Connect with us

শিল্প-বাণিজ্য

মূল্যবৃদ্ধির আঁচ এ বার দুধে, নতুন বছরে বাড়তে চলেছে দাম

ওয়েবডেস্ক: নতুন বছরের শুরুতেই মূল্যবৃদ্ধির থাবা বসতে চলেছে দুধের দামে। দুগ্ধ সরবরাহকারী সমবায় ডেয়ারিগুলির তরফে জানানো হয়েছে, চাহিদা মাফিক জোগান না থাকার কারণে অসামঞ্জস্য সৃষ্টি হয়েছে। যার জেরে বাড়তে চলেছে দুধের দাম। সমবায়গুলির দাবি, শীতের সময়েই দুধের জোগান বেশি থাকে। কিন্তু এ বছর দুগ্ধ উৎপাদনকারীদের বেশ কিছু সমস্যার কারণে সেই সরবরাহে ভাটা পড়েছে। আমুল ব্র্য়ান্ডের […]

Published

on

Amul Milk

ওয়েবডেস্ক: নতুন বছরের শুরুতেই মূল্যবৃদ্ধির থাবা বসতে চলেছে দুধের দামে। দুগ্ধ সরবরাহকারী সমবায় ডেয়ারিগুলির তরফে জানানো হয়েছে, চাহিদা মাফিক জোগান না থাকার কারণে অসামঞ্জস্য সৃষ্টি হয়েছে। যার জেরে বাড়তে চলেছে দুধের দাম।

সমবায়গুলির দাবি, শীতের সময়েই দুধের জোগান বেশি থাকে। কিন্তু এ বছর দুগ্ধ উৎপাদনকারীদের বেশ কিছু সমস্যার কারণে সেই সরবরাহে ভাটা পড়েছে।

milk

আমুল ব্র্য়ান্ডের প্রস্তুতকারক সংস্থা গুজরাত কো-অপারেটিভ মিল্ক মার্কেটিং ফেডারেশনের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এর এস সোধি সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন, দুধের দাম যে বাড়তে চলেছে, সে বিষয়ে এক প্রকার নিশ্চিত। এর জন্য দায়ী মূলত দু-টি কারণ। প্রথমত, স্কিমড মিল্ক পাওডারের মজুত কমে যাওয়া। দ্বিতীয়ত, চাহিদা অনুযায়ী দুধের জোগান না থাকা।

একই সঙ্গে তিনি দাবি করেছেন, কতকগুলি সমবায় বাদে বিভিন্ন ডেয়ারিগুলি দুগ্ধ উৎপাদনকারীদের ভালো মূল্য দেয় না। যে কারণে দুগ্ধ উৎপাদনকারীরাও নতুন করে গোরু কেনা কমিয়ে দিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, অন্যান্য বছর শীতের সময় দুধের উৎপাদন বাড়ে প্রায় ১৫ শতাংশ, এ বছর যা দাঁড়িয়ে রয়েছে মাত্র ২ শতাংশে।

[ আরও পড়ুন: টাকার কারবারিদের জন্য রোমাঞ্চকর হয়ে উঠতে চলেছে ২০১৯ ]

বিভিন্ন দুগ্ধ প্রস্তুতকারকদের তরফে এমনটাও জানানো হয়েছে, গত ২০১৭ সালে শেষ বার লিটার প্রতি দুধ এবং দুগ্ধজাত দ্রব্যের দাম বেড়েছিল ২ টাকা। গত ২০১৮ সালে স্কিমড মিল্ক পাওডারের মজুতের পরিমাণ ছিল পর্যাপ্ত। যে কারণে, মূল্যবৃদ্ধির প্রভাব পড়েনি। কিন্তু এ বার আর সম্ভব হচ্ছে না।

শিল্প-বাণিজ্য

আন্তর্জাতিক আদালতে ভারতের বিরুদ্ধে ২০,০০০ কোটি টাকার কর-বিরোধ মামলা জিতল ভোডাফোন

একই সঙ্গে আইনি ব্যয়ের আংশিক ক্ষতিপূরণ হিসেবে সংস্থাকে ৪০ কোটি টাকা দেবে ভারত সরকার।

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: আন্তর্জাতিক আদালতের সালিশিতে ভারত সরকারের বিরুদ্ধে প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকার কর মামলায় জয় পেল ভোডাফোন গ্রুপ প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি (Vodafone Group Plc)।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, হেগ (Hague)-এর ইন্টারন্যাশনাল আরবিট্রেশন ট্রাইবুনালে বহুজাতিক টেলিকম সংস্থা ভোডাফোন ভারত সরকারের বিরুদ্ধে ২০ হাজার কোটি টাকার কর-বিরোধ মামলায় জয় পেয়েছে।

ট্রাইবুনালের রায়ে বলা হয়েছে, ভারত সরকার ভোডাফোনের কাছ থেকে বকেয়া পাওনার দাবি করতে পারবে না। একই সঙ্গে আইনি ব্যয়ের আংশিক ক্ষতিপূরণ হিসেবে সংস্থাকে ৪০ কোটি টাকা দেবে ভারত সরকার।

আন্তর্জাতিক আদালত বলে, সংস্থার বিরুদ্ধে সুদ ও জরিমানা-সহ ভারতীয় কর বিভাগের এই দায় আরোপ করার পদক্ষেপ নেদারল্যান্ডস এবং ভারতের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বিনিয়োগ চুক্তি (BIT) লঙ্ঘন করার শামিল।

কর-বিরোধের মূলে রয়েছে প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে ১২ হাজার কোটি টাকা সুদবাবদ এবং ২০০৭ সালে হাচিসন ওহ্যাম্পোয়ার (Hutchison Whampoa) কাছ থেকে ভারতীয় মোবাইল সম্পদ অধিগ্রহণের সময়কালীন ৭ হাজার কোটি টাকার জরিমানা।

সরকার অবশ্য আগেই বলেছিল, অধিগ্রহণের উপর কর প্রদানে দায়বদ্ধ ছিল ভোডাফোন, যা নিয়ে সংস্থা বিরোধের পথ ধরে। তবে এ দিনের রায় নিয়ে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক এখনও পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে ভারতের শীর্ষ আদালত টেলিকম সংস্থার পক্ষেই রায় দিয়েছিল। কিন্তু সরকার পরবর্তীতে আইন পরিবর্তন সংশোধন করে। সংশোধিত আইনে পুরোনো লেনদেনের উপরে কর চাপানোর সংস্থান রাখা হয়। এর পর ২০১৪ সালের এপ্রিলে ভোডাফোন ভারতের বিরুদ্ধে সালিশি প্রক্রিয়া শুরু করে। আয়কর দফতরের সেই দাবিকেই অন্যায্য বলে মন্তব্য করল হেগ-এর আন্তর্জাতিক আদালত।

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

টানা ছ’দিন রক্তক্ষরণের পর শেয়ারবাজারের লম্বা লাফ!

এক দিনে সেনসেক্স বাড়ল ৮০০ পয়েন্টের বেশি, নিফটি প্রায় আড়াইশো!

Published

on

Stock market

খবর অনলাইন ডেস্ক: টানা ছ’দিনের ক্ষতে মলমের প্রলেপ শুক্রবার!

শেষ ছ’দিন ক্রমশ নীচের দিকে নামতে থাকে এ দেশের শেয়ারবাজারের মূল সূচকগুলি। তবে শুক্রবার দাম পড়ে যাওয়া স্টকে বিনিয়োগ বৃদ্ধি এবং বিশ্বঅর্থনীতির ইতিবাচক দিকগুলিকে আঁকড়ে ধরে প্রায় ৮০০ পয়েন্টের বেশি উপরে উঠল সেনসেক্স। নিফটি ফিফটিও প্রায় ২৩০ পয়েন্ট (২.১৩ শতাংশ) বেড়ে আগের দিনের ক্ষয় পুনরুদ্ধারের প্রবণতা দেখাল।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শেষ ছ’দিনে শেয়ারবাজার থেকে উবে গিয়েছিল ১১,৩১,৮১৫.৫ কোটি টাকার বিনিয়োগ! এ দিন তাজা বিনিয়োগের জেরে অনেকটাই চাঙ্গা এ দেশের শেয়ার বাজার।

বিনিয়োগের অনুকূল আবহাওয়ার ধারণাকে সম্বল করে এ দিন নিফটি স্মলক্যাপ ১.৮৪ শতাংশ, নিফটি মিডক্যাপ ১.৬০ শতাংশ উপরে উঠেছে। অন্য দিকে ক্ষেত্রগত সূচকগুলির মধ্যে নিফটি আইটি এবং নিফটি ফার্মা শীর্ষে রয়েছে।

কী কারণে বিনিয়োগ ফিরছে?

রাতারাতি ভোল বদল করেছে আমেরিকার শেয়ারবাজার। আমেরিকার ডাউজোন ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইনডেক্স, নাসদাক কম্পোজিট অথবা এসঅ্যান্ডপি৫০০-র উপরে ওঠার ইতিবাচক ইঙ্গিত থেকেই বাজারের ঘুরে দাঁড়ানোর অনুভূতি বাড়িয়ে তুলেছে। কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানেউ সংশয়ের ঘোর কাটিয়ে ক্রেতার দল টাকার থলি রয়েসয়ে হলেও উপুড় করছেন। অন্তত ভারত-সহ এশিয়ার অন্যান্য দেশের শেয়ারবাজারগুলিতে শুক্রবারের সবুজ সংকেত তারই প্রমাণ।

একই সঙ্গে রয়েছে গত ছ’দিনে সেনসেক্সের ২,৭৪৯.২৫ পয়েন্ট খোয়ানোর বিষয়টিও। বাজারের ‘জনপ্রিয়’ অসংখ্য স্টকের দাম এক সপ্তাহের মধ্যেই অনেকটা পড়ে গিয়েছে। বিনিয়োগকারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে এই বিষয়টি। অপেক্ষাকৃত কম দামে হাতের নাগালে পছন্দের স্টক পেয়ে একাংশের বিনিয়োগকারীদের মেজাজ এখন অনেকটাই ফুরফুরে।

এখন বিনিয়োগ কতটা নিরাপদ?

যদিও বিনিয়োগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে দু’হাজার পয়েন্টের বেশি পড়েছে সেনসেক্স। এমন অবস্থাতেও নিশ্চিত ভাবে বলা যাবে না সংশোধনে সমাপ্তি ঘটেছে। ফলে নতুন করে স্টক কেনার সময় মেপে পা ফেলাই ভালো।

বাজারের নজরে রয়েছে আমেরিকার নতুন করোনা প্যাকেজ। ২ লক্ষ ২০ হাজার কোটি ডলারের আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণার প্রস্তাব রেখেছে ডেমোক্র্যাটরা। আগামী সপ্তাহেই তার উপর ভোটাভুটি হতে পারে। সফল ভাবে তা পাশ হয়ে গেলে বিশ্বঅর্থনীতির পাশাপাশি শেয়ারবাজারের জোরালো অক্সিজেন জোগাতে পারে। তবে সবটাই সময়ের অপেক্ষা।

Continue Reading

প্রযুক্তি

সমবায় ব্যাঙ্কগুলির সাইবার নিরাপত্তার উপর জোর দিচ্ছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

সমবায় ব্যাঙ্কগুলির সাইবার নিরাপত্তা জন্য বিশেষ কৌশলভিত্তিক কাঠামো তৈরি করা হয়েছে।

Published

on

সমবায় ব্যাঙ্ক। প্রতীকী ছবি

মুম্বই: গ্রামীণ সমবায় ব্যাঙ্কগুলির সাইবার নিরাপত্তা কাঠামোয় জোর দিচ্ছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া (RBI)। গত সপ্তাহে সমবায় ব্যাঙ্কগুলিকে নিয়ন্ত্রণে আরবিআইয়ের হাতে বাড়তি ক্ষমতা তুলে দিতে লোকসভায় একটি বিল পাশ হওয়ার পরেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

দেশের সমবায় ব্যাঙ্কগুলির ক্রমাবনতি পরিস্থিতি বিবেচনা করে বুধবার লোকসভায় পাশ হয় ব্যাঙ্কিং রেগুলেশন (সংশোধনী) বিল, ২০২০। বিলের প্রস্তাব অনুযায়ী, সমবায় ব্যাঙ্কগুলিকে আরবিআইয়ের নিয়মকানুনের আওতায় আনার লক্ষ্যেই এই বিল আনা হয়েছে।

আরবিআই একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, বিভিন্ন অংশীদারদের মতামত যাচাইয়ের মাধ্যমে সমবায় ব্যাঙ্কগুলির সাইবার নিরাপত্তা জন্য বিশেষ কৌশলভিত্তিক কাঠামো তৈরি করা হয়েছে।

একই সঙ্গে বলা হয়েছে, এই নিরাপত্তায় পাঁচটি স্তরের কৌশলগত পদ্ধতির উপর জোরা দেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের তদারকি, প্রযুক্তির ব্যবহারের জন্য বিনিয়োগ, যথোপযুক্ত নিয়ন্ত্রণ ও শক্তিশালী পর্যবেক্ষণ, প্রয়োজনীয় তথ্যপ্রযুক্তির বিকাশ, সাইবার নিরাপত্তার দক্ষতা নির্ধারণ – এই পাঁচটি স্তম্ভকে একত্রে বলা হচ্ছে গার্ড (GUARD)।

সময়ের সঙ্গেই সমবায় ব্যাঙ্কগুলিও ধীরে ধীরে মূলধারার পেমেন্ট সিস্টেমের উপর আরও বেশি নির্ভরশীল হয়ে উঠছে। কিন্তু সমবায় ব্যাঙ্কগুলির সাইবার নিরাপত্তার লিঙ্কগুলিকে অপেক্ষাকৃত দুর্বল হিসেবেই দেখা হচ্ছে। কারণ, শক্তিশালী সাইবার নিরাপত্তা গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজনীয় আর্থিক বিনিয়োগের মতো অবস্থানে নেই ব্যাঙ্কগুলি।

প্রসঙ্গত, গত ২০১৮ সালে পুনের কসমস কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কে বৃহত্তম সাইবার প্রতারণার ঘটনা ঘটেছিল। হ্যাকাররা ব্যাঙ্কের সার্ভারে ম্যালওয়্যার হানা দিয়ে অ্যাকাউন্ট থেকে ৯০ কোটির বেশি টাকা ‘হাওয়া’ করে দেয়।

আরবিআইয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সাইবার নিরাপত্তা নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থায় ব্যয়ের দিকটিও মাথার রাখতে হবে সমবায় ব্যাঙ্কগুলিকে। গ্রামীণ সমবায় ব্যাঙ্কগুলি এ ব্যাপারে একটি সংরক্ষিত তহবিল গড়তে পারে। ওই তহবিল থেকেই সাইবার নিরাপত্তা মজবুত করতে অর্থ বিনিয়োগ করা যেতে পারে। কোনো সমবায় ব্যাঙ্কের বার্ষিক লাভের একটি অংশ দিয়েই ওই তহবিল গড়া যেতে পারে।

Continue Reading
Advertisement
মুর্শিদাবাদ3 mins ago

সাগরদিঘিতে তৈরি হবে দেশের সর্ববৃহৎ ভাসমান সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র

Chennai vs Delhi
ক্রিকেট2 hours ago

অবিশ্বাস্য! প্রথম তিনটে ম্যাচের মধ্যে দুটোতেই হারল চেন্নাই সুপারকিংস

কেনাকাটা3 hours ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

শরীরস্বাস্থ্য3 hours ago

হাঁপানি হচ্ছে? জেনে নিন কী কী খাবেন আর খাবেন না

রাজ্য4 hours ago

শিকেয় উঠছে করোনা সতর্কতা, বাইরে বেরিয়ে এই ৫টি কাজ মোটেই করবেন না

coronavirus
রাজ্য5 hours ago

কলকাতায় কোভিড-গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী, বাকি রাজ্যে পরিস্থিতির উন্নতি

farm bills protest
দেশ5 hours ago

কেন্দ্রের কৃষি বিল কৃষক বিরোধী, এ বার সরব হরিয়ানার দুই বিজেপি নেতা

rain in west bengal
রাজ্য6 hours ago

উত্তরবঙ্গে আরও দু’দিন অতি বৃষ্টির আশঙ্কা, দক্ষিণে বিক্ষিপ্ত

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 hours ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা1 day ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা3 days ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা6 days ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা1 week ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা1 month ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

নজরে