দীপাবলিতে অবেলায় খুলছে শেয়ার বাজার, হাতছানি দিচ্ছে লক্ষ্মীলাভের বড়ো সুযোগ

0

কলকাতা: সারা দেশে পালিত হচ্ছে আলোর উৎসব দীপাবলি। এই বিশেষ দিনে দেবী লক্ষ্মীর পুজো। সারা বছর ধরে বাড়িতে সম্পদ এবং সমৃদ্ধি বজায় থাকার প্রার্থনা। দীপাবলি উৎসব শেয়ার বাজারের বিনিয়োগকারীদের জন্যও খুব শুভ। ইক্যুইটি, কমোডিটি ডেরিভেটিভস, কারেন্সি ডেরিভেটিভস, ইক্যুইটি ফিউচার এবং অপশন, সিকিউরিটিজ লেন্ডিং অ্যান্ড বোরোয়িং (SLB)-এর মতো বিভিন্ন সেগমেন্ট জুড়ে নির্দিষ্ট সময়ে কেনাবেচা করা যায় এ দিন।

সোমবার (২৪ অক্টোবর) দিওয়ালির মহরত ট্রেডিং সেশনের জন্য এক ঘণ্টা খোলা থাকবে শেয়ার বাজার (BSE এবং NSE)। নতুন সম্বৎ ২০৭৯-র সূচনা উপলক্ষে এই কেনাবেচার আয়োজন।

এ বছর মহরত ট্রেডিং সেশন শুরু হবে সোমবার সন্ধ্যা ৬.১৫টায় এবং শেষ হবে ৭.১৫টায়। বিশেষ ট্রেডিং উইন্ডোটি হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুযায়ী খোলে, নতুন সম্বৎ বা সংবত ২০৭৯-র সূচনা চিহ্নিত করে এই ট্রেডিং সেশন। দীপাবলি এবং মহরত ট্রেডিং দিয়ে নতুন সম্বৎ শুরু হলে সারা বছর ধরে সমৃদ্ধি এবং সম্পদ লাভ হয় বলে অনেকেরই বিশ্বাস।

মহরত ট্রেডিংয়ের সময়সূচি

ব্লক ডিল সেশন – সন্ধ্যে ৫.৪৫টা থেকে সন্ধ্যে ৬টার মধ্যে।

প্রি ওপেনিং সেশন – সন্ধ্যে ৬টা থেকে সন্ধ্যে ৬.০৮টা।

নর্মাল মার্কেট – সন্ধ্যা ৬.১৫টা থেকে ৭.১৫টা পর্যন্ত।

কল অকশন সেশন – সন্ধ্যে ৬.২০টা থেকে সন্ধ্যে ৭.০৫টা।

ক্লোজিং সেশন – সন্ধ্যে ৭.১৫টা থেকে সন্ধ্যে ৭.২৫টা।

কী এই মহরত ট্রেডিং?

দীপাবলির দিন শেয়ার বাজারে বাজার বন্ধ। তবে লক্ষ্মীপুজো উপলক্ষে সন্ধ্যায় এক ঘণ্টা মহরত ট্রেডিংয়ের (Muhurat Trading 2022) আয়োজন করা হয়। সোমবার, সন্ধ্যায় এক ঘণ্টার জন্য মহরত ট্রেডিং সেশন থাকবে। সম্বৎ বর্ষ ২০৭৯-র ওই দিন থেকে শুরু হচ্ছে এবং নতুন বছরের শুরুতে কোনো নতুন কাজ করা বা নতুন বিনিয়োগ করা খুব শুভ বলে মনে করা হয়। সেই জায়গা থেকেই বিশ্বাস, এই দিনে শেয়ারবাজারে মহরত লেনদেন করা খুবই শুভ বলে মনে করা হয়। সে কারণেই প্রতি বছর দীপাবলিতে এক ঘণ্টার জন্য খোলা থাকে শেয়ার বাজার। যাতে বিনিয়োগকারীরা দীপাবলিতে শেয়ার ট্রেডিং করতে পারেন।

যেহেতু দীপাবলিতে লক্ষ্মীপুজো করা হয়, তাই বিনিয়োগকারীদেরও ইচ্ছা থাকে ওই দিনটাতে বিনিয়োগ থেকে দুর্দান্ত রিটার্ন পাওয়ার।এমনও দেখা গিয়েছে, ওই দিন কোনো কোনো স্টকের দাম চারগুণ হারে বেড়েছে। তবে যে শেয়ারে বিনিয়োগ করছেন, সেটা মাল্টিব্যাগার হিসেবে প্রমাণিত হওয়া উচিত।

শেয়ার বাজারের মতিগতি

গত বছর, ২০২১ সালের ৪ নভেম্বর দীপাবলির দিনে মহরত ট্রেডিংয়ের আয়োজন করা হয়েছিল। শেয়ারবাজারের জন্য এই দিনটি খুবই ভালো ছিল। ওই দিন সেনসেক্স ৬০ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছিল। অন্যদিকে, নিফটি ১৭,৯২১-এ বন্ধ হয়েছিল। তার পর থেকে, গত এক বছরে শেয়ারবাজার দেখেছে বিস্তৃত অস্থিরতা।

মুদ্রাস্ফীতি, করোনা অতিমারি, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ, ডলারের তুলনায় টাকার দরপতন ও অপরিশোধিত তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে শেয়ারবাজারে ওঠানামা অব্যাহত রয়েছে। শুক্রবার, সেনসেক্স ১০৪.২৫ পয়েন্ট বেড়ে ৫৯,৩০৭.১৫-তে বন্ধ হয়েছে।

বিনিয়োগের সময় সতর্কতা

তবে আর যাইহোক, সম্পদ বিনিয়োগের সময় সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। এক ঘণ্টার মধ্যেই বিপুল বিনিয়োগের নজির রয়েছে অতীতে। ফলে বিনিয়োগের ব্যাপারে সতর্ক থাকাটাও জরুরি। বিনিয়োগের আগে কোনো স্টক সম্পর্কে বিশদ ভাবে জেনে নেওয়া উচিত। বাজার যখন অনেকটাই উপরে উঠে থাকে, তখন মুনাফা তুলে নেওয়ার অংশ হিসেবে প্রফিট বুকিং করে একটা বড়ো অংশ। আর তাতেই উপরে ওঠা কোনো স্টক নিমেষে নীচে পড়ে যেতে পারে।

আরও পড়ুন: ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে কালীপুজোয় রাজ্যের আকাশে দুর্যোগের মেঘ

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন