প্রিমিয়ামের টাকা দিতে না পারায় অচল হয়েছে এলআইসি পলিসি? ফের চালু করা যাবে

LIC

ওয়েবডেস্ক: রাষ্ট্রায়ত্ত জীবন বিমা কর্পোরেশন (এলআইসি) দু’বছরের বেশি সময় ধরে অচল হয়ে পড়ে থাকা পলিসি পুনরুদ্ধারের সুবিধা দিচ্ছে। এটি এমন একটি পদক্ষেপ, যা ধারাবাহিকতার অনুপাতকে উন্নত করতে সহায়তা করবে। এর আগে দু’বছরের বেশি সময় ধরে প্রিমিয়াম জমা না করলে পলিসি আর চালু করা যেত না। এখন সেটা করা যেতে পারে বলে এলআইসি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে।

বিমা নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইআরডিএআই-এর ‘প্রোডাক্ট রেগুলেশন ২০১৩’ কার্যকর হয় ২০১৪ সালের ১ জানুয়ারি থেকে। ওই নিয়মে বলা হয়েছিল, কোনো পলিসিধারী প্রিমিয়াম জমা করার তারিখ থেকে টানা দু’বছরের মধ্যে বকেয়া প্রিমিয়াম মিটিয়ে দিলে তা পুনরায় চালু করা সম্ভব। কিন্তু সেটা সম্ভব শুধু মাত্র দু’বছর সময়সীমার মধ্যে। এই সীমা অতিক্রান্ত হলে পলিসটি পুনর্নবীকরণের কোনো সুযোগ থাকবে না।

তবে এই নিয়ন্ত্রক সংস্থা এই নিয়ম জারি করার পরই সারা জীবনের জন্য বিমার সুবিধা বাড়ানোর লক্ষ্যে এলআইসি আইআরডিআইয়ের কাছে পৌঁছায়। এবং ২০১৪ সালের ১ জানুয়ারির পরে কেনা, এমন বন্ধ হয়ে যাওয়া পলিসি পুনরুদ্ধারের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন জানায় এলআইসি। দেশের বৃহত্তম বিমা সংস্থার সেই আবেদনে সাড়া দেয় আইআরডিএআই।

এখন যে সব এলআইসি পলিসিধারী তাঁদের পলিসি ১ জানুয়ারি ২০১৪ সালের পরে কিনেছিলেন, তাঁরা নিজেদের নন-লিঙ্কড (শেয়ার বাজারের সঙ্গে যুক্ত নয়) পলিসিগুলিকে ৫ বছরের মধ্যে এবং ইউনিট লিঙ্ক (শেয়ার বাজারের সঙ্গে যুক্ত) পলিসিকে প্রথম প্রিমিয়ামের ৩ বছরের মধ্যে পুনরুদ্ধার করতে পারবেন।

[ আরও পড়ুন: একই সঙ্গে ভবিষ্যতের সুরক্ষা এবং সঞ্চয়ের দ্বিমুখী সুবিধা দিচ্ছে এলআইসির এই পলিসি ]

এলআইসির ম্যানেজিং ডিরেক্টর বিপিন আনন্দ বলেছেন, দুর্ভাগ্যক্রমে এমন পরিস্থিতি প্রায়শই দেখা যায়, যখন বিমাকারী নিজের পলিসির প্রিমিয়াম জমা দিতে পারেন না। ফলে সেই পলিসি বন্ধ হয়ে যায়। সে ক্ষেত্রে নতুন করে পলিসি কেনার থেকে অচল হয়ে পড়ে থাকা পলিসিকে ফের চালু করা বেশ ভালো।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.