লিব্রায় আতঙ্ক! ফেসবুকের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন ডোনান্ড ট্রাম্প

0
donald Trump and Facebook

ওয়েবডেস্ক: সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই ক্রিপ্টোকারেন্সিল বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। টুইটারে তিনি ক্রিপ্টোকারেন্সির খারাপ দিকগুলি নিয়ে একটি পোস্ট করেন। সেখানে ফেসবুকের ভার্চুয়াল মুদ্রা লিব্রা এবং বিটকয়েন-সহ অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলির বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিলেন।

ট্রাম্প বলেন, “আমি বিটকয়েন বা অন্য কোনো ক্রিপ্টোকারেন্সির আনুরাগী নই। এগুলো টাকা নয়। হালকা বাতাসের উপর ভর করে এগুলো ওঠানামা করে। অনিয়ন্ত্রিত ক্রিপ্টোকারেন্সির সম্পদ মাদক ব্যবসা এবং অন্যান্য অবৈধ কার্যকলাপ-সহ বেআইনি আচরণকে সহজতর করে তোলে”।

একই সঙ্গে ফেসবুকের লিব্রাকেও এক হাত নেন ট্রাম্প। স্পষ্টতই বলেন, “একই ভাবে ফেসবুকের ভার্চুয়াল মুদ্রা লিব্রারও স্থায়িত্ব ক্ষীণ। যদি ফেসবুক বা অন্যান্য এই ধরনের সংস্থাগুলি ব্যাঙ্ক হতে চায়, তা হলে তাদের ব্যাঙ্কিং পরিষেবা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় অনুমোদন নিতে হবে। ব্যাঙ্ক নিয়ন্ত্রক সংস্থা যে ভাবে অন্যান্য ব্যাঙ্কগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করে, সে ভাবেই চলতে হবে ফেসবুক-সহ অন্যান্য সংস্থাকে”।

ডলারের স্বপক্ষে তিনি দাবি করেন, “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আমাদের একমাত্র প্রকৃত মুদ্রা আছে এবং এটি নির্ভরযোগ্য, শুধু তাই নয়, এটি বিশ্বে সব থেকে শক্তিশালী। বিশ্বের যে কোনো জায়গায় এটি সব থেকে বেশি প্রভাবশালী মুদ্রা। আমাদের মূদ্রা ডলার সর্বদা সেই অবস্থান ধরে রাখবে”।

Shyamsundar

ট্রাম্পের এমন মন্তব্যের পর খোঁচার পরিমাণও অগাধ। এক নেটিজেন লিখেছেন, “আমেরিকায় ৯৫ শতাংশ মাদকের ব্যবসা চলে ডলারের বিনিময়ে”।

আরও এক নেটিজনের মন্তব্য, “ডলারের থেকে বড়ো ভার্চুয়াল মুদ্রা আর কিছু নেই”। ইত্যাদি।

তবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আগেই জানিয়ে দিয়েছেন, “ক্যালিব্রা আইনকে সম্মান করবে”। একই সঙ্গে তিনি জানান, “কিন্তু আমরা নিয়মাবলি মেনেই কী ভাবে কাজ চালিয়ে যাওয়া যেতে পারে, সেই বিষয়টাতে মনসংযোগ করতে চাইছি”।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন