খবরঅনলাইন ডেস্ক: তোলপাড়-তোলা সমসাময়িক বিষয় কখনও নজর এড়ায় না আমুল-এর। ঘটনা ঘটে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের বিজ্ঞাপনে স্থান পেয়ে যায় সেই বিষয়টি। এ ক্ষেত্রেও তার ব্যত্যয় হল না। পশ্চিমবঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবিশ্বাস্য বিপুল জয় আমুল-এর বিজ্ঞাপনে জায়গা পেয়ে গেল।

অবশ্য শুধু মমতার জয়ই নয়, দশ বছর পরে এম কে স্টালিনের নেতৃত্বে তামিলনাড়ুতে ডিএমকে-র ক্ষমতায় ফিরে আসা এবং কেরলে ৪০ বছরের প্রথা ভেঙে সিপিআইএম মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের ক্ষমতা ধরে রাখা, এই দু’টি বিষয় নিয়েও ইতিবাচক কার্টুন করে বিজ্ঞাপনজগৎ মাতিয়ে দিয়েছে আমুল।

Loading videos...

৩৪ বছরের বাম শাসনের সমাপ্তির সূচনা করে ২০১১-এর নির্বাচনে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ বার তাঁর পক্ষে ক্ষমতায় ফিরে আসা খুব একটা সহজ কাজ ছিল না। প্রতিষ্ঠান-বিরোধিতার হাওয়া তো ছিলই। তার ওপরে তাঁর দলের নানা স্তরের নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে ছিল দুর্নীতির অভিযোগ। এরই মধ্যে নির্বাচনের কয়েক মাস আগে থেকে শুরু হল দলবদলের হিড়িক। বড়ো-ছোটো বহু নেতা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এলেন। মমতার বিরুদ্ধে প্রচার আরও জোরদার হল। এর ওপর ক্ষমতা দখলের স্বপ্ন নিয়ে কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপি সর্বশক্তি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ কার্যত ‘ডেলি প্যাসেঞ্জারি’ শুরু করলেন। তাঁরা রাজ্যের জনগণকে নানা কিসিমের স্বপ্ন দেখাতে শুরু করলেন। যেন তেন প্রকারেণ ক্ষমতা দখলের জন্য নানা রাস্তা নিল বিজেপি।

সমস্ত প্রতিকূলতা জয় করে কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই তৃতীয় বারের জন্য ক্ষমতায় ফিরলেন। শুধু ফিরলেনই না, রেকর্ড সংখ্যক আসন জিতে ফিরলেন। জয়ের পরে হুইলচেয়ার ছেড়ে দিয়ে জনতার সামনে দাঁড়িয়ে ‘দিদি’ ঘোষণা করলেন ‘খেলা শেষ’।

মমতার এই জয়েরই স্বীকৃতি আমুল-এর বিজ্ঞাপনে। পরনে চিরাচরিত সাদা শাড়ি, মুখে মাস্ক, হাতে মাইক্রোফোন, ক্যামেরার দিকে হাত তুলে। পাশেই মঞ্চের সিঁড়িতে আমুল-কন্যা, চিত্রসাংবাদিক রূপে। দিদিকে সম্ভাষণ জানিয়ে আমুল লিখেছে – “শি ডিডি ইট এগেন” (She Didi it again!), তাঁর পর নিজেদের ব্র্যান্ড নামের সঙ্গে তৃণমূলের নাম মিশিয়ে শব্দের খেলা খেলে লেখা – “আমুল – এনজয় ত্রিনআমুল (Amul – Enjoy TrinAmul)।

ছবি amul.com থেকে নেওয়া।

বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে শুধু পশ্চিমবঙ্গে মমতার জয়ই নয়, তামিলনাড়ুতে ডিএমকে-র জয় এবং কেরলে বামদের জয়ও উদযাপন করেছে আমুল।

তামিলনাড়ুতে দশ বছর পরে ক্ষমতায় ফিরল ডিএমকে। জয়ের কৃতিত্ব কার্যত পুরোটাই করুণানিধি-পুত্র এম কে স্টালিনের। আমুল তার বিজ্ঞাপনে স্টালিনের কৃতিত্বকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এখানেও শব্দের খেলা। হাত নেড়ে স্টালিন এগিয়ে চলেছেন জনতার মাঝখান দিয়ে। উপরে লেখা – “এমকে স্টালউইন!” (MK Stalwin!)। নীচের লেখায় ব্র্যান্ডনেমের সঙ্গে এসেছে ডিএমকে – “আমুল ডেলিসিয়াস মিক্স ইন কিচেনস্‌” (Amul Delicious Mix in Kitchens) – ডেলিসিয়াস-এর ডি, মিক্স-এর এম আর কিচেনস্‌-এর কে নিয়ে ডিএমকে।

ছবি amul.com থেকে নেওয়া।

কেরলে পিনারাই বিজয়নের জয়ও এ বার ইতিহাস সৃষ্টি করল। কেরল দ্বিতীয় বার কাউকে ক্ষমতায় ফেরায় না। গত ৪০ বছর ধরে এই ট্র্যাডিশন চলে আসছে। কিন্তু সিপিআইএম নেতা এ বার সেই অসম্ভব সম্ভব করলেন। শুধু তা-ই নয়, আগের বারের চেয়েও অনেক বেশি আসনে জিতে ক্ষমতায় ফিরল তাঁর নেতৃত্বাধীন এলডিএফ। নিজের দল সিপিআইএমকে নিয়ে গেলেন নিরঙ্কুশ গরিষ্ঠতার কাছাকাছি। বিজয়নের এই জয়কেও স্বীকৃতি জানাল আমুল। বিজ্ঞাপনে বসে আছেন বিজয়ন। পাশে একটা গোল টুলে আমুলের মাখন ও ছুরি। রাজধানী ত্রিবান্দ্রাম (তিরুঅনন্তপুরম) থেকে লেখা হয়েছে – “ট্রিওয়ানড্রাম” (TRIWONDRUM!)। নীচে আমুলের ব্র্যান্ডনেম লেখা হয়েছে কেরলের সেই বিখ্যাত ট্যাগলাইন ‘গডস্‌ ওন কান্ট্রি’ ব্যবহার করে – “আমুল গডস্‌ ওন স্ন্যাক!” (Amul GOD’S OWN Snack)।

আরও পড়ুন: মমতাকে বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. মোমেনের           

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.