Connect with us

শিল্প-বাণিজ্য

জিএসটি ঘাটতি ঠেকবে ২.৩৫ লক্ষ কোটি টাকায়, দায়ী ‘ঈশ্বরের সৃষ্টি’ করোনা মহামারি: অর্থমন্ত্রী

এই ঘাটতি পুষিয়ে দেওয়ার জন্য রাজ্যগুলিকে দু’টি বিকল্প দিচ্ছে জিএসটি কাউন্সিল।

Published

on

Nirmala Sitharaman
নির্মলা সীতারমন। ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাস মহামারির (Coronavirus pandemic) প্রভাবে ২০২১ অর্থবর্ষে জিএসটি (GST) ঘাটতি ২.৩৫ লক্ষ টাকায় ঠেকবে বলে বৃহস্পতিবার জানাল কেন্দ্রীয় সরকার।

এ দিন জিএসটি কাউন্সিলের ৪১তম বৈঠকের শেষে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন (Nirmala Sitharaman) বলেন, “করোনাভাইরাস মহামারি ‘ঈশ্বরের সৃষ্টি’ এবং একটি অভাবনীয় কারণ। এর ফলে জিএসটি সংগ্রহ প্রভাবিত হয়েছে। …চলতি বছরে আমরা জিএসটি আদায়ে অস্বাভাবিক পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছি”।

Loading videos...

অর্থমন্ত্রী বলেন, এ বছরের মার্চ মাসে ১৩,৮০৬ কোটি টাকা-সহ ২০২০ সালে কেন্দ্র জিএসটি ক্ষতিপূরণ বাবদ রাজ্যগুলির জন্য ১.৬৫ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। যেখানে জিএসটি ক্ষতিপূরণের জন্য সেস সংগৃহীত হয়েছে মাত্র ৯৫,৪৪৪ কোটি টাকা। উল্লেখ্য, জিএসটি কম্পেনশেসন সেস থেকে আদায়ীকৃত একটি অংশ রাজ্যগুলিকে ক্ষতিপূরণ বাবদ দেওয়ার দাবি তোলা হয়। কিন্তু তেমন কোনো সম্ভাবনা নেই বলেই স্পষ্ট পরিসংখ্যান পেশ করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

কেন্দ্রের জিএসটি অঙ্ক

কেন্দ্রের হিসাব অনুসারে, চলতি অর্থবছরে রাজ্যগুলির ক্ষতিপূরণের জন্য প্রয়োজন হবে তিন লক্ষ কোটি টাকা। যার মধ্যে জিএসটি আমলের সেসের জন্য ৬৫,০০০ কোটি টাকা পূরণ করা সম্ভব হবে বলে আশা করা হচ্ছে। সব মিলিয়ে মোট ঘাটতি ধরা হয়েছে ২.৩৫ লক্ষ কোটি টাকা।

রাজস্বসচিব অজয় ভূষণ পাণ্ডে বলেন, চলতি অর্থবর্ষে যে আর্থিক ঘাটতি অনুমান করা হচ্ছে, তার মধ্যে জিএসটি প্রণয়নের কারণে ৯৭,০০০ কোটি টাকা ধরা হচ্ছে। বাকি পরিমাণ ঘাটতির জন্য দায়ী করোনা মহামারি।

রাজ্যগুলির জন্য বিকল্প

প্রায় পাঁচ ঘণ্টার বৈঠকের পর জানানো হয়, এই ঘাটতি পুষিয়ে দেওয়ার জন্য রাজ্যগুলিকে দু’টি বিকল্প দিচ্ছে জিএসটি কাউন্সিল। সেই প্রস্তাব খতিয়ে দেখার জন্য রাজ্যগুলিকে সাত দিনের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

প্রথম বিকল্প: রাজ্য সরকারগুলি ভারতীয় রিজার্ভ ব্য়াঙ্ক (RBI) থেকে বিশেষ সময়সীমার মধ্যে যুক্তিসঙ্গত সুদের হারে ৯৭,০০০ কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার সুযোগ পাবে। এই টাকা সেস সংগ্রহ থেকে পাঁচ বছর পর (জিএসটি বাস্তবায়নের পাঁচ বছর পর) বা ২০২২ সালের শেষে পরিশোধ করা যাবে।

দ্বিতীয় বিকল্প: রাজ্যগুলির সামনে দ্বিতীয় বিকল্পটি হল ‘বিশেষ উইন্ডো’র অধীনে সম্পূর্ণ ২.৩৫ লক্ষ কোটি টাকার ঘাটতির পরিমাণ ঋণ হিসেবে নেওয়া।

বিকল্প সুবিধা শুধু এ বছরেই!

কেন্দ্রের প্রস্তাব খতিয়ে দেখে বিকল্প নির্বাচনের জন্য সাত দিনের সময় দেওয়া হয়েছে বলে জানান পাণ্ডে।

তবে এই বিকল্প শুধমাত্র চলতি বছরের জন্যেই, পরের বছরের জন্য নয়, তেমন বার্তা দিয়ে রেখেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। তিনি জানান, “বিকল্পের বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করার জন্য রাজ্যগুলি সাত দিন সময় চেয়েছিল। তা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এই বিকল্প শুধু মাত্র চলতি বছরের জন্য দেওয়া হয়েছে। আগামী বছরে তখনকার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখা হবে”।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

দু’ দিন বিরতি দিয়ে পেট্রোল-ডিজেলের দাম আবার বাড়ল

রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছে গেল জ্বালানি তেলের দাম।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সপ্তাহান্তে দু’ দিন দাম বৃদ্ধি বন্ধ ছিল। কাজের দিন দিয়ে সপ্তাহ শুরু হতেই ফের বাড়ল জ্বালানি তেলের দাম।

গত সপ্তাহে মঙ্গলবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত টানা বেড়ে গিয়েছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। তার পর শনি ও রবিবার দামবৃদ্ধিতে থাকদমা ছিল। ফের সোমবার আবার বাড়ল। তবে এ দিনের বৃদ্ধি খুব একটা বেশি না হলেও রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছে গেল জ্বালানি তেলের দাম।

Loading videos...

চার মেট্রো শহরে কত হল জ্বালানি তেলের দাম –

কলকাতা

পেট্রোল প্রতি লিটার ৯১.৬৬ টাকা

ডিজেল প্রতি লিটার ৮৪.৯০ টাকা

দিল্লি

পেট্রোল প্রতি লিটার ৯১.৫৩ টাকা

ডিজেল প্রতি লিটার ৮২.০৬ টাকা

মুম্বই

পেট্রোল প্রতি লিটার ৯৭.৮৬ টাকা

ডিজেল প্রতি লিটার ৮৯.১৭ টাকা

চেন্নাই

পেট্রোল প্রতি লিটার ৯৩.৩৮ টাকা

ডিজেল প্রতি লিটার ৮৬.৯৬ টাকা

দিন কয়েক আগে রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশের কিছু জায়গায় পেট্রোলের দাম লিটারপ্রতি ১০০ টাকা পেরিয়ে গিয়েছিল। এই তালিকায় যুক্ত হল মহারাষ্ট্রের পরভানি। সেখানে পেট্রোলের দাম দাঁড়িয়েছে ১০০.২০ টাকা। দেশের মধ্যে পেট্রোলের সর্বোচ্চ দর চলছে রাজস্থানের শ্রীগঙ্গানগর জেলায়। সেখানে পেট্রোলের দাম এখন লিটারপ্রতি ১০২.৪২ টাকা। এর পরেই রয়েছে মধ্যপ্রদেশের অনুপপুর। সেখানে পেট্রোলের দাম লিটারপ্রতি ১০২.১২ টাকা।

আরও পড়ুন: Corona Update: একাধিক রাজ্যে সংক্রমণ কমার জের, দেশে দৈনিক সংক্রমণে ব্যাপক পতন, বাড়ল সুস্থতার হার

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

Bandhan Bank: ব্যবসা বৃদ্ধি বন্ধন ব্যাঙ্কের

শেষ ত্রৈমাসিকে ব্যাঙ্কের নেট লাভ ১০৩ কোটি টাকা। পুরো ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষের জন্য নেট লাভ ২২০৫ কোটি টাকা।

Published

on

Bandhan Bank

খবর অনলাইন ডেস্ক: দেশের অন্যতম বেসরকারি ব্যাঙ্ক, বন্ধন ব্যাঙ্ক ৩১ মার্চ, ২০২১-এ শেষ হওয়া ত্রৈমাসিক এবং আর্থিক বর্ষের ফলাফল প্রকাশ করেছে। ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষের শেষে ব্যাঙ্কের মোট ব্যবসা (আমানত এবং অগ্রিম) ২৮% বৃদ্ধি পেয়ে ১.৬৫ লক্ষ কোটি টাকা হয়েছে।

চালু হওয়ার ষষ্ঠ বছরে থাকা এই ব্যাঙ্ক ১১৪৯ শাখা এবং ৫৩৭১টি আউটলেটের মাধ্যমে ২.৩৭ গ্রাহককে পরিষেবা দিচ্ছে (৩০ এপ্রিল, ২০২১-এর হিসাব অনুযায়ী)। ৩১ মার্চ, ২০২১ পর্যন্ত বন্ধন ব্যাঙ্কের মোট কর্মী সংখ্যা ৪৯,৪৪৫।

Loading videos...

গত এক বছরে অর্থনীতি ক্রমশ ঘুরে দাঁড়ানোর ফলে ব্যাঙ্কের আমানত আগের বছরের এই ত্রৈমাসিকের তুলনায় ৩৭% বৃদ্ধি পেয়েছে। মোট আমানত এখন ৭৭,৯৭২ কোটি টাকা। গত অর্থবর্ষের তুলনায় কাসা (কারেন্ট অ্যাকাউন্ট সেভিংস অ্যাকাউন্ট) আমানত ৬১% হারে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং মোট আমানতের মধ্যে এখন কাসা অনুপাত হল ৪৩.৪%।

আগের বছরের এই ত্রৈমাসিকের তুলনায় ব্যাঙ্কের অগ্রিম বৃদ্ধি পেয়েছে ২১%। এখন মোট অগ্রিমের পরিমাণ ৮৭,০৫৪ কোটি টাকা। ব্যাঙ্কের স্থিতিশীলতার সূচক ক্যাপিটাল অ্যাডেকোয়েসি রেশিও (সিএআর) এখন ২৩.৫%, যা প্রয়োজনীয় পরিমাণের চেয়ে বেশি।

৩১ মার্চ, ২০২১-এ শেষ হওয়া ত্রৈমাসিকে ব্যাঙ্কের নেট লাভ ১০৩ কোটি টাকা। পুরো ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষের জন্য নেট লাভ ২২০৫ কোটি টাকা।

এই ফলাফল নিয়ে বন্ধন ব্যাঙ্কের এমডি এবং সিইও চন্দ্রশেখর ঘোষ বলেন, “গত এক বছরে অর্থনীতি ক্রমশ ঘুরে দাঁড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে আমরা চতুর্থ কোয়ার্টারে এবং ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষে ব্যবসার ভালো উন্নতি দেখতে পেয়েছি। দেশ একটা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এই সময় আমরা আমাদের মূল্যবান গ্রাহকদের যতরকম ভাবে সম্ভব সাহায্য করতে বদ্ধপরিকর। বন্ধন ব্যাঙ্কের উপর বিশ্বাস রেখে যাওয়ার জন্য আমরা তাঁদের ধন্যবাদ জানাই।”

আরও পড়তে পারেন: জীবন বিমা পলিসি কত রকমের হয়? কেনার সময় নিজের প্রয়োজনীয়তার কথা মাথায় রাখুন

Continue Reading

গাড়ি ও বাইক

মৃত্যুর পর গাড়ির মালিক কে? এ বার আগে থেকেই তা নির্ধারণ করা যাবে

ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে ঠিক যে ভাবে নমিনি বা মনোনীত ব্যক্তি বেছে নেওয়া যায়, একই রকম ভাবে গাড়ির ক্ষেত্রেও তা প্রযোজ্য হচ্ছে।

Published

on

Car dealer

খবর অনলাইন ডেস্ক: মালিকের মৃত্যুর পর গাড়ির মালিকানা কার হাতে যাবে? তা নিয়ে যাবতীয় ধন্ধ কাটানো যেতে পারে মৃত্যুর আগেই। গাড়ির মালিকেরা রেজিস্ট্রেশনের সময় অথবা তার পরে নিজের গাড়ির উত্তরসূরি মনোনীত করে সেই তথ্য আপডেট করতে পারবেন। কেন্দ্রের সড়ক পরিবহণ ও জাতীয় সড়ক মন্ত্রকের তরফে ৮ এপ্রিল গেজেট বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সেন্ট্রাল মোটর ভেহিকলস রুলস, ১৯৮৯-এর সংশোধনী জারি করেছে।

জানানো হয়েছে, গাড়ির মালিক যানবাহনের রেজিস্ট্রেশনের সময় মনোনীত ব্যক্তির নাম রাখতে পারেন। তবে একটা অনলাইন অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে পরবর্তী সময়েও সেটা করা যেতে পারে।

Loading videos...

এই সংশোধনীর মাধ্যমে মালিকের মৃত্যুর ক্ষেত্রে যানবাহনটি মনোনীত ব্যক্তির নামে রেজিস্ট্রেশন বা ট্রান্সফার প্রক্রিয়াকে আরও সহজ করে তুলবে। ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে ঠিক যে ভাবে নমিনি বা মনোনীত ব্যক্তি বেছে নেওয়া যায়, একই রকম ভাবে গাড়ির ক্ষেত্রেও তা প্রযোজ্য হচ্ছে।

আইন সংশোধনের আগে অবশ্য এই সুবিধাটি পাওয়া যেত না। কারণ, এটা ছিল একটা জটিল প্রক্রিয়া। দেশের বিভিন্ন জায়গায় এ ব্যাপারে ভিন্ন ভিন্ন পদ্ধতি ছিল। যে কারণে, মালিকের মৃত্যুর পর তা হস্তান্তরের প্রক্রিয়াটি ছিল বেশ লম্বা। এর জন্য ঘন ঘন সংশ্লিষ্ট অফিসে গিয়ে তাগাদা দিতেও হতো।

কী ভাবে ঘটবে মালিকানা হস্তান্তর?

যানবাহনের মালিকের মৃত্যুর পরে মনোনীত ব্যক্তির কাছে মালিকানা হস্তান্তর কী ভাবে ঘটবে, তা সংক্ষেপে দেখে নেওয়া যাক।

প্রকৃত মালিকের মৃত্যুর পর মনোনীত ব্যক্তি পুরনো রেজিস্ট্রেশনেই গাড়িটি ব্যবহার করতে পারবেন। তবে এই সময়কাল মালিকের মৃত্যুর পর থেকে সর্বোচ্চ তিন মাস। এরই মধ্যে ৩০ দিনের ভিতর সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রেশন কর্তৃপক্ষকে মালিকের মৃত্যুর ব্যাপারে নথি-সহ অবগত করতে হবে। পাশাপাশি মৃত্যুর আগে মালিক যে তাঁকে মনোনীত করে গিয়েছেন, সেটাও জানাতে হবে।

গাড়িটির দখল নিয়ে মামলাও হতে পারে। তবে মোটর গাড়ির মালিকের মৃত্যুর পরে তিন মাসের মধ্যে মালিকানা হস্তান্তরের জন্য ‘ফরম ৩১’ ব্যবহার করে আবেদন করতে হবে।

ফরমের পাশাপাশি কী কী দিতে হবে?

রুল নম্বর ৮১-তে উল্লিখিত উপযুক্ত ফি।

গাড়ি মালিকের মৃত্যুর শংসাপত্র।

রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট।

বিমা সার্টিফিকেট।

ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং ই-রিকশা ও ই-কার্টের ক্ষেত্রে পারমিট।

রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেটে উল্লেখ করা হবে মনোনীত ব্যক্তির পরিচয়ের প্রমাণ।

আরও পড়তে পারেন: জীবন বিমা পলিসি কত রকমের হয়? কেনার সময় নিজের প্রয়োজনীয়তার কথা মাথায় রাখুন

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
Madhyamik examination west bengal
শিক্ষা ও কেরিয়ার33 mins ago

Madhyamik 2021: আপাতত হচ্ছে না মাধ্যমিক পরীক্ষা, সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় পর্ষদ

দেশ53 mins ago

Telangana Lockdown: ১২ মে থেকে ১০ দিনের শর্তসাপেক্ষ লকডাউন জারি হচ্ছে তেলঙ্গানায়

প্রযুক্তি1 hour ago

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোভিড অ্যাপ, সহজে জানা যাবে যাবতীয় তথ্য

রাজ্য2 hours ago

দিব্যেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ জেলা তৃণমূলের

বিজ্ঞান3 hours ago

রক্তের গ্রুপের উপর কি কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, গবেষণায় জানাল সিএসআইআর

বিদেশ3 hours ago

স্বাস্থ্যকর্মীর ভুলে ইতালির এক মহিলাকে কোভিড টিকার ৬টি ডোজ, তার পর কী হল

রাজ্য5 hours ago

বিধায়ক পদ ছাড়ছেন রাজ্যের দুই বিজেপি নেতা

দেশ6 hours ago

আক্রান্ত কর্মীদের দেখতে গিয়ে হামলার শিকার ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার, অভিযুক্ত বিজেপি

দেশ3 days ago

Covid Crisis: জলে গুলে খেতে হবে, করোনারোধী ওষুধে ছাড়পত্র দিল ডিজিসিআই

বিজ্ঞান2 days ago

কোভিডের ভাইরাস বায়ুবাহিত, ৬ ফুট পর্যন্ত ছড়াতে পারে, দাবি শীর্ষ মার্কিন সংস্থার

রাজ্য2 days ago

Bengal Corona Update: নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় একই, রাজ্যে বাড়ল সুস্থতা

রাজ্য3 days ago

Bengal Corona Update: সংক্রমণের হার ফের ৩০ শতাংশ পার, বাড়ল মৃতের সংখ্যাও, তবে কলকাতা-সহ ৯ জেলায় কমল সক্রিয় রোগী

দেশ2 days ago

ভ্যাকসিন এবং কোভিডের চিকিৎসা সরঞ্জামে ট্যাক্স কেন? মমতার চিঠির পর ১৬টা টুইট কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর

রাজ্য2 days ago

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃতীয় মন্ত্রীসভায় একাধিক নতুন মুখ

দেশ3 days ago

Vaccination Drive: শীঘ্রই চতুর্থ কোভিড-টিকা পেয়ে যেতে পারে ভারত

বিজ্ঞান2 days ago

পৃথিবীতে ফিরে এল চিনা রকেটের অবশিষ্টাংশ, পড়ল ভারত মহাসাগরে

ভিডিও

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 months ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা4 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা4 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা4 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা4 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা4 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে