Connect with us

শিল্প-বাণিজ্য

অনলাইনে কী ভাবে খুলবেন এনপিএস অ্যাকাউন্ট?

currency

ওয়েবডেস্ক: ন্যাশনাল পেনশন সিস্টেম বা এনপিএস অ্যাকাউন্ট অনলাইনে চালু করা বেশ সুবিধাজনক। জেনে নেওয়া যাক পাঁচটি পদক্ষেপে অ্যাকাউন্ট খোলার পদ্ধতি।

পদক্ষেপ ১: ব্যবহারকারীকে এনপিএস পোর্টাল- enps.nsdl.com -এ যেতে হবে। ইএনপিএস পোর্টালটি এনপিএস বিভাগের অধীনে একটি টায়ার ২ অ্যাকাউন্ট চালু করার পাশাপাশি নিবন্ধকরণ এবং জমা টাকার তথ্য সরবরাহ করে। ‘রেজিস্ট্রেশন’-এ ক্লিক করুন

পদক্ষেপ ২: এখন, আপনার স্ট্যাটাস, প্যান এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ্য দিন। ‘কন্টিনিউ’-তে এ ক্লিক করুন।

পদক্ষেপ ৩: পরবর্তী পৃষ্ঠায়, আপনার ব্যক্তিগত তথ্য বিশদে দিয়ে দিন।

পদক্ষেপ ৪: প্রয়োজনীয় বিশদ বিবরণ সরবরাহের পরে, ব্যবহারকারীকে স্বাক্ষর-সহ একটি স্ক্যানযুক্ত ছবি আপলোড করতে হবে (ছবির আকারে)

পদক্ষেপ ৫: একবার এই পর্যায়গুলি সম্পন্ন হয়ে যাওয়ার পর, ব্যবহারকারীকে এনপিএস অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করার পরবর্তী পর্যায়ে প্রবেশ করতে বলবে।

স্থায়ী অবসর অ্যাকাউন্ট নম্বর (পিআরএএন) বরাদ্দের পরে, গ্রাহককে ৩০ দিনের মধ্যে সম্পূর্ণ ফর্মটি কেন্দ্রীয় রেকর্ডকিপিং এজেন্সিতে পাঠাতে হবে। ইএনপিএস পোর্টাল অনুসারে যথাসময়ে এটি করতে ব্যর্থ হলে পুরো প্রক্রিয়া বাতিল হয়ে যেতে পারে।

শিল্প-বাণিজ্য

দেখে নিন পোস্ট অফিসের ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পগুলিতে সর্বশেষ সুদের হার

এক নজরে দেখে নিন বর্তমানে বিভিন্ন ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পগুলিতে কার্যকর সুদের হার

indian post

ওয়েবডেস্ক: পোস্ট অফিসের (Post office) বিভিন্ন ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পে ৪ থেকে ৭.৬ শতাংশ পর্যন্ত সুদ দিয়ে থাকে ভারতীয় পোস্ট (India Post)।

পোস্ট অফিসর সেভিং ডিপোজিটে বার্ষিক ৪ শতাংশ থেকে পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ডে ৭.৬ শতাংশ পর্যন্ত সুদ দেওয়া হয়। ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে সংশোধিত সুদের হার প্রকাশ করে থাকে বিভাগ।

এক নজরে দেখে নিন বর্তমানে বিভিন্ন ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পগুলিতে কার্যকর সুদের হার (Interest Rates)-

ভারতীয় পোস্টের ওয়েবসাইট থেকে পাওয়া এই তালিকা থেকেই স্পষ্ট, পাঁচ বছরের ন্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেট প্রকল্পে (National Savings Certificate scheme), ১০০০ টাকার বিনিয়োগ ম্যাচিউরিটির সময় বেড়ে ১,৩৮৯.৪৯ টাকায় পরিণত হতে পারে।

অন্য দিকে টাইম ডিপোজিট সঞ্চয় (time deposit savings) প্রকল্পে এক বছর, দুই বছর, তিন বছর এবং পাঁচ বছরের পৃথক মেয়াদেও বিনিয়োগ করা সম্ভব।

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

পকেটের ভারে ওয়ারেন বাফেটকেও টেক্কা দিলেন মুকেশ অম্বানি!

ওয়ারেন বাফেটকে টপকে তিনি বিশ্বের অষ্টম ধনীতম ব্যক্তির স্থানটি দখল করে নিয়েছেন মুকেশ অম্বানি।

ওয়েবডেস্ক: মুকেশ অম্বানির (Mukesh Ambani) কাছে ২০২০ সাল এখনও পর্যন্ত ‘লক্ষ্মীলাভে’র সেরা বছর হিসেবেই চিহ্নিত হয়ে থাকবে। এ বছরের শুরু থেকেই নিজের ডিজিটাল ব্যবসার জন্য এমন বেশ কয়েকটি চুক্তি তিনি করেছেন, যা তাঁর সম্পদের ভাণ্ডারকে টইটুম্বুর করে দিয়েছে।

এ বার তিনি আরও একটি অধ্যায় যোগ করে ফেললেন। ব্ল‌ুমবার্গ বিলিয়োনেয়ার ইনডেক্স (Bloomberg Billionaires Index) অনুযায়ী, ওয়ারেন বাফেটকে (Warren Buffett) টপকে তিনি বিশ্বের অষ্টম ধনীতম ব্যক্তির স্থানটি দখল করে নিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ওই আন্তর্জাতিক স্তরের সূচক অনুযায়ী, ভারতের শীর্ষ শিল্পগোষ্ঠী রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের (Reliance Industries Ltd) চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ৬৩ বছর বয়সি মুকেশের মোট সম্পদের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৮৩০ কোটি ডলারে।

সেই জায়গায় বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ের (Berkshire Hathaway Inc) ৮৯ বছর বয়সি বাফেটের মোট সম্পদের পরিমাণ কমে হয়েছে ৬ হাজার ৭৯০ কোটি ডলার।

কেন উপরে অম্বানি?

করোনাভাইরাস মহামারির (Coronavirus pandemic) হাবুডুবু খাচ্ছে শেয়ার বাজার। এক বছরের তলানিতে ঠেকেছে বেশ কয়েকটি স্টকের দাম। কিন্তু এমন পরিস্থিতিতেও অম্বানির সংস্থার শেয়ার গত মার্চ মাসের তুলনায় দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে। কারণ তাঁর ডিজিটাল ইউনিটে ফেসবুক অথবা সিলভার লেক-সহ বেশ কয়েকটি সংস্থার কাছ থেকে এক হাজার পাঁচশো কোটি ডলারের বেশি বিনিয়োগ সংগ্রহ করেছে।

এই সপ্তাহে বিপি পিএলসি রিলায়েন্সের খুচরো জ্বালানি ব্যবসায় অংশীদারিত্বের জন্য ১০০ কোটি ডলার প্রদান করেছিল।

কেন নীচে বাফেট?

অম্বানি যখন বিশ্বের সেরা ১০ ধনীতম ব্যক্তির তালিকায় ঢুকলেন তখন বাফেট ছিলেন অষ্টম স্থানে। কিন্তু গত মাসে অম্বানির ওই উত্তরণের পরই বাফেট নিজের ২৯০ কোটি ডলার দান করে দেন।

বাফেট বার্কশায়ারের ৩ হাজার ৭০০ কোটির শেয়ার থেকে এই বড়ো অংশের একটা টাকা দান করে দেওয়ায় সেরা দশের তালিকায় নিজের স্থান থেকে এককদম পিছিয়ে পড়েন। সঙ্গে সঙ্গে সেই জায়গায় উঠে যায় অম্বানির নাম।

প্রসঙ্গত, এর আগে ওরাল কর্পের (Oracle Corp) ল্যারি এলিসন (Larry Ellison) এবং ফ্রান্সের ফ্র্যাংকয়েস বেটেনকোর্ট বেটেনকোর্টকে (Francoise Bettencourt) হারিয়ে বিশ্বের সেরা ১০ ধনীতমের তালিকায় নবম স্থানে উঠেছিলেন মুকেশ।

আরও পড়ুন: ফেসবুকের ফ্রেন্ডলিস্টে মুকেশ অম্বানি, ৪৩,৫৭৪ কোটি টাকা পেল জিও

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

এইচডিএফসির অংশীদারিত্ব বিক্রি করছে চিনের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক

স্টক একচেঞ্জে নথিভুক্ত করা তথ্য অনুযায়ী এই খবর প্রকাশ্যে এসেছে।

ওয়েবডেস্ক: হাউজিং ডেভেলপমেন্ট ফিনান্স কর্পোরেশনে বা এইচডিএফসি (HDFC)-র কিছুটা অংশ বিক্রি করে দিচ্ছে চিনের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। স্টক একচেঞ্জে নথিভুক্ত করা তথ্য অনুযায়ী এই খবর প্রকাশ্যে এসেছে।

চিনের পিপলস ব্যাঙ্ক (People’s Bank of China) জুনের শেষের দিকে এই সংস্থায় কমপক্ষে ১ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করে দেয়। মার্চের শেষদিকে পিবিওসি প্রায় ১.৭৫ কোটি শেয়ার বিক্রি করে দেয়। যা সংস্থায় ব্যাঙ্কের মোট অংশীদারিত্বের ১.০১ শতাংশ। তবে চিনা কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক বন্ধকী ঋণের ক্ষেত্রে কোনো অংশীদারিত্ব ধরে রেখেছে কিনা, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

চিনের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক এইচটিএফসি-তে নিজের অংশীদারিত্বের কিছুটা অংশ খোলা বাজারে বিক্রি করতে পারে বলে জানা গিয়েছে হিন্দু বিজনেস লাইন সংবাদপত্রের একটি সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে। চিনা ব্যাঙ্কের এই সিদ্ধান্তের জেরে শুক্রবার এইচডিএফসির শেয়ারের দর ভারতের বাজারে ২.২ শতাংশ পড়ে যায়।

ঘটনা পরম্পরায় গত জানুয়ারি মাসের থেকে এপ্রিল পর্যন্ত প্রায় ৪০ শতাংশ পতন দেখা যায় সংস্থার স্টকের দামে। তবে সম্প্রতি চিনের শীর্ষ ব্যাঙ্ক গৃহঋণ সংস্থা এইচডিএফসি-র ১.৭৫ কোটি শেয়ার (১.০১%) কিনে নেওয়ার পর পতনের কিছুটা অংশ পুনরুদ্ধার হয়।

মার্চে শেষ হওয়া ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে চিনা ব্যাঙ্কটি ভারতের বৃহত্তম ঋণদানকারী এই সংস্থায় নিজের অংশীদারিত্ব ক্রমাগত বাড়াতে শুরু করে। কিন্তু এর পরই কেন্দ্রীয় সরকার ভারতীয় সংস্থাগুলিতে চিন-সহ প্রতিবেশী দেশগুলির বিনিয়োগের পরিমাণ নিয়ে কঠোর অবস্থান নেয়।

জানিয়ে দেওয়া হয়, যে সব দেশের স্থলসীমান্ত ভারতের সঙ্গে যুক্ত, সেখানকার কোনো সংস্থা বা ব্যক্তিকে এ দেশের সংস্থায় লগ্নি করতে হলে সরকারের অনুমতি নিতে হবে। অন্য দিকে কেন্দ্রের নিয়মানুযায়ী, প্রতি ত্রৈমাসিকে ১ শতাংশের বেশি শেয়ার হোল্ডিংয়ের তালিকা প্রকাশ করতে বাধ্য থাকবে ভারতীয় সংস্থাগুলি।

Continue Reading
Advertisement

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা5 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা7 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

নজরে