গত ১৫ দিনে ৩.৩৮ কোটির বেশি এলপিজি সিলিন্ডার বিতরণ করেছে ইন্ডিয়ান অয়েল

স্বাভাবিকের থেকে ৫০ শতাংশ বেশি আমদানি করছে ইন্ডিয়ান অয়েল। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন (আইওসি) বৃহস্পতিবার জানিয়ে দিল, করোনাভাইরাস (Cirinavirus) মহামারীর জেরে দেশব্যাপী লকডাউন চলাকালীন রান্নার গ্যাসের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ নিশ্চিত করতে এপ্রিল এবং মে মাসে অতিরিক্ত এলপিজি আমদানি করা হচ্ছে।

একটি বিবৃতিতে আইওসি জানিয়েছে, গ্রাহকরা যাতে নিরবচ্ছিন্ন ভাবে এলপিজি সিলিন্ডার পান, সে দিকে লক্ষ্য রেখেই স্বাভাবিক আমদানির থেকে প্রায় ৫০ শতাংশ অতিরিক্ত আমদানি করা হচ্ছে।

একই সঙ্গে বলা হয়েছে, “আইওসি (IOC) লকডাউন হওয়ার পর ১৫ দিনের মধ্যে গ্রাহকদের কাছে ৩.৩৮ কোটিরও বেশি এলপিজি সিলিন্ডার পৌঁছে দিয়েছে। অর্থাৎ প্রতিটি কাজের দিনে গড়ে ২৬ লক্ষ করে সিলিন্ডার সরবরাহ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সংস্থার বিপণন এবং বণ্টনকারী নেটওয়ার্ককে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে।

বলা হয়েছে, লকডাউন, কারফিউ-সহ বিভিন্ন রাজ্য এবং জেলা প্রশাসনের জারি করা বিভিন্ন বিধিনিষেধ থাকা সত্ত্বেও, সম্ভাব্য সমস্ত রকমের নিরাপদ উপায়ে গ্রাহকদের দোরগোড়ায় সময় মতো এলপিজি সিলিন্ডার বিতরণ নিশ্চিত করার জন্য আইওসির এলপিজি বিতরণকারী এবং ডেলিভারির কাজে যুক্ত কর্মীরা বাড়তি প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

সংস্থা জানিয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে ভাইরাস সংক্রমণ রুখতে বণ্টনের সঙ্গে যুক্ত প্রত্যেকে উচ্চমানের স্যানিটাইজেশন মেনে চলছেন। ডেলিভারির সঙ্গে জড়িতরা মাস্ক এবং গ্লাভস ব্যবহার করছেন।

অন্য দিকে প্রধানমন্ত্রী উজ্জ্বলা যোজনার আওতায় থাকা গ্রাহকদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। সরকার এই শ্রেণীর গ্রাহকদের জন্য এপ্রিল, মে এবং জুন মাসে ১৪.২ কেজির তিনটি বিনামূল্যের এলপিজি সিলিন্ডার বিতরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আরও পড়ুন: মহিলাদের জনধন যোজনা অ্যাকাউন্টের টাকা তোলা নিয়ে গুজবে কান দেবেন না: অর্থমন্ত্রক

নিয়মমতো উজ্জ্বলা যোজনার গ্রাহকরা ডেলিভারির সময় ক্যাশ মেমো অনুযায়ী সিলিন্ডারের পুরো দাম মেটাচ্ছেন। সেই টাকা পরে তাঁদের সংযুক্ত ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এই খাতে আইওসি ৩.৭ কোটি উজ্জ্বলা যোজনার গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে ইতিমধ্যে ২,৭৮০ কোটি টাকা ট্রান্সফার করেছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.