খবর অনলাইন ডেস্ক: আগামী ১ জানুয়ারি থেকে সমস্ত চার চাকার গাড়িতে ফাসট্যাগ (FASTag) বাধ্যতামূলক ঘোষণা করে নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্রের সড়ক পরিবহণমন্ত্রক (MoRTH)।

ফাসট্যাগ এক ধরনের ডিজিট্যাল ট্যাগ, যা রেডিও ফ্রিকোয়েন্সির আইডেন্টিফিকেশন প্রযুক্তির উপর নির্ভরশীল। এই নিয়মটি আগামী ২০২১ সালের প্রথম দিন থেকেই সমস্ত চার চাকার গাড়ির জন্য কার্যকর করতে চাইছে কেন্দ্রীয় সরকার।

Loading videos...

টোল আদায়ের জন্য ডিজিটাল ও আইটিভিত্তিক আদানপ্রদানের প্রচারের জন্য ২০১৭ সালের ১ ডিসেম্বরের আগে কেনা সমস্ত পুরনো গাড়িতেই ফাসট্যাগ বাধ্যতামূলক করার একটি খসড়া বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ এবং জাতীয় সড়কমন্ত্রক। একই সঙ্গে তৃতীয়পক্ষের গাড়ি বিমার ক্ষেত্রেও ফাসট্যাগ বাধ্যতামূলক করার কথা জানানো হয়েছিল ওই খসড়া বিজ্ঞপ্তিতে। শনিবার সেই মর্মেই বাধ্যবাধকতা মেনে চলার নির্দেশিকা জারি করেছে মন্ত্রক।

লক্ষ্যনীয় বিষয়টি হল, কেন্দ্রীয় মোটর ভেহিকল আইন, ১৯৮৯ অনুযায়ী, ২০১৭ সালের ১ ডিসেম্বরের পর কেনা যে কোনো নতুন চার চাকার গাড়িতেই ফাসট্যাগ সরবরাহ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। যা গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা অথবা ডিলারের মারফত ক্রেতার হাতে এসে পৌঁছায়।

বিমার ক্ষেত্রে

মন্ত্রক বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানিয়েছে, “ফর্ম-৫১ (বিমা সংশাপত্র‌)-র সংশোধনী অনুযায়ী, তৃতীয়পক্ষের গাড়ি বিমার ক্ষেত্রেও ফাসট্যাগ বাধ্যতামূলক। সেখানে ফাসট্যাগ আইডি-র বিবরণী উল্লেখ করতে হবে। এটি ২০২১ সালের এপ্রিল মাস থেকে কার্যকর হবে”।

ফিটনেস সার্টিফিকেটের ক্ষেত্রে

এর পাশাপাশি মন্ত্রক বলেছে, “গাড়ির ফিটনেস সার্টিফিকেটের পুনর্নবীকরণের ক্ষেত্রেও ফাসট্যাগ বাধ্যতামূলক। ফাসট্যাগ লাগানোর পরেই শংসাপত্র পুনর্নবীকরণ করা যাবে। জাতীয় পারমিট যানবাহনের জন্য ১ অক্টোবর, থেকে ফাসট্যাগ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে”।

কী কারণে ফাসট্যাগ?

টোল বুথগুলিতে ফি-এর জন্য ইলেকট্রনিক্স অর্থ আদানপ্রদান এবং এই কাজে গতি নিয়ে আসার জন্যই ফাসট্যাগের উদ্ভাবন করে সরকার।

গাড়ি রেজিস্ট্রেশনের জন্য সরকার ২০১৭ সাল থেকে ফাসট্যাগ বাধ্যতামূলক করার পর গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা বা তাদের ডিলাররা এই ফাসট্যাগ ক্রেতাকে দিয়ে থাকে। একই সঙ্গে ফিটনেস সার্টিফিকেটের পুনর্নবীকরণেও ফাসট্যাগ বাধ্যতামূলক করা হয়। ২০১৯ সালে পরিবহণ ও সড়ক মন্ত্রক জানিয়ে দেয়, ব্যক্তিগত ও বাণিজ্যিক উভয় ধরনের গাড়িতেই ফাসট্যাগ ইনস্টল করা আবশ্যিক।

ওই বছরের ১ অক্টোবর থেক ন্যাশনাল পারমিটের ক্ষেত্রেও ফাসট্যাগ বাধ্যতামূলক করা হয়। ফাসট্যাগ লাগানোর ফলে টোলপ্লাজায় ক্যাশলেস উপায়ে লেনদেন হয়। যা ন্যাশনাল ইলেকট্রনিক টোল কালেকশন (এনইটিসি) প্রোগ্রামের আওতায় অন্তর্ভুক্ত হয়।

আরও পড়তে পারেন: যাত্রী সংখ্যা একই, লাগামহীন ভাড়া অটো রিকশায়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.