সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে ক্রিপ্টোকারেন্সি বিল পেশ করছে কেন্দ্র

0

নয়াদিল্লি: ভার্চুয়াল মুদ্রা অথবা ক্রিপ্টোকারেন্সি (Cryptocurrency) নিয়ন্ত্রণে এ বার বড়োসড়ো পদক্ষেপ নিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে মোট ২৯টি বিলের মধ্যেই ক্রিপ্টোকারেন্সি বিল পেশ করা হবে বলে সরকারি ভাবে জানানো হল মঙ্গলবার।

বন্ধ নয়, নিয়ন্ত্রণে উদ্যোগী কেন্দ্র

এ দিন একটি সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ডিজিটাল কারেন্সি নিয়ন্ত্রণের জন্য ক্রিপ্টোকারেন্সি অ্যান্ড রেগুলেশন অব অফিশিয়াল ডিজিটাল কারেন্সি বিল ২০২১ সরকারি বিলটি আগামী ২৯ নভেম্বর সংসদে পেশ করা হবে।

একটি অফিসিয়াল ডিজিটাল মুদ্রা আনার কথা জানিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া (RBI)। তার জন্য একটি সুবিধাজনক কাঠামো তৈরির প্রস্তুতি চলছে। তারই আগাম পদক্ষেপ হিসেবে এই ক্রিপ্টোকারেন্সি অ্যান্ড রেগুলেশন অব অফিশিয়াল ডিজিটাল কারেন্সি বিল ২০২১ নিয়ে আসছে কেন্দ্র। দেশে ব্যক্তিগত ক্রিপ্টোকারেন্সি নিষিদ্ধ করার চেষ্টা এবং এ ধরনের প্রযুক্তি-নির্ভর ভার্চুয়াল মুদ্রায় বিনিয়োগের প্রচার নিয়ন্ত্রণের বন্দোবস্ত থাকতে পারে ওই বিলে।

গত সপ্তাহে এই প্রথম বারের মতো সংসদীয় প্যানেল ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে আলোচনা হয়। জানা যায়, এ মুহূর্কে ক্রিপ্টোকারেন্সি বন্ধ না করে নিয়ন্ত্রিত করা আবশ্যক বলে ঐকমত্যে পৌঁছেছিল প্যানেল। আর্থিক স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বিজেপির জয়ন্ত সিনহা সভাপতিত্ব করেন ওই বৈঠকে। গত ১৬ নভেম্বর ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ, ব্লকচেন এবং ক্রিপ্টো অ্যাসেট কাউন্সিল (BACC), শিল্প সংস্থা এবং অন্যান্য অংশীদারদের সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করেছিলেন তিনি।

ক্রিপ্টো ঘিরে আশঙ্কা উপর মহলে

দিন কয়েক আগে ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ভার্চুয়াল মুদ্রা নিয়ে সেই প্রথম বার মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভুল হাতে পড়ে যাতে বড়োসড়ো ক্ষতি না হয়ে যায়, তা নিশ্চিত করার জন্য ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে সব গণতান্ত্রিক দেশকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। মোদী বলেন, “সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টা হল, সমস্ত গণতান্ত্রিক দেশকে এ বিষয়ে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। নিশ্চিত করতে হবে, ক্রিপ্টোকারেন্সি যাতে ভুল হাতে গিয়ে বড়োসড়ো ক্ষতি না করে দেয়। এটা আমাদের যুব সমাজকে ধ্বংস করে দিতে পারে”।

অন্য দিকে,  রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস সম্প্রতি বলেছেন, ব্যতিক্রমী অর্থনীতি এবং আর্থিক স্থিতিশীলতার দৃষ্টিকোণ থেকে অত্যন্ত গুরুতর উদ্বেগের কারণ রয়েছে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে। আরবিআই গভর্নরের এমন মন্তব্যের কয়েক দিনের মধ্যেই সরাসরি ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী। সংসদে বিল এনে সেই উদ্বেগ নিরসনেই পদক্ষেপ করতে চায় কেন্দ্র।

সবচেয়ে বেশি ক্রিপ্টো মালিক ভারতে!

সাম্প্রতিক একটি রিপোর্ট বলছে, দুনিয়ার মধ্যে সব থেকে বেশি ক্রিপ্টো মালিক রয়েছেন এ দেশেই। BrokerChooser-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, সারা বিশ্বের মধ্যে ভারতে সবচেয়ে বেশি ক্রিপ্টো মালিক রয়েছেন। দেশে ক্রিপ্টো মালিকদের সংখ্যা ১০.০৭ কোটি, যা বিশ্বে সর্বোচ্চ। এই তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে ক্রিপ্টো মালিকের সংখ্যা ১.৭৪ কোটি। এর পরেই রয়েছে রাশিয়া (১.৭৪ কোটি) এবং চতুর্থ স্থানে নাইজেরিয়া (১.৩০ কোটি)।

অন্য দিকে, জনসংখ্যার নিরিখে ভারতের মোট জনসংখ্যার ৭.৩০ শতাংশ এখন ক্রিপ্টো মালিক। জনসংখ্যার ভিত্তিতে ভারতের অবস্থান পঞ্চম স্থানে। ইউক্রেনের ১২.৭৩ শতাংশ মানুষ ক্রিপ্টোয় বিনিয়োগ করেন। তার পরে রয়েছে যথাক্রমে রাশিয়া (১১.৯১ শতাংশ), কেনিয়া (৮.৫২ শতাংশ) এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (৮.৩১ শতাংশ)।

আরও পড়তে পারেন:

কুলতলিতে ভেসে এল হরিণের মৃতদেহ, এলাকায় চাঞ্চল্য

পশ্চিমবঙ্গে ফের কমল করোনা সংক্রমণের হার, কমল সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও

পেট্রোল-ডিজেলের দাম কমাতে ফের উদ্যোগী কেন্দ্র, ৫০ লক্ষ ব্যারেল মজুদ তেল ছাড়ার পরিকল্পনা

দ্রুত পঞ্জাব, হরিয়ানায় যেতে চান, দিল্লিতে দাঁড়িয়ে স্পষ্ট করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

কীর্তি আজাদের পর তৃণমূলে আরেক প্রাক্তন কংগ্রেস সাংসদ, কড়া প্রতিক্রিয়া অধীররঞ্জন চৌধুরীর

ত্রিপুরায় পিছোচ্ছে না পুরভোট, তৃণমূলের আরজি খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন