হবে না, তেমনই নতুন নিয়ম মানতে কর্মীদের সহমত লাগবেই।

অর্থাৎ, নতুন বিধিতে সাপ্তাহিক কাজের দিন চার দিনে নামিয়ে আনার সুযোগ রয়েছে। শর্ত মেনে সপ্তাহে কাজের দিন চার, পাঁচ অথবা ছ’দিনও করা যেতে পারে। সপ্তাহে চার দিন কাজ করলে দৈনিক ১২ ঘণ্টা করে কাজ করতে হবে সংস্থার কর্মচারীদের। কারণ, এক সপ্তাহে ৪৮ ঘণ্টা কাজের যে সময়সীমা নির্দিষ্ট করা রয়েছে, সে বিষয়ে কোনো পরিবর্তন হচ্ছে না।

প্রস্তাব অনুযায়ী, সপ্তাহে ৪৮ ঘণ্টা কাজ করতে চার দিন ১২ ঘণ্টা করে কাজ করালে তিন দিন ছুটি দিতে হবে ৷ তবে এর আগে কর্মচারীদের সাপ্তাহিক কাজের দিন ৫ দিনের কম করার কোনো নীতি চালু ছিল না। নতুন বিধি কার্যকর হলে সেই সুযোগ পাওয়া যাবে।

এর আগে গত বছরের ২০ নভেম্বর দিনাঙ্কিত খসড়া নিয়মে বলা হয়েছিল, এক সপ্তাহে কাজের সময় ৪৮ ঘণ্টায় (৬ দিনX৮ ঘণ্টা) স্থির থাকবে।  একজন কর্মীর কাজের সময়কাল এমন ভাবে সাজানো হবে, যে নির্দিষ্ট অন্তরে বিশ্রাম-সহ এক দিনে কাজের সময় বারো ঘণ্টার বেশি না হয়ে যায়।

আরও পড়তে পারেন: ৪টি শ্রমবিধি কার্যকরে মরিয়া কেন্দ্র

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন